• শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১১:৫৯ পূর্বাহ্ন |

ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য সম্প্রসারণের উদ্যোগ

Flagঅর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক: প্রতিবেশী দেশ ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক সম্প্রসারণের উদ্যোগ নিয়েছে দেশের ব্যবসায়ীরা। এজন্য দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্যিক সম্পর্ক বৃদ্ধির ক্ষেত্রে ভারতে বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের মাল্টিপল ভিসাপ্রাপ্তি সহজীকরণের ওপর জোর দিচ্ছেন উদ্যোক্তারা।

নতুন সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর ইন্ডিয়া-বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রি (আইবিসিসিআই) ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদার করতে   বেশকিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

আইবিসিসিআই সুত্রে জানা গেছে, ভিসা জটিলতা এবং ভারতের সঙ্গে বিদ্যমান নানা ধরনের শুল্ক ও অশুল্কজনিত সমস্যার কারণে বাংলাদেশের বাণিজ্য ঘাটতি দিন দিন বাড়ছে।

ইপিবি সুত্রে জানা গেছে, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বর্তমান বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ প্রায় ৪১৮০ মিলিয়ন ডলার। এ ঘাটতি দূরীকরণে ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য সম্প্রসারণের কোন বিকল্প নেই।

জানা গেছে, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য ঘাটতি হ্রাসে আইবিসিসিআই’র পক্ষ থেকে কয়েকটি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।

এগুলোর মধ্যে রয়েছে ভারতের ব্যবসায়ী ও সরকারী প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা, রপ্তানির ক্ষেত্রে ভারতে শুল্ক ও অশুল্কজনিত সমস্যা দূরীকরণের উদ্যোগ, ব্যবসায়ীদের জন্য মাল্টিপল ভিসাপ্রাপ্তি সহজীকরণ, শুল্ক ও কোটামুক্ত সুবিধায় বাংলাদেশী পোশাক রপ্তানি বৃদ্ধি, ল্যাবরেটরি টেস্টের নামে হয়রানি বন্ধ, বিভিন্ন রাজ্যের নিজস্ব শুল্ক, এন্টি ডাম্পিং, কাউন্টার ভেইলিং ডিউটি প্রত্যাহার, সেভেন সিস্টারস’ খ্যাত ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে রপ্তানি বৃদ্ধি, সীমান্ত হাট কার্যকর, তুলা আমদানি সহজ করা এবং এদেশে ভারতের বিনিয়োগ বৃদ্ধি করা।

এ ব্যাপারে আইবিসিসিআই’র সভাপতি মোহাম্মদ আলী বলেন,  ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য ঘাটতি বাংলাদেশের অনুকূলে নয়। অথচ বাংলাদেশের সামষ্টিক অর্থনীতির স্বার্থে এই ঘাটতি দূর করা জরুরী।

তিনি বলেন, বিদ্যমান বাণিজ্য ঘাটতি দূর করতে হলে দু’দেশের সরকারী-বেসরকারি সমন্বিত পদক্ষেপ প্রয়োজন। আইবিসিসিআই এক্ষেত্রে সরকারকে সব ধরনের সহযোগিতা করতে প্রস্তুত বলে উল্লেখ করেন তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ