• বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:২৮ অপরাহ্ন |

টেক্সটাইল মিলে ভূত!

vutঢাকা: এ যেনো অবিশ্বাস্য। পরিত্যক্ত বাড়িতে ভূত থাকার কথা শুনলেও চলমান টেক্সটাইল কারখানায় ভূত! আর সেই আতঙ্কে হুড়োহুড়ি করে নামতে গিয়ে আহত হয়েছেন অন্তত ৩০ শ্রমিক।
রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শ্রীপুর পৌরসভার বেতজুরী (নতুন বাজার) এলাকার ডিগনিটি টেক্সটাইল লিমিটেড কারখানায়
এ ভূতাতঙ্কের ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন- শিলা, স্বপ্না, সাজেদা, রুবি, শশি, মিতু, জোসনা, তানজিনা, তানিয়া, আছমা, নাজমা, জরিনা, সোহাদি, সেলিনা, আফরোজা, ইয়াসমিন, মোজাম্মেলসহ ৩০ শ্রমিক।
চিকিৎসাধীন আহত মামুন জানান, বাথরুমে যাওয়ার পর কে বা কারা তার গলা ও বুক চেপে ধরে। এতে ভয়ে সে চিৎকার শুরু করলে কর্মরত নারী শ্রমিকেরা জ্ঞান হারিয়ে ফেলে।
গাজীপুর শিল্পাঞ্চল পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) শরিফুল আলম জানান, ওই কারখানার আয়রনম্যান মামুন বেলা ১১টায় বাথরুমে যায়। এর কিছুক্ষণ পর মামুন বাথরুমের ভেতর চিৎকার শুরু করলে কর্মরত শ্রমিকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় হুড়োহুড়ি করে নামার সময় ৩০ শ্রমিক আহত হন।
আহতদের কয়েকজন শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। বাকিদের কারখানার পাশের বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক আফরোজা শারমিন জানান, ভয়ে এমনটা হয়েছে। এটা এক ধরনের ভীতি। যাকে MASS HYSTRiA/ MASS PANiC ATTACK বলে। এ ঘটনায় একজন ভয় পেলে তার আশপাশের সবাই ভয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে।
শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আজিজ হায়দার ভূঁইয়া এবং শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অমির হোসেন আহতদের দেখতে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান এবং তাদের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ