• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২২ পূর্বাহ্ন |

মুক্তিযোদ্ধাদের অংশগ্রহণ ছিল না : বিএনপি

Nazrulঢাকা: ‘লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলা’ অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধাদের অংশগ্রহণ ছিল না বলে দাবি করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।
তিনি বলেন, ‘আশ্চর্য হয়েছি যে, প্যারেড গ্রাউন্ডে মুক্তিযোদ্ধাদের যেমন অংশগ্রহণ ছিল না, তেমনি তাদের (মুক্তিযোদ্ধা) স্বার্থ সংরক্ষণ করা মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়েরও কোনো সম্পৃক্ততা ছিল না।’
‘মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস’ উপলক্ষে বুধবার দুপুরে বিএনপির পক্ষ থেকে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের আগে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।
লাখো কণ্ঠে সোনার বাংলায় বিএনপির অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম বলেন, এটা সরকারের নিজস্ব অনুষ্ঠান; কোনো রাজনৈতিক অনুষ্ঠান নয়।
স্বাধীনতার ৪৩ বছর পর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠিত করা বড় চ্যালেঞ্জ মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘মর্যাদার সঙ্গে বেঁচে থাকতে মুক্তিযুদ্ধের হারিয়ে যাওয়া চেতনা পুনরুদ্ধার করতে চাই।’
বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য আরো বলেন, ‘গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। কিন্তু এখন গণতন্ত্র নেই। ক্ষমতার লোভে প্রার্থী ও ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে তা ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে।’
বর্তমান সরকারের জনগণের প্রতি কোনো দায়বদ্ধতা নেই মন্তব্য করে নজরুল ইসলাম বলেন, ‘তারা (সরকার) জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি নয়, সেহেতু জনগণের প্রতি তাদের দায়িত্বও নেই। এ জন্য বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির পর এবার সড়কপথে টোল আদায় করার সিদ্ধান্ত নিয়ে জনগণকে আরেকটি দুর্ভোগের সামনে ফেলতে চাইছে।’
বিএনপির নেতা-কর্মীদের নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, দেশের এমন কোনো কারাগার নেই, যেখানে তারা মিথ্যা মামলায় কারাবরণ করছেন না। দেশের প্রায় সব হাসপাতালে নির্যাতনের শিকার হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন তারা। এটি কেমন গণতন্ত্র যেখানে একটি প্রধান রাজনৈতিক দলের মহাসচিবকে পাঁচবার গ্রেফতার করা হয়?
দেশের ক্রান্তিকাল চলছে দাবি করে তিনি বলেন, স্বাধীনতা দিবসে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ফিরিয়ে এনে গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠার শপথ নিতে হবে। এ জন্য নেতা-কর্মীদের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ