• বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন |

সৈয়দপুরে রোস্তম এন্ড সন্সের ১২৮ ভরি স্বর্ণালঙ্কার চুরি

 Stoleসিসি নিউজ: সৈয়দপুর শহরের ব্যস্ততম শহীদ তুলশীরাম সড়কের মেসার্স রোস্তম এন্ড সন্সের সিন্দুক ভেঙে নগদ প্রায় ২০ লাখ টাকা ও ১২৮ ভরি স্বর্ণালংকার চুরি হয়েছে।  সোমবার  রাতে সৈয়দপুর সদর পুলিশ ফাঁড়ি এলাকার কাছে এমন দুঃসাহসিক চুরির ঘটনাটি ঘটে।

প্রতিষ্ঠানের মালিক আলহাজ্ব মোঃ সেকেন্দার আলী শাহ জানান, প্রতিদিনের মতো সোমবার রাতে তার কর্মচারীর মাধ্যমে দোকান বন্ধ করে তারা বাসায় চলে যান। ওই দিনের দোকানের বেচাবিক্রির প্রায় ২০ লাখ টাকা দোকানের সিন্দুকে রাখা হয়। এছাড়াও নিরাপত্তার কারণে তাদের পরিবারের মহিলা সদস্যদের ব্যবহৃত প্রায় ১২৮ ভরি স্বর্ণালংকার অনেক আগে থেকেই দোকানের মধ্যে সিন্দুকের রাখা ছিল।
মঙ্গলবার সকালে দোকান কর্মচারী মোঃ অহিদুল (৩৫) মালিকের বাসা থেকে দোকানের চাবি নিয়ে এসে দোকানের সাটার খুলে ভেতরে প্রবেশ করেন। দোকানে ঢুকেই তিনি দেখেন দোকানের সিন্দুকটি ভাঙা এবং এর ভেতরে রাখা স্বর্ণাংলকার রাখার বক্সগুলো মেঝেতে  ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। অথচ দোকানের সাটারের তালাগুলো পুরোপুরি আগের মতোই লাগানো ছিল। এ ঘটনায় ওই দোকান কর্মচারী বিষয়টি তৎক্ষণাৎ দোকান মালিক আলহাজ মোঃ সেকেন্দার আলী শাহকে জানান। এসময় দোকান মালিক থানায় খবর দেন। সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ সহিদার রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে দোকানের সিন্দুক ভাঙার কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করেন। এসময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের এক মহিলা কর্মীসহ ১০জন কর্মচারীকে আটক করে খানায় নিয়ে যান।

সৈয়দপুর সার্কেলের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) এএনএম সাজেদুর রহমান জানান, ঘটনাটি সম্পূর্ণ রহস্যজনক। এ ঘটনার সঙ্গে দোকান কর্মচারীরাই জড়িত। তারা দূর্বত্তদের দোকানের ভেতরে ঢুকতে পুরোপুরি সহায়তা করেছে। তাদের যোগসাজশেই এ ঘটনা ঘটিয়েছে। দোকানের লুন্ঠিত টাকা ও স্বর্ণালংকার উদ্ধারে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের সনাক্ত করতে পুলিশি তৎপরতা চলছে।
এ ব্যাপারে মঙ্গলবার রাতে প্রতিষ্ঠানের পক্ষে আলহাজ্ব মোঃ সেকেন্দার আলী শাহ এর ভাই মো: নুরুল আমিন শাহ নিজে বাদী সৈয়দপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শহিদুল ইসলাম সিসি নিউজকে জানান, এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০জনকে আটক করা হয়েছে। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ৯জনকে ছেড়ে দেয়া হয়। তবে এজাহার মোতাবেক ওই প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী অহিদুলকে সন্ধিগ্ধ আটক করা হয়েছে। আটক অহিদুল ইসলাম দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার সোনাপুকুর গ্রামের মুন্সিপাড়ার মৃত. আলাউদ্দিনের পুত্র।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ