• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩১ পূর্বাহ্ন |

আফগান সেনাবাহিনীর প্রায় অর্ধেক সদস্য নিরক্ষর

afghan-soldiersআন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগান সেনাবাহিনীর প্রায় অর্ধেক সদস্য নিরক্ষর। তবে এসব নিরক্ষর ব্যক্তির অনেকেই সন্তানদের স্কুলে পাঠানোর কথা ভাবছেন। দেখছেন ভবিষ্যৎ প্রজন্মের মাধ্যমে সাক্ষর হওয়ার স্বপ্ন।

যুক্তরাষ্ট্রর একটি সংস্থার জরিপে এ তথ্য পাওয়া গেছে বলে শনিবার বিবিসি অনলাইনে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়।

২০১৪ সালের শেষ নাগাদ আফগান সেনাসদস্যদের শিক্ষার অন্তত মৌলিক মান অর্জনের লক্ষ্যে ২০০৯ সালে ২০০ মিলিয়ন ডলারের কর্মসূচি ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু মার্কিন স্পেশাল ইন্সপেক্টর জেনারেল অব আফগানিস্তান রিকনস্ট্রাকশন এক প্রতিবেদনে বলছে, ওই লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব হবে বলে মনে করছে না মার্কিন কর্মকর্তারা।

আফগান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, দেশটির মাত্র এক-তৃতীয়াংশ মানুষ লিখতে ও পড়তে পারে।
তিন দশকের গৃহযুদ্ধ শেষে দেশটির অনেক মানুষ কখনোই স্কুলে যাওয়ার সুযোগ পায়নি। আবার অনেকে কেবল মৌলিক শিক্ষাটুকু পেয়েছে।

গজনি প্রদেশের ৩৪ বছর বয়সী আলী আকবর ২০০৮ সালে সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছেন। তিন বছর পর তিনি সেনাবাহিনীর সাক্ষরকার্যক্রমে অংশ নেন। ৬৪ ঘণ্টার শিক্ষণ কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার পরও তিনি নিজের নামের প্রথম তিনটি বর্ণই লিখতে পারেন না। লিখতে ও পড়তে না পারার জন্য ভীষণ মনোবেদনায় ভোগেন তিনি। আক্ষেপ করে তিনি বলেন, ‘নিরক্ষরতা অন্ধত্বের মতো।’ আকবরের দাবি, কোর্সটির মেয়াদ খুব কম। এ বয়সে শেখার জন্য সময় বেশি লাগে।

আফগান সেনাবাহিনীতে আকবরের মতো আরও অনেক সদস্য রয়েছেন, যাঁরা লিখতে ও পড়তে পারেন না। এই প্রেক্ষাপটে দেশটিতে একটি আধুনিক ও দক্ষ সেনাবাহিনী গড়ে তোলা দুরূহ হয়ে উঠেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ