• সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১০:৪৯ অপরাহ্ন |

ভাষা দিবসে এ কী সাজের পরামর্শ দৈনিক সমকালের!

from somokalআমার ভাইয়ের রক্তে রাঙান একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’। বাঙালি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পেয়েছে ভাষার জন্য আত্মদানের মাধ্যমে। পৃথিবীর ইতিহাসে আর কোনো জাতি এভাবে মাতৃভাষার জন্য অকাতরে প্রাণ বিলিয়ে দেয়নি। তবে যদি বলা হয়, একুশে ফেব্রুয়ারির সাথে শুধু বাংলা ভাষার সম্পর্ক, তাহলে বড় ধরণের ভুল হয়ে যাবে। এই দিবসের সাথে জাড়িয়ে আছে বাঙালির ইতিহাস, ঐতিহ্য, সর্বোপরি বাঙালিয়ানা। কিন্তু দৈনিক সমকালে ‘একুশের সাজ’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদে যে ছবি এবং সাজের যে বিবরণ প্রকাশ করা হয়েছে, তাতে বলতেই হয় বাঙালিয়ানা আজ হুমকির মুখে।

সংবাদটিতে একুশে ফেব্রুয়ারি শোক প্রকাশের একটি বিশেষ দিন উল্লেখ করে এ দিনে কীভাবে মানুষ সাজবে তার পরামর্শ দিতে গিয়ে ওমেন্স ওয়ার্ল্ডের ডিরেক্টর ফারনাজ আলম বলেছেন,

এই দিনটি একটি বিশেষ দিন, শোক প্রকাশের দিন। ভাষা শহীদদের স্মরণ করতে মডেলকে সাজিয়েছি অভিনব আঙ্গিকে। মাথার হ্যাটটি ঢেকে দিয়েছে চোখকে। যেন বিনম্র শ্রদ্ধায় জাতি শির নত করেছে শহীদদের প্রতি ভালোবাসায়। সাদা-কালোর মাঝে ঠোঁটের একপাশে রঙের সমাহার, এ আমাদের ভাষার গর্ব, এ আমাদের স্বাধীনতা।

কিন্তু আপাত দৃষ্টিতে ছবিটি দেখলে কোথাও শোক খুঁজে পাবেন কি না পাঠক, সে বিষয়ে যথেষ্ট সন্দেহ আছে। শোকের চেয়ে ফ্যাশানকে এখানে এমন ভাবে তুলে ধরা হয়েছে, যেন পাশ্চাত্য কোনো দেশের আনন্দোৎসবের সাজে মেতেছেন মডেল। বাঙালিয়ানার ছিটেফোঁটা খুঁজে পাওয়া এখানে প্রায় অসম্ভব।


অথচ যে ত্যাগ-তিতীক্ষার মধ্যে, যে আত্মত্যাগের মিছিলে ভেসে বাঙালি পেয়েছে তার ভাষার অধিকার, তার সাজ-পোশাক, ভাষা হওয়া উচিত শোকে মূহ্যমান। একুশ বাঙালি জাতির শোকের একটি দিন, গর্বের একটি দিন, বাঙালিকে বাঙালি হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয়ার একটি দিন। কিন্তু এ দিনে পোশাক যদি হয় পাশ্চাত্য ধারার, তবে কোথায় যাবে বাঙালি ঐতিহ্য!

দৈনিক সমকালের প্রতিবেদন অনুসারে এই যদি হয় একুশে ফেব্রুয়ারিতে শোক প্রকাশের নতুন সাজ, তবে বলতেই বাঙালিয়ানা, বাংলার ঐতিহ্য অতিদ্রুত বিতাড়িত হতে যাচ্ছে দেশ থেকে।

উৎসঃ   প্রিয়ডটকম


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ