• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন |

ছাত্রকে ‘প্রেমের কামড়’ দেয়ায় শিক্ষিকা জেলে

loweronsonনিউজ ডেস্ক: ছাত্রের সঙ্গে অশ্লীল আচরণ করায় ৪২ বছর বয়সি এক স্কুল শিক্ষিকাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে সিংগাপুরের একটি আদালত। ১৩ বছর বয়সি ছাত্রটি দণ্ডপ্রাপ্ত শিক্ষিকার স্কুলেরই শিক্ষার্থী।

আলোচিত নারী ১১ বছর ধরে শিক্ষকতা করছেন। চার সন্তানের মাও তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে শিশু এবং অল্প বয়সিদের উপর যৌন নিপীড়নের দু-দুটি অভিযোগ প্রমাণ হয়েছে। সিংগাপুরের ‘চিলড্রেন অ্যান্ড ইয়াং পারসন্স অ্যাক্ট’-এর আওতায় শিক্ষিকার বিচার করা হয়েছে।

আদালত থেকে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, অভিযুক্ত নারী কিশোরের ঠোঁটে চুমু দিয়েছেন এবং তার কাঁধে ও ঘাড়ে ‘লাভ বাইট’ বা প্রেমের দংশন এঁকে দিয়েছেন। ২০১২ সালে এই কাজ করেন তিনি। তবে অভিযুক্ত হলেও শিক্ষিকার নাম পরিচয় প্রকাশ করেনি আদালত।

আদালত থেকে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, অভিযুক্ত নারী এক কিশোরকে চুমু এবং ‘লাভ বাইট’ দিয়েছেন।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, ১৩ বছর বয়সি ঐ ছাত্রটি শিক্ষিকার ছেলের সঙ্গে একসঙ্গে ফুটবল খেলতো। জানা যায়, প্রথমে ছেলেটির সঙ্গে ফেসবুক চ্যাটের মাধ্যমে সখ্যতা গড়ে তোলেন জনৈকা শিক্ষিকা। এরপর পাবলিক পার্কে গিয়ে তার সঙ্গে অশোভন আচরণ করেন তিনি। আদরের অছিলায় কিশোরের শরীরে তিনি যৌন কামনার চিহ্ন রাখেন। চুম্বনের সঙ্গে দাঁতের কামড় বসান ঘাড়ে।

ছেলে বাড়ি ফিরে এলে, ঘাড়ে ‘লাভ বাইট’ দেখে তার মা পুলিশের শরণাপন্ন হন। বিচারক নং পেং হং তাঁর রায়ে লিখেছেন, ‘‘১৩ বছর বয়সি এক ছেলের উপর এমন একজন মানুষ যৌন নিপীড়ন চালিয়েছেন, যিনি শিক্ষিকা। আমার মতে, পাবলিক পার্কে বসে ছাত্রের গায়ে ‘লাভ বাইটস’ এবং তার ঠোঁটে চুমু দেয়ার সময় জিব ব্যবহারের মাধ্যমে শিক্ষিকা অশ্লীল, যৌন এবং অগ্রহণযোগ্য আচরণ করেছেন।

আদালতে শিক্ষিকার পক্ষের আইনজীবী জানান, শিক্ষিকা মানসিক বিষন্নতায় ভুগছিলেন। বিচারক অবশ্য এই যুক্তি তেমন একটা আমলে নেননি। সূত্র: ডিডব্লিউ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ