• বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ১০:১০ পূর্বাহ্ন |

ফিল্মি কায়দায় তিন আসামিকে ছিনতাই: পুলিশ সদস্য নিহত

Gazipur-JMBময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের ত্রিশালে জেএমবির মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামিকে ছিনিয়ে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তাদের সঙ্গে সংঘর্ষে এক পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন আছেন আহত কনস্টেবল সোহেল। তাঁর পিঠের ডান দিকে ক্ষত হয়েছে, স্প্লিন্টারের দাগ রয়েছে।

সোহেল জানায়, দুর্বৃত্তরা সংখ্যায় ছিল অন্তত ২৫-৩০ জন। প্রথমে একটি দল মাইক্রোবাস থেকে নেমে প্রিজনভ্যানটি লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এ সময় তারা অন্তত পাঁচ থেকে সাতটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটনায়। গুলিতে চালক, তিনি নিজেসহ চারজন আহত হন।

এরপর একটি প্রাইভেট কার থেকে আরেক দল দুর্বৃত্ত নেমে এসে প্রিজনভ্যানে এসআই হাবিবের কাছে থাকা চাবি ছিনিয়ে নেয়। পরে তারা সেই চাবি দিয়ে প্রিজনভ্যানের তালা খুলে আসামিদের ছিনিয়ে নিয়ে চলে যায়।
গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক আবদুর রাজ্জাক জানান, কাশিমপুর কারাগারের হাই সিকিউরিটি থেকে রাকিব হাসান, কারাগারের পার্ট-১ থেকে সালাউদ্দিন ওরফে সালেহীন ও কারাগারের পার্ট-২ থেকে বোমা মিজানকে ডান্ডাবেড়ি পরানো অবস্থায় সকাল আটটার দিকে ময়মনসিংহের আদালতে হাজির করার জন্য প্রিজনভ্যানে তোলা হয়। তারা তিনজনই জেএমবির জঙ্গি তৎপরতা মামলায় আসামি। তাদের মধ্যে সালাউদ্দিন ও রাকিব মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি এবং মিজান যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি।

ত্রিশাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ তালুকদার বলেন, দণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামি রাকিব, সালাউদ্দিন ও মিজানকে বহনকারী প্রিজনভ্যানটি ময়মনসিংহের দিকে যাচ্ছিল। পথে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ত্রিশালের সাইনবোর্ড এলাকায় প্রিজনভ্যানটি লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে আসামিদের সহযোগীরা। তারা তিন আসামিকে ছিনিয়ে নেয়। এ সময় এসআই হাবিব, কনস্টেবল আতিক ও সোহেল এবং প্রিজনভ্যানের চালক সবুজ গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাঁদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে পুলিশ কনস্টেবল আতিক মারা যান। নিহত আতিক (৩৫) গাজীপুর পুলিশ লাইনের কনস্টেবল ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ