• বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫৫ পূর্বাহ্ন |

রাজারহাটে ইউএনও’র অনুষ্ঠান বর্জন করেছে ৪২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

71রফিকুল ইসলাম, রাজারহাট (কুড়িগ্রাম): কুড়িগ্রামের রাজারহাটে ৪৪তম মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত অনুষ্ঠান বর্জন করেছে ৪২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এ দিকে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কার্যালয়ে মুক্তিযোদ্ধারা বসতে না পেরে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি রাজারহাট উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ তাদের নিয়ন্ত্রিত ৪২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উপজেলা প্রশাসনের কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে অনুষ্ঠানসহ সকল প্রোগ্রাম বর্জন করে নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মসূচী পালন করেছেন। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও হরিশ্বর তালুক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল লতিফ মোল্লা বলেন, রাজারহাট কারিগরি বাণিজ্যিক কলেজের অধ্যক্ষ আবুল হোসেন সরকারকে স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবসের ৭টি কমিটিতে আহ্বায়ক সহ মোট ১১টি কমিটিতে কর্তৃত্ব দেয়া হয়েছে এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকদের সঙ্গে অসৌজন্য মুলক আচরণ ও ধমক দিয়ে বিভিন্ন ধরনের অশালীন কথা-বার্তা বলায় তারা উপজেলা প্রশাসনের সকল অনুষ্ঠান বর্জন করে তাদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে জাতীয় কর্মসূচী ব্যাপকভাবে পালন করেছেন। তিনি আরও অভিযোগ করেন, কুচকাওয়াজ-ডিসপ্লে, চিত্রাংকন, কবিতা আবৃত্তি সহ বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণকারী ভাল ভাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে বাদ দিয়ে আবুল হোসেন সরকার তার নিজের পছন্দের মনগড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সিলেকশন করে প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ে উত্তীর্ণ করে পুরস্কৃত করেন। এমনকি বিচারকের আসনে উপজেলার ঐতিহ্যবাহী নামী-দামি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের বাদ নিত্য নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার চঞ্চল কুমার ভৌমিককে এসব ব্যাপারে অবগত করেও কোন লাভ হয়নি বলে জানিয়েছেন। অপরদিকে ইউএনও’র কাছে রাজারহাট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কার্যালয়ের চাবি থাকায় ওই কার্যালয় বন্ধ থাকায় মুক্তিযোদ্ধারা তাদের কার্যালয়ে তারা বসতে না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে নিজ নিজ বাড়িতে চলে যান। এসব বিষয়ে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস.এম. মাজহারুল ইসলামের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, শিক্ষক নেতৃবৃন্দ এ বিষয়ে তাঁকে কোন অভিযোগ করেননি এবং বিষয়টি তাঁর জানা ছিল না। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার চঞ্চল কুমার ভৌমিক বলেন, কমিটি করা নিয়ে শিক্ষক নেতৃবৃন্দ আমাকে বিষয়টি জানিয়েছেন এবং এসব ব্যাপার নিয়ে আমার করার কি আছে। কমিটির করার বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বিষয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ