• বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন |

রানা প্লাজার ১১২টি লাশের পরিচয় মেলেনি এখনো

11সিসি ডেস্ক: বাংলাদেশের সাভারে রানা প্লাজা ধসে নিহত মোট ১,১৪৩ জনের মধ্যে ১১২ জনের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি৷ ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে তাঁদের পরিচয় নিশ্চিতের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছে ডিএনএ প্রোফাইলিং ল্যাব৷ কিন্তু কেন?
জাতীয় ফরেনসিক ডিএনএ প্রোফাইলিং ল্যাবরেটরির প্রধান অধ্যাপক ড. শরীফ আখতারুজ্জামান জানান, রানা প্লাজা ধসে নিহত অজ্ঞাত ৩২২টি মৃতদেহ ডিএনএ পরীক্ষার জন্য ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়৷ লাশের ডিএনএ প্রোফাইল তৈরির পর লাশ শনাক্ত করতে ৫৪১টি পরিবার থেকে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়৷ তাদের সঙ্গে মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ২০০টি লাশ শনাক্ত করা গেছে৷ কিন্তু ১০ জনের ডিএনএ একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে মিলে যাওয়ায়, তাঁদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না৷
তিনি জানান, ‘‘রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় নিহত ১,১৩৪ জনের মধ্যে ডিএনএ পরীক্ষা ছাড়াই ৮০০টির বেশি লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়৷ এ সব পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে অশনাক্ত লাশগুলোর ডিএনএ মিলে যেতে পারে৷ সরকার যদি আগ্রহী হয়, তবে তাদেরও ডিএনএ পরীক্ষা করাতে পারে৷”
এই পরিস্থতিতে ড. শরীফ পরবর্তী যে কোনো দুর্ঘটনার পর সঙ্গে সঙ্গে সেখানে অস্থায়ী মর্গ তৈরি করে নিহত ব্যক্তিদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করার পর লাশ হস্তান্তরের পরামর্শ দেন৷
এ নিয়ে ঢাকার জেলা প্রশাসক হারুন অর রশীদ ডয়চে ভেলেকে জানান, ‘‘যাঁদের লাশ ডিএনএ পরীক্ষা ছাড়া আত্মীয়স্বজনকে দেয়া হয়েছে, তাঁদের ডিএনএ পরীক্ষা এখন করা প্রায় অসম্ভব ব্যাপার৷ শুধু তাঁদের আত্মীস্বজনই নয়, নিহতদেরও ডিএনএ পরীক্ষা করতে হবে৷ কারণ যাঁদের লাশ দেয়া হয়েছে, লাশটি যে তাঁদের স্বজনদের নয় – তা দুই দিক থেকেই ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হতে হবে৷ যা একটি জটিল এবং সময়সাপেক্ষ ব্যাপার৷ এছাড়া যাঁরা লাশ নিয়ে গেছেন, তাঁদের পরিবারের সদস্যরা এখন ডিএনএ পরীক্ষা করাতে রাজী হবেন বলে মনে হয় না৷” ঢাকার জেলা প্রশাসক বলেন, ‘‘যে ৮০০টি লাশ ডিএনএ পরীক্ষা ছাড়া হস্তান্তর করা হয়েছে, তা যে সব ঠিক আছে তা নিশ্চিত করে বলা যায় না৷ কিছু ভুল হতেই পারে৷ তবে এ নিয়ে এখন আর কিছু করার নেই৷”
হারুন অর রশীদ জানান, ‘‘ডিএনএ পরীক্ষায় যাঁদের লাশ শনাক্ত হয়েছে, তাঁদের পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে৷ শুধু তাই নয়, জুড়াইনের কবরস্থানে গিয়ে কবর চিহ্নিত করেও দেয়া হয়েছে৷”
তাঁর কথায়, ‘‘ডিএনএ পরীক্ষায় তারা ৩০ লাখ টাকা দিয়েছেন ডিএনএ ল্যাবকে৷ এরপর অবশ্য নতুন করে ডিএনএ পরীক্ষার ব্যাপারে জেলা প্রশাসনের কোনো উদ্যোগ নেই৷ তবে সরকার সিদ্ধান্ত নিলে আলাদা কথা৷” সূত্র: ডয়চেভেলে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ