• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৫:১৫ অপরাহ্ন |

বীরগঞ্জে গণধর্ষনের শিকার তরুনী হাসপাতালে

Dorson-104বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: বীরগঞ্জে গনধর্ষনের শিকার তরুনী দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর অপেক্ষায় প্রহর গুনছে।
হাসপাতাল সূত্রে এবং উপজেলার গোলাপগঞ্জ আঞ্চলিক শাখা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সিদ্দিক হোসেন জানান, মোহনপুর ইউনিয়নের চিলকুড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের কন্যা ফাহিমা (১৬)কে (ছদ্মনাম) বিয়ের প্রভোলন দেখিয়ে একই গ্রামের মোঃ রুবেল (১৮) গত সোমবার দুপুরে একই ইউনিয়নের পাথরঘাটা বৈরাগীর বাজার নদীর তীরে নিয়ে গিয়ে নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে  ৬ বন্ধু মিলে ধর্ষণ করে। ধর্ষিতা মুমুর্ষ অবস্থায় নদীর তীরে ফেলে রেখে ধর্ষকেরা পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে বাড়ীতে পৌছে দেয়। পরিবারের লোকজন রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার সকালে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়।
এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আসিফ আনোয়ার জানান, ফাহিমা ভর্তির পর আমাদের কাছে ধর্ষণ হতে পারে বলে যথেষ্ট সন্দেহ হয়েছে। এ বিষয়ে এখানে কোন পরীক্ষার ব্যবস্থা না থাকায় এবং তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় মঙ্গলবার সকালে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভর্তি রেজিষ্ট্রারে সেক্সচুয়াল হ্যারেজ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।
ধর্ষিতা পিতা মোঃ আব্দুর রহমানের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমার মেয়ে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। তার জ্ঞান ফিরলেই বাকী সব অপরাধীর নাম জানা যাবে।
মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দিনেশ চন্দ্র মহন্ত এবং উপজেলা আওয়ামীলীগর সাধারন সম্পাদক দেবেশ চন্দ্র রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আরমান হোসেন পিপিএম জানান, এ ধরণের কোন বিষয়ে তিনি অবগত না। তবে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ