• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৮ অপরাহ্ন |

আ.লীগ-৩০ বিএনপি-৩৫ জামায়াত-৮ অন্যান্য-৯

EC

ঢাকা: চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে ৫২ জেলার ১১৪টি উপজেলার মধ্যে ৮২টির বেসরকারি ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ৩০টি, বিএনপি সমর্থিত ৩৫টি, পার্বত্য জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) সমর্থিত ৩টি, জামায়াত ৮টি, জাতীয় পার্টি একটি এবং দল নিরপেক্ষ প্রার্থী ৫টিতে বিজয়ী হয়েছেন।

ঢাকা বিভাগ
নেত্রকোনা: পূর্বধলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সাইদুর রহমান। বারহাট্টায় বিএনপি সমর্থিত মানিক আজাদ বেসরাকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন, নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের মাঈনুল হক। খালিয়াজুরীতে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শামসুজ্জামান তালুকদার।

জামালপুর: বকশিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আব্দুর রউফ, দ্বিতীয় অবস্থানে ছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত আবু জাফর।

শেরপুর: ঝিনাইগাতিতে জয় পেয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আমিনুল ইসলাম বাদশা, তার নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত এএসএম ওয়ারেস।

ময়মনসিংহ: ভালুকায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী গোলাম মোস্তফা, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপির মোর্শেদ আলম।

টাঙ্গাইল: সখিপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত শওকত সিকদার জয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী খোরসেদ আলম।

মুন্সীগঞ্জ: সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের সমর্থিত প্রার্থী আনুসুজামান জয়ী হয়েছেন।

মানিকগঞ্জ: হরিরামপুরে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত সাইফুল হুদা, তার নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লেীগের সাইদুর রহমান।

ফরিদপুর: সালথা উপজেলায় জয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মো. ওয়াহিদুজ্জামান, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের দেলোয়ার হোসেন। বোয়ালমারীতে জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী এমএম মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়া, নিকটতম ছিলেন বিএনপি সমর্থিত সিদ্দিকুর রহমান। নগরকান্দায় বিএনপি সমর্থিত সৈয়দ শাহীনুজ্জামান নির্বাচিত হয়েছেন, দ্বিতীয় অবস্থানে ছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত মনিরুজ্জামান সরদার।

মাদারীপুর: রাজৈরে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী শাহজাহান খান বিজয়ী হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপি সমর্থিত মিল্টন বৈদ্য। শিবচরে জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের রেজাউল তালুকদার, তার নিকটতম ছিলেন বিএনপির খান্দু চৌধুরী।

নরসিংদী: শিবপুরে জয় পেয়েছেন বিএনপির সংস্কারপন্থি নেতা (দল নিরপেক্ষ) আরিফুল ইসলাম মৃধা, তার নিকটতম ছিলেন বিএনপির তোফাজ্জল হোসেন।

চট্টগ্রাম বিভাগ
রাঙামাটি: ননিয়ারচরে জেএসএস (এমএন লারমা) এর অ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা বিজয়ী হয়েছেন, তিনি ইউপিডিএফ সমর্থিত সুপন চাকমাকে হারিয়েছেন। কাপ্তাই উপজেলায় নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী দিলদার হোসেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন আওয়ামী লীগের আমিনুল হক। লামায় জয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী থোয়াইনু অং, নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের মো. ইসমাইল।

বান্দরবান: রোয়াংছড়িতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী চহাইমং মারমাকে হারিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন জেএসএস সমর্থিত ক্যাবামং মারমা। রোমায় চেয়ারম্যান হয়েছেন জেএসএস সমর্থিত অং থোয়াই চি, নিকটতম আওয়ামী লীগের বাসিং থোয়াই। থানছি উপজেলায় দল নিরপেক্ষ প্রর্থী ক্যহ্না চিং জয় পেয়েছেন, নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপির খাসলাই ব্রু।

খাগড়াছড়ি: লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় জয়ী হয়েছেন দল নিরপেক্ষ প্রার্থী সুপার জ্যোতি চাকমা, নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের সাথোয়াইং মারমা।

কক্সবাজার: পেকুয়ায় জয় পেয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী শাফায়েত আজিজ, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের জাহিদুর রহমান।

চট্টগ্রাম: পটিয়ায় জয় পেয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী অধ্যাপক মোজাফফর আহমদ চৌধুরী টিপু, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন মহাজোট সমর্থিত নাসির আহমেদ। লোহাগাড়ায় জামায়াত সমর্থিত অ্যাডভোকেট ফরিদ উদ্দিন খান জয় পেয়েছেন, তার নিকটতম ছিলেন এলডিপির জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুল।

ফেনী: পরশুরামে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী কামালউদ্দিন মজুমদার, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপির আবু তালেব।

নোয়াখালী: কবিরহাটে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী কামরুন্নাহার শিউলী নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মো. ইলিয়াছ। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের মিজানুর রহমান বাদল, তার নিকটতম ছিলেন বিএনপির হুমায়ুন কবীর। চাটখিলে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জাহাঙ্গীর কবির বিজয়ী হয়েছেন, নিকটতম প্রার্থী ছিলেন বিএনপির আনোয়ার হোসেন। সোনাইমুড়ি উপজেলায় জয় পেয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আনোয়ারুল হক, তার প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের আ ফ ম বাবুল।

চাঁদপুর: মতলব (উত্তর) উপজেলায় মঞ্জুর আহমেদ আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী দল নিরপেক্ষ প্রার্থী আমানউল্লাহ সরকার। মতলব (দক্ষিণ) উপজেলায় আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সিরাজুল মোস্তফা, তার নিকটতম ছিলেন বিএনপির শুক্কুর পাটোয়ারী।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: সরাইল উপজেলায় অ্যাডভোকেট আব্দুর রহমান বিএনপির সমর্থন নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম ছিলেন দল নিরপেক্ষ প্রার্থী ওসমান উদ্দিন খালেদ।

বরিশাল বিভাগ
পিরোজপুর: কাউখালীতে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী এসএম আহসান হাবিব, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আবু সাঈদ। গাংনীতে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত মুরাদ আলী, তার নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের মোকলেছুর রহমান মুকুল।

ভোলা: চরফ্যাশনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জয়নাল আবেদিন আখন বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মোতাহার হোসেন। বোরহানউদ্দিন উপজেলায় জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত মোহাব্বত জান চৌধুরী, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপির আনোয়ার হোসেন ভূঁইয়া।

বরিশাল: সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী সাইদুর রহমান, বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী এনায়েত হোসেন ছিলেন তার নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী।

খুলনা বিভাগ
মেহেরপুর: মুজিবনগরে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আমিরুল ইসলাম বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত জিয়াউদ্দিন বিশ্বাস।

যশোর: ঝিকরগাছায় বিএনপি সমর্থিত সাবিরা সুলতানা জয় পেয়েছেন, তার নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের মনিরুল ইসলাম। শার্শা উপজেলায় নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী সিরাজুল হক মঞ্জু, নিকটতম ছিলেন বিএনপির খায়রুজামান মধু। চৌগাছা উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। বাঘারপাড়ায় বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মশিউর রহমান চেয়ারম্যান হয়েছেন।

কুষ্টিয়া: মিরপুরে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত কামরুল আরেফিন, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপি সমর্থিত আব্দুল হক। খোকসায় সদরউদ্দিন আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে জয় পেয়েছেন, তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপির আমজাদ আলী। আওয়ামী লীগ সমর্থিত আব্দুল মান্নান কুমারখালীতে জয়ী হয়েছেন, নিকটতম প্রার্থী বিএনপির আনসার প্রামাণিক।

খুলনা: ডুমরিয়ায় বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী খান আলী মনসুর বিজয়ী হয়েছেন, নিকটতম আওয়ামী লীগের গাজী আব্দুল হাদি।

বাগেরহাট: ফকিরহাটে জয় পেয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী শেখ শরিফুল কামাল, তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত লিয়াকত হোসেন। সখিপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত শওকত সিকদার, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী খোরসেদ আলম। কচুয়া উপজেলায় উপজেলা চেয়ারম্যান হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী এসএম মাহফুজুর রহমান, তার নিকটতম ছিলেন বিএনপি সমর্থিত সর্দার জাহিদ।

সাতক্ষীরা: শ্যামনগরে জয় পেয়েছেন জামায়াতের আব্দুল বারী, নিকটতম আওয়ামী লীগের আনিসুজ্জামান।

ঝিনাইদহ: মহেশপুরে নির্বাচিত হয়েছেন জামায়াত সমর্থিত আব্দুল হাই, আওয়ামী লীগের ময়জদ্দীন হামিদ ছিলেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী।

মাগুরা: শালিখা উপজেলায় নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মো. মোজাফফর হোসেন, নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের শ্যামল কুমার দে। মোহাম্মদপুরে নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম খান বাচ্চু, নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী সৈয়দ আলী করিম।

রাজশাহী বিভাগ
জয়পুরহাট: সদর উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ফজলুর রহমান নির্বাচিত হয়েছেন, প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী আরিফুর রহমান। ক্ষেতলাল উপজেলায় চেয়ারম্যান হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী রওনকুল ইসলাম, নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের তাইফুল ইসলাম। কালাই উপজেলায় চেয়ারমান হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মিনফুজুর রহমান, নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ইব্রাহীম হোসেন।

বগুড়া: কাহলু উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী তায়েব আলী, নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ফরিদুর রহমান ফরিদ। শিবগঞ্জে জামায়াত সমর্থিত আলমগীর হোসাইন জয় পেয়েছেন, তার নিকটতম ছিলেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মতিয়ার রহমান মতিন।

নাটোর: বাগাতিপাড়ায় বিএনপির সমর্থিত প্রার্থী হাফিজুর রহমান নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শহীদুল ইসলাম বকুল। গুরুদাসপুর উপজেলায় বিএনপির আব্দুল আজিজ চেয়ারম্যান হয়েছেন, তার নিকটতম ছিলেন বিএনপির বিদ্রোহী আইনাল হক। লালপুরে জয়ী হয়েছেন বিএনপির হারুন অর রশিদ, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন আওয়ামী লীগের মাহমুদুল হক মুকুল।

রাজশাহী: বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যান হয়েছেন জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী জিন্নাত আলী, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের আজিজুল ইসলাম।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: গোমস্তাপুর উপজেলা বায়রুল ইসলাম বিএনপির সমর্থন নিয়ে জয় পেয়েছেন, তার প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত হুমায়ুন রেজা।

পাবনা: চাটমোহর উপজেলার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী হাসাদুল ইসলাম, তার নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মির্জা রেজাউল করিম। ভাংগুড়ায় নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী নুর মোজাহিদ, আওয়ামী লীগ সমর্থিত বাকি বিল্লাহ ছিলেন তার প্রতিদ্বন্দ্বী।

রংপুর বিভাগ
পঞ্চগড়: তেঁতুলীয় উপজেলায় জয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রর্থী রেজাউল করিম, নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী মোক্তারুল হক।

ঠাকুরগাঁও: বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী সফিকুল ইসলাম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপির আবু হায়াত নূরু নবী। রানীশংকৈলে জয় পেয়েছেন বিএনপি সমর্থিত আইনুল হক, নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত শাহরিয়ার আজীম।

দিনাজপুর: ঘোড়াঘাটে বিএনপি সমর্থিত শাহ মোহাম্মদ শামীম হোসেন চৌধুরী বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত খন্দকার শাহীন শাহ। বিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত পারভেজ কবীর, তার নিকটতম প্রার্থী ছিলেন জামায়াতের এনামুল হক। চিরিরবন্দরে চেয়ারম্যান হয়েছেন জামায়াতের আফতাব উদ্দিন মোল্লা, দ্বিতীয় অবস্থানে ছিলেন আওয়ামী লীগের তরিকুল ইসলাম তারিক। বীরগঞ্জে জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত আমিনুল ইসলাম, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াতের কেএম কুতুব উদ্দিন।

নীলফামারী: কিশোরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী রশিদুল ইসলাম  (ঘোড়া) ৩৫ হাজার ৭৭৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী রাজ্জাকুল ইসলাম রাজা (আনারশ) পেয়েছেন ২৬ হাজার ৮০৭ ভোট।

লালমনিরহাট: সদর উপজেলায় বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মোমিনুল হক জয় পেয়েছেন, তার নিকটতম ছিলেন জাতীয় পার্টির মাহবুবুল আলম। পাটগ্রাম উপজেলায় বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী রুহুল আমিন বাবুল, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াতের এরশাদ হোসেন।

কুড়িগ্রাম: রাজীবপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত শফিউল আলম, নিকটতম বিএনপির মোখলেসুর রহমান। হাতিবান্দায় বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত লিয়াকত হোসেন বাচ্চু, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াত সমর্থিত হাবিবুর রহমান। নাগেশ্বরী উপজেলায় জয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আবুল কাশেম সরকার।

গাইবান্ধা: পলাশবাড়ী উপজেলায় নির্বাচিত হয়েছেন জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী নজরুল ইসলাম, নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগ-সমর্থিত ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মোকছেদ চৌধুরী।

সিলেট বিভাগ
সিলেট: বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আবদাল মিয়া, আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মোস্তাকুর রহমান মফুর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন।

সুনামগঞ্জ: সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত জয়নুল জাকেরিন, নিকটতম ছিলেন আওয়ামী লীগের জুনেদ আহমেদ।

চতুর্থ উপজেলা নির্বাচনের দ্বিতীয় দফায় বৃহস্পতিবার ৫২টি জেলার ১১৪টি উপজেলা পরিষদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা চলে ভোটগ্রহণ। বিকেল ৪টার পরে শুরু হয় গণনা।

তবে কেন্দ্রে অপ্রীতিকর ঘটনার জের ধরে নোয়াখালী সদরে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন উপজেলার ১৫৫ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

প্রথম ধাপের ৯৭টি উপজেলার নির্বাচনে বিএনপি-সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ৪৪টি উপজেলায় জয়ী হন। অন্যদিকে, আওয়ামী লীগ-সমর্থিত প্রার্থীরা জিতেছেন ৩৪টি উপজেলায়। বিএনপির জোটসঙ্গী জামায়াতে ইসলামীর ১২ জন উপজেলা চেয়ারম্যান হন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ