• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৩১ পূর্বাহ্ন |

জনগণের টাকা লুটপাট হচ্ছে- আনু মুহাম্মদ

anuঢাকা: তেল-গ্যাস-খনিজসম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেছেন, ‘সরকার হিসাব-নিকাশ করেই বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে। সরকারের উপদেষ্টারা খুব চালাক। হিন্দি গান দিয়ে বাংলাদেশে টোয়েন্টি২০ শুরু হলো আর বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের বুকে দেখা গেল ভারতীয় কোম্পানি সাহারা। আর এমন মোক্ষম সময়ে সরকার বিদ্যুতের দাম বাড়াল।’
শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে পুরানা পল্টনের মুক্তি ভবনে তেল-গ্যাস-খনিজসম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি আয়োজিত ‘রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র : সংশোধিত পিএসসি ২০১২ এবং বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি ও আমাদের করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।
অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘গণশুনানি নাটক ছিল। তা না হলে কীভাবে শুনানির আগেই প্রধানমন্ত্রী বলেন- দাম তো বাড়বেই, উৎপাদন খরচ বেড়েছে।’
তিনি বলেন, ‘সরকার তিন কারণে বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে। প্রথমত তারা আইএমএফের নির্দেশে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দ্বিতীয়ত বিদ্যুৎ খাতকে সরকার বাণিজ্যিকীকরণ করতে চাচ্ছে। তৃতীয়ত সরকার কুইক রেন্টাল পদ্ধতিতে বিদ্যুতের উৎপাদন চালিয়ে যেতে চায়, যাতে আরও লুটপাট করতে পারে।’
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অধ্যাপক বলেন, ‘সরকারের জ্বালানি মন্ত্রণালয় তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিণত হয়েছে। সরকারের জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের গ্যাসের যে বর্ধিত মূল্যের টাকা পড়ে আছে, সেটা কোনো কাজে আসছে না। অন্যদিকে বিদ্যুতের বর্ধিত মূল্যের টাকা কুইক রেন্টালে ভর্তুকি দেওয়া হচ্ছে। সরকার জনগণের টাকা নিচ্ছে কিন্তু তা লুটপাট হয়ে যাচ্ছে।’
তিনি বলেন, ‘বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি প্রত্যাহার না করলে বিদ্যুৎ বিল দেব না এবং অযৌক্তিক আইন অমান্য করার কর্মসূচির দিকে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করা ছাড়া আমাদের আর কোনো উপায় থাকবে না।’
মতবিনিময় সভা থেকে অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ ২৪ মার্চ ৭ দফা দাবিতে সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ, ২৬ মার্চ জাতীয় স্মৃতিসৌধসহ সারাদেশের স্মৃতিসৌধে জাতীয় সম্পদের মালিকানা রক্ষার গণশপথ ও ২৭ থেকে ৩০ মার্চ দেশব্যাপী সফরের কর্মসূচি ঘোষণা করেন।
মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- প্রকৌশলী বিডি রহমতুল্লাহ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মোশাহিদা সুলতানা, ড. পিনাকী ভট্টাচার্য, ড. তানজীম উদদীন খান, কল্লোল মোস্তফা প্রমুখ।
মতবিনিময় সভায় সিপিবি-বাসদ, গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার শীর্ষস্থানীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন ৪ থেকে ৬ মার্চ গণশুনানি শেষে বৃহস্পতিবার বিদ্যুতের দাম ৬.৯৬ শতাংশ বাড়ানোর ঘোষণা দেয়। এর প্রতিবাদেই বিএনপিসহ বাম দলগুলো বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ