• শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০১ অপরাহ্ন |

৯১ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে

EC-2ঢাকা: আজ রবিবার চতুর্থ দফায় ৪৩টি জেলার ৯১ টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে। তফসিল অনুযায়ী ঢাকার ধামরাই উপজেলাসহ ৯৩টি উপজেলায় নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও শেরপুর সদর এবং সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় হাই কোর্টের নিষেধাজ্ঞায় নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।

সকাল ৮ থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ চলবে। এ জন্য  নির্বাচনী এলাকায় সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি। নির্বাচনী আইন অনুযায়ী গত শুক্রবার মধ্য রাত থেকে সব ধরনের প্রচার প্রচারণা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে ইসি।বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উপজেলা নির্বাচনী আইন অনুযায়ী ভোটগ্রহণ শুরুর ৩২ ঘণ্টা আগে মিছিল-মিটিংসহ সব ধরনের প্রচারণা বন্ধ থাকবে। তা ভোটগ্রহণের ৬৪টি ঘণ্টা পর্যন্ত বহাল থাকবে।বলা হয়, কোনো ব্যক্তি কোনো ধরনের প্রচারণা চালাতে পারবে না। কোনো ব্যক্তি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে ন্যূনতম ৬ মাস অনধিক ৫ বছরের কারাদণ্ড বা অনধিক ৫০ হাজার টাকা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারেন।ইতোমধ্যে নির্বাচন ঘিরে সেনাবাহিনীও মাঠে নেমেছে । এ ধাপের নির্বাচনে প্রতি উপজেলায় এক প্লাটুন করে সেনা সদস্য নিয়োজিত রয়েছে। এর মধ্যে প্রতি উপজেলায় সেনাবাহিনীর দুই থেকে তিনটি গাড়ি টহলে রয়েছে।প্রতি কেন্দ্রে একজন পুলিশ (অস্ত্রসহ), অঙ্গীভূত আনসার একজন (অস্ত্রসহ), অঙ্গীভূত আনসার ১০ জন (মহিলা-৪, পুরুষ-৬ জন) এবং আনসার একজন (লাঠিসহ) ও গ্রামপুলিশ একজন করে আইনশৃঙ্খলার দায়িত্বে রয়েছে।ঝুঁকিপূর্ণ, পার্বত্য এলাকা, দ্বীপাঞ্চল ও হাওর এলাকায় এর সংখ্যা শুধুমাত্র পুলিশের ক্ষেত্রে দুজন দেয়া হয়েছে। এর সঙ্গে রয়েছে সেনাবাহিনীর কমান্ডিং অফিসার ও একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট। এছাড়া মোবাইল ফোর্স হিসেবে পর্যাপ্ত সংখ্যক র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে সেনাবাহিনী নির্বাচনের দুইদিন পর পর্যন্ত মোট পাঁচদিন মাঠে থাকবে।এ বিষয়ে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারেন এবং নিরাপদে পৌঁছতে পারে, সেজন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। নির্বাচনী এলাকায় সব ধরনের যানবাহন চলাচলের বন্ধের ঘোষণা দেয় ইসি।ইসির দেয়া তথ্য মতে, চতুর্থ দফা উপজেলা নির্বাচনে মোট ভোটারের সংখ্যা ১ কোটি ৩৮ লাখ ৫৯ হাজার ২৭৮ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ৬৯ লাখ ৭ হাজার ৯৫৬ এবং নারী ভোটার ৬৯ লাখ ৫১ হাজার ৩১২ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ৫ হাজার ৮৮৪টি। প্রিসাইডিং অফিসার ৫ হাজার ৮৮৪ জন। ম্যাজিস্ট্রেটের মধ্যে ৩৬৪ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং ৯১ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেয়া হয়েছে।এ ধাপে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন চেয়ারম্যান পদে ৩৮৯ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪৮৫ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩১২ জন সহ মোট এক হাজার ১৮৬ জন প্রার্থী। আগের মতোই নির্বাচনে সংখ্যালঘুদের জন্য নেয়া হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।এক নজরে ৯১টি উপজেলা: ঢাকার ধামরাই, ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ, পাবনার ঈশ্বরদী, ফরিদপুর, ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ড, নড়াইলের নড়াইল সদর, খুলনার তেরখাদা, রূপসা, বটিয়াঘাটা, দাকোপ ও ফুলতলা, পিরোজপুর সদর, ভাণ্ডারিয়া, মঠবাড়ীয়া ও জিয়ানগর, টাঙ্গাইলের কালিহাতি, মধুপুর, নাগরপুর ও ভুয়াপুর, হবিগঞ্জের সদর, নবীগঞ্জ, আজমিরিগঞ্জ ও লাখাই, জয়পুরহাটের পাঁচবিবি, রাজশাহীর তানোর, বাগমারা ও পুঠিয়া, কুষ্টিয়ার দৌলতপুর, পটুয়াখালীর সদর, দুমকী, বাউফল, গলাচিপা ও মির্জাগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া, নাসিরনগর, কুমিল্লার মেঘনা ও বরুড়া, চাঁদপুরের শাহরাস্তি, ফেনীর সোনাগাজী ও ফুলগাজী, দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ ও ফুলবাড়ী, যশোরের সদর ও কেশবপুর, সাতক্ষীরার কলারোয়া, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ, বাগেরহাট মোল্লারহাট ও চিতলমারী,  ভোলার তজুমুদ্দিন, দৌলতখান ও মনপুরা, বরিশালের আগৈলঝাড়া, উজিরপুর ও বানরীপাড়া, গাজীপুরের কালিয়াকৈর, রাঙ্গামাটির জুড়াছড়ি, সিলেট সদর ও কানাইঘাট, চট্টগ্রামের বাঁশখালী, রাউজান, ফটিকছড়ি, রাঙ্গুনিয়া, বোয়ালখালী, সাতকানিয়া ও আনোয়ারা, ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট, সিরাগঞ্জের চৌহালী, মৌলভীবাজার সদর শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ, নাটোরের বড়াইগ্রাম, শেরপুরের নালিতাবাড়ী, মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া, সুনামগঞ্জের শাল্লা ও ধর্মপাশা, চুয়াডাঙ্গার জীবননগর, ঝালকাঠী সদর, কাঠালিয়া, নলসিটি ও রাজাপুর, বগুড়ার গাবতলী, নেত্রকোণা মদন, কিশোরগঞ্জ ভৈরব, ইটনা, মিঠামাইন, তাড়াইল ও কটিয়াদি, বরগুনার বেতাগী, কক্সবাজারের রামু ও কুতুবদিয়া, বান্দরবানের নাইখাংছড়ি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ