• মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:২৮ পূর্বাহ্ন |

পদ্মাসেতুর নির্মাণ শুরু ২০ ফেব্রুয়ারি

padma-setuঢাকা: আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে পদ্মা সেতুর মূল নির্মাণ কাজ ও নদী শাসন একসঙ্গে শুরু হবে। ওই দিন নদী শাসনের কারিগরি প্রস্তাব পাওয়া যাবে। পাঁচটি কোম্পানি দরপত্র জমা দিয়েছে। তারা সবাই করিগরি প্রস্তাব জমা দেবে। কারিগরি কমিটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে কার্যাদেশ দেবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূত ড. সাঈদ বিন হাজার আল সেহির সঙ্গে বৈঠক শেষে মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন।

পদ্মা সেতু নির্মাণে ব্যয় বাড়ানোর কোন পরিকল্পনা নেই জানিয়ে যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, আমরা এখন পর্যন্ত ব্যয় বৃদ্ধির কোন চিন্তা করিনি। ৭ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হবে। তবে সময় বাড়লে নদী শাসনের ক্ষেত্রে ব্যয় হয়তো কিছুটা বাড়তে পারে। কারণ নদীর গতিপথ কখন কোন দিকে যায় তা বলা যায় না। মূল সেতুতে ব্যয় বাড়ার কোন কারণ নেই।

নিজস্ব অর্থায়নেই সব কাজ করা হবে কিনা-এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, নিজস্ব অর্থায়নেই আমরা করছি। এটা কোন নতুন বিষয় নয়। অর্থমন্ত্রী ইতোমধ্যে বলেছেন, আমাদের ১৮ বিলিয়ন ডলার বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ রয়েছে। পদ্মা সেতু আমাদের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। রিজার্ভ থেকে আমরা ২ বিলিয়ন খরচ করলে আমাদের অনেকগুণ সময় বাঁচাতে পারবো, অনেকগুণ বেশি আয় আমাদের অর্থনীতিতে যুক্ত করতে পারবো। এটা আমাদের লস না এটা আমাদের ইনভেস্টমেন্ট (বিনিয়োগ)।

তিনি আরো বলেন, বিশ্বব্যাংকের ডিজাইন, বিশ্বব্যাংকের পরিকল্পনা, বিশ্বব্যাংকের নকশা অনুযায়ী পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ চলছে। মূল সেতু ও নদী শাসনের দরদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো বিশ্বব্যাংকের প্রাক-যোগ্যতা অর্জন করা। বাংলাদেশ নতুন করে কিছু করেনি।

রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, আমাদের পিপিপি (সরকারি বেসরকারি অংশীদারিত্ব) প্রকল্পগুলো রাষ্ট্রদূত চেয়েছেন। তাকে প্রকল্পের তালিকা দেওয়া হয়েছে। এগুলো পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানান তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ

error: Content is protected !!