• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০২ পূর্বাহ্ন |

নতুন ইতিহাসের জন্ম দিলেন প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতা

1111ঢাকা: স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে এক নজিরবিহীন ঘটনা ঘটলো বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। এ-ই প্রথম একমঞ্চে পাশাপাশি দাঁড়ালেন প্রধানমন্ত্রী ও সংসদে প্রধান বিরোধী দলীয় নেতা। রোববার এ নতুন ইতিহাসের জন্ম দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ।
নব্বইয়ে স্বৈরাচার পতনের পর গণতন্ত্রের পথে বাংলাদেশের যাত্রা শুরু হয়েছে বলা হলেও প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দলীয় নেতার মধ্যে সম্পর্কটা দা-কুমড়ার। নবম জাতীয় সংসদ পর্যন্ত সবসময়ই শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়া পর্যায়ক্রমে প্রধানমন্ত্রী-বিরোধী দলীয় নেতা হয়েছেন। কিন্তু ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় তারা কখনো মুখ দেখাদেখি করেননি।
নব্বইয়ের আন্দোলনের পর জাতীর চরম সঙ্কট মুহূর্তেও প্রধান দুই দলের এই দুই নেত্রী এক টেবিলে বসেননি। এমনকি সমস্যা নিয়ে দূরালাপনেও সুস্থ সংলাপ করেননি।
গত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় সশস্ত্র দিবসে সেনাকুঞ্জে দুই নেত্রী কুশল বিনিময় করেছিলেন। তবে সেটা নিছকই লোক দেখানো কি না তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। এরপর তারা সেনাকুঞ্জে গেছেন কিন্তু মুখ দর্শন করেননি।
রোববার বিভিন্ন স্কুল থেকে আসা হাজার হাজার খুদে দর্শকদের জয়ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে ওঠে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম। পুরস্কার বিতরণীতে একইমঞ্চে প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতার উপস্থিতি অনুষ্ঠানকে আরো প্রাণবন্ত করে তোলে। সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে রওশন এরশাদকে অনেকে ততোটা গুরুত্বে সঙ্গে না নিলেও প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দলীয় নেতার একই মঞ্চে উপস্থিত হয়ে হাস্যজ্জ্বল মুখে শিশু-কিশোরদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়ার দৃশ্য যে নজিরবিহীন তার একটা মূল্য নিশ্চয়ই আছে।
এদিন বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে শেষ হয় বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ ও বঙ্গমাতা গোল্ড কাপ। বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ জিতেছে নীলফামারীর বেড়াডাঙ্গা সোটাপীর যাদুরহাট প্রাথমিক বিদ্যালয়। একই দিনে বঙ্গমাতা গোল্ড কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ময়মনসিংহের ধোবাউরার কলসিন্দুর স্কুল।
স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে পুরস্কার নেয়ার সৌভাগ্য কয়জনের হয়! আর এ বিরল সৌভাগ্যের অধিকারী হওয়ায় দারুণ উচ্ছ্বসিত বেড়াডাঙ্গা সোটাপীর যাদুরহাট প্রাথমিক বিদ্যালয় দলের অধিনায়ক নাজমুল। সে বলে, ‘এটা আমি কখনো কল্পনাও করিনি।’
পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এদের মধ্যে থেকেই একদিন ভবিষ্যতের খেলোয়াড় উঠে আসবে। পড়াশুনার পাশাপাশি খেলাধূলা শিশুর মানসিক ও শারীরিক বিকাশে সাহায্য করে।’
তবে অনুষ্ঠানে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ কোনো বক্তব্য দেননি।
বাংলামেইল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ