• বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৩১ পূর্বাহ্ন |

রং-তুলিতে বিজয় সরকারের গান

11112সাহিত্য ডেস্ক: শুধু গায়কী কণ্ঠে নয়, রঙ তুলিতেও জীবন্ত বিজয় সরকারের গান। চিত্রকলা যে মনের কথা, ভাষার কথা, ভাবের কথা বলে তা বিজয় সরকারের গানে ফুটিয়ে তুলেছেন চিত্রশিল্পী বলদেব অধিকারী। বিজয় সরকারের গানে গানে এঁকেছেন অন্তত ৫০টি ছবি।
এর মধ্যে রয়েছে-‘নবী নামের নৌকা’, ‘মন বিল্লালের আজান’, ‘জাতি বলতে কী বুঝলে’, ‘শিকলি কেটে গেলি চলে’, ‘পোড়া মন’, ‘পথ চাওয়া’, ‘তুমি আসবে না’, ‘মালা গাঁথি’, ‘পোষা পাখির সন্ধানে’, ‘একতা’, ‘গায়ক-বাদক’, ‘পোষা পাখি’, ‘শূণ্য খাঁচা’, ‘রুপাই’, ‘বউ সরষে কোট’, ‘যমুনায়’, ‘চোখ গেল’, ‘বিরহ’, ‘প্রাণেশ্বরী যথা’, ‘মনের বনের হরিণ’, ‘আকাশ আঙিনায়’, ‘ত্রিবেনীর ত্রিমোহনায়’, ‘দেখব তাকে’, ‘ব্যাথা বলা দায়’, ‘অতৃপ্ত আশা’, ‘সুন্দরবনে’, ‘দিন শেষে দীনের বেশে’, ‘পদ্মবনে’, ‘পতন’, ‘হৃদয় বীণা’, ‘আশালতা’ ও ‘মুক্তি’ শীর্ষক ছবি।
বলদেব অধিকারী বলেন, বিজয় সরকারের ‘পোষা পাখি উড়ে যাবে সজনী / ওরে একদিন ভাবি নাই মনে/ সে আমারে ভুলবে কেমনে…।’ গানটির ভাব অনুযায়ী ‘পোষা পাখি’ শিরোনামের ছবিটি এঁকেছি। পোষা পাখির গানে আলোড়িত হয়ে কবিতা লিখেছেন কবি কেএম আনোয়ারুল ইসলাম। সেই কবিতার আলোকে ‘পোষা পাখির সন্ধানে’ শীর্ষক ছবিটি আঁকা হয়েছে। ওরে আমার সোনার ময়না পাখি রে / তুই কোন ফাঁকে পালিয়ে গেলি, আমায় দিয়ে ফাঁকি রে…। এই গানের মর্মকথায় এঁকেছি ‘শূণ্য খাঁচা’ শিরোনামের ছবিটি।
বলদেব অধিকারী আরো বলেন, নক্সী কাঁথার মাঠেরে / সাজুর ব্যাথায় আজো রে বাজে রূপাই মিয়ার বাঁশের বাঁশি…। গানের কথায় ‘রূপাই’ শিরোনামের ছবিটি আঁকা হয়েছে। ‘আমি সুন্দরবনে দেখে এলাম গো সুন্দরী এক মেয়ে / আছে এলো চুলে সাগর কুলে অপলক নয়নে চেয়ে’ এই গান অনুযায়ী ‘সুন্দরবনে’ শীর্ষক ছবিটি আঁকা হয়েছে।
বিজয় সরকারের গান অবলম্বনে আরও ছবি আঁকার ইচ্ছে আছে বলে জানান তিনি।
এ ব্যাপারে বাংলা একাডেমির সহ পরিচালক শিকাগোর বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণারত ফোকলোর গবেষক সাইমন জাকারিয়া বলেন, চিত্রকর্মে বিজয়ের গানের সুরবানীর দৃশ্যরূপ দেখে আমি অভিভূত হয়েছি। নতুন অভিজ্ঞতাও অর্জন করেছি। বলদেব অধিকারীর রঙ তুলিতে বিজয় সরকারের গানগুলো সত্যি প্রাণবন্ত।
এসএম সুলতান বেঙ্গল আর্ট কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর অশোক কুমার শীল বলেন, কবিগানের প্রবাদ পুরুষ বিজয় সরকারের জনপ্রিয় গানগুলো বলদেব অধিকারীর তুলির আঁচড়ে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। বউ সরষে কোট, চোখ গেল, রূপাই, পোষা পাখিসহ বহু গানের নান্দনিক চিত্রকল্প মনকে নাড়া দেয়। এই প্রয়াস আগামী প্রজন্মকে আরো বেশি জীবন্ত ও প্রাণবন্ত করে তুলবে।
বলদেব অধিকারী জানান, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতার ফাঁকে ফাঁকে এসব ছবি এঁকেছেন তিনি। নড়াইল শহর থেকে ১০ কিলোমিটার দূরের পল্লী মাইজপাড়ার বাড়িতে এসব ছবি সযতেœ রেখে দিয়েছেন। শিক্ষকতা পেশা থেকে অবসরে যান বছর তিনেক আগে। রাইজিংবিডি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ