• সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন |

স্বামী-স্ত্রীর একসঙ্গে ঘুমানো ক্ষতিকর!

Lifeলাইফস্টাইল ডেস্ক: রাতে যদি আপনার ঘুম বিঘ্নিত হয় তাহলে তা সবক্ষেত্রেই প্রভাব ফেলে। তাই সঙ্গত কারণে স্বামী-স্ত্রীর আলাদা ঘরে ঘুমানোই সবচেয়ে ভালো বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে টেলিগ্রাফ।

পৃথক রুমে থাকা প্রসঙ্গে টম স্কাইস টেলিগ্রাফে লিখেছেন, ‘আমি রাতে অ্যালান ফারস্টের উপন্যাস পড়তে পারি কিংবা স্ত্রীকে বিরক্ত না করেই রাত ১০টায় যা ইচ্ছা হয় তাই করতে পারি। ভোর ৪টায় বেডরুমের লাইট জ্বালিয়ে টয়লেটে যেতে কোনো সমস্যা হয় না, প্রিয়তমাকে বিরক্ত না করেই আমি নাক ডাকতে পারি, আমি গ্যাস ত্যাগ করতে পারি, আমি ঘোঁত ঘোঁত শব্দ করতে পারি, আমি লালা ত্যাগ করতে পারি আর সবচেয়ে বড় কথা আমি আরাম করে ঘুমাতে পারি।’

এ ছাড়া অন্য একটি বিষয় হলো যৌনতা। তবে সূত্র জানিয়েছে, দম্পতিরা পৃথক কক্ষে ঘুমালেও যৌনতা উপভোগে তেমন প্রভাব পড়ে না। দৈনন্দিন ভালোবাসাতেও এটি প্রভাব ফেলে না। বরং বিপরীত অর্থেই এটি প্রযোজ্য। কারণ সব সময় দুজনের কাছে থাকার চেয়ে বিশেষ মুহূর্তে কাছে থাকা অনেকটা ডেটিংয়ের মতোই আকর্ষণীয় অনুভূতি তৈরি করতে পারে। ২০১৩ সালের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ব্রিটিশদের মধ্যে ৯ ভাগ বিবাহিত দম্পতি আলাদা ঘরে ঘুমায়।

অন্যদিকে জাপানিদের মধ্যে এ হার অনেক বেশি। সেখানে প্রায় ২৮ ভাগ স্বামী-স্ত্রী আলাদা ঘরে ঘুমায়। তবে এটা দম্পতিদের করা প্রশ্নের ভিত্তিতে নেওয়া। প্রকৃত সংখ্যা আরো বেশি হতে পারে।

মানুষের অন্যতম দৈনন্দিন সমস্যা ক্লান্তিভাব। আর ঘুম যদি ঠিকমতো হয়, তাহলে এ সমস্যা অনেক কম হয়। দম্পতিদের পৃথক কক্ষে ঘুমানো হতে পারে এর অন্যতম সমাধান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ