• বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২৪ অপরাহ্ন |

মঙ্গলবার তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে : স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

Asaduzamanময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের ত্রিশালে ৩ জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনায় মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটি গতকাল রবিবার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। ওই প্রতিবেদনের সুপারিশের আলোকে যা যা করার তা করা হবে। আজ সোমবার বিকালে নিজেদের মধ্যে মিটিং শেষ করে প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলোচনা করে আগামীকাল মঙ্গলবার তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে। আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে করণীয নিয়ে আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আজ সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সাথে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।
এদিকে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ময়মনসিংহের ত্রিশালে পুলিশকে হত্যা করে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জেএমবির দণ্ডপ্রাপ্ত ৩ সদস্যকে ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির সুপারিশে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পুলিশ বা কারা কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব অবহেলার কথা বলা যাবে না। তারা যতোটুকু করার তাই করেছিল। পুলিশ ও জেল কর্তৃপক্ষ তাদের দায়িত্ব যথাযথ পালন করেছে। পলাতক ২ জঙ্গিকে খুব শিগগিরই গ্রেফতার করা হবে। তারা যাতে দেশত্যাগ করতে না পারে সে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
অন্যদিকে গতকাল রবিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব সিকিউকে মুসতাক আহমেদ বলেন, জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনায় পুলিশ ও কারারক্ষীদের গাফিলতির প্রমাণ পাওয়া গেছে। এর আগে তদন্ত কমিটির প্রধান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব নাজিম উদ্দিন চৌধুরী মন্ত্রণালয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। প্রতিবেদনের সুপারিশে বলা হয়, প্রয়োজনে দুর্ধর্ষ জঙ্গিদের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কারাগারের সামনে তাদের বিচারে বিশেষ আদালত বসানো যেতে পারে। কোনো জঙ্গিকে আনা-নেয়ার আগে সংশ্লিষ্ট জেলা পুলিশ সুপারকে আগে থেকে অবগত করা এবং সুঠাম দেহ ও কর্মঠ পুলিশ সদস্যদের প্রিজনভ্যানের নিরাপত্তা দেয়ার সুপারিশ করা হয়। তাছাড়া প্রিজনভ্যানে নিরাপত্তায় যেসব পুলিশ সদস্যকে দায়িত্ব দেয়া হবে তা বন্টন করবেন একজন এএসপি। প্রিজনভ্যানের নিরাপত্তায় কোর্ট পরিদর্শককে আরো সতর্ক হয়ে দায়িত্ব পালন করতে হবে।
উল্লেখ্য, গত ২৩ ফেব্রুয়ারি সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশালের সাইনবোর্ড এলাকা থেকে প্রিজনভ্যানে হামলা চালিয়ে জেএমপির দণ্ডপ্রাপ্ত ৩ সদস্য দুর্বৃত্তরা ছিনিয়ে নেয়। এ হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আতিক নামে এক পুলিশ কনস্টেবল নিহত হন। ছিনিয়ে নেয়া ৩ জঙ্গি হলো সালাউদ্দিন সালেহীন ওরফে সানি (৩৮), মিজান ওরফে জাহিদুল ইসলাম ওরফে বোমারু মিজান (৩৫) এবং রাকিবুর হাসান ওরফে হাফিজ মাহামুদ (৩৫)। পালিয়ে যাবার ৬ ঘন্টা পর রাকিবুল হাসান ওরফে হাফিজ মাহামুদকে আটক করা হয়। পরে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধার অভিযানকালে পুলিশের সাথে রাকিবের সহকর্মীদের এক বন্দুকযুদ্ধে সে নিহত হয়।
তাছাড়া জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনার দিনই অতিরিক্ত সচিব নাজিম উদ্দিন চৌধুরীকে প্রধান করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। কমিটির সদস্যরা হলেন পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি এসএম মাহাফুজুল হক নুরুজ্জামান, কারা অধিদফতরের ডিআইজি প্রিজন টিপু সুলতান ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব সালমা বেগম।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ