• বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৪৪ অপরাহ্ন |

লালমনিরহাটের আরতির বাড়িতে সুলতানা কামাল

pp-3লালমনিরহাট প্রতিনিধি: সরকারী নির্দেশ যথাযথ ভাবে পালন না হওয়ায় সংখ্যালঘুর উপর নির্যাতন বাড়ছে বলে অভিযোগ করেছেন আইন ও শালিশি কেন্দ্রের নিবার্হী পরিচালক ও তত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা এ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল।
শনিবার বেলা ১২টায় লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়নের ধাইরখাতা গ্রামে ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের পর নির্যাতনের শিকার গৃহবধু আরতি রানীর বাড়ি পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি এ অভিযোগ তুলেন।
তিনি বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীরা ৭১ এ পরাজিত হয়ে স্বাধীনতার ৪২ বছর পরেও একের পর এক ঘটনা ঘটাচ্ছে। মৌলবাদীরা স্বাধীন দেশের সংখ্য্লাঘু পরিবারের উপর নির্যাতন চালিয়ে দখল করে নিচ্ছে সংখ্যালঘু পরিবারের জমি ও বসত ভিটা। সরকার সংখ্যালঘু পরিবারের উপর নির্যাতন বন্ধের যে নির্দেশ দিচ্ছে তা সঠিক ভাবে পালন করা হচ্ছে না। এর কারনে মৌলবাদীরা চালাচ্ছে তাদের অপতৎপরতা।
এসময় তার সাথে ছিলেন, আইন ও শালিশি কেন্দ্রের সদস্য টিপু সুলতান, আবু আহম্মেদ ফয়জুল কবির ও গীতা চক্রবর্তি। ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের পর নির্যাতনের শিকার গৃহবধু আরতি রানী ও তার পরিবারকে শান্তনা দেন দেন সুলতানা কামাল।
এ দিকে লালমনিরহাটের পাটগ্রামে সাম্প্রদায়িক ও সংখ্যালঘু নির্যাতন এর বিরুদ্ধে “রুখে দাড়াঁও বাংলাদেশ” সংগঠন পাটগ্রামের সফিনগর এলাকায় শনিবার সকাল ১১টায় সমাবেশ করেন।
সফিরহাট আঞ্চলিক কমিটির আয়োজনে সমাবেশে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদেও সফিহাট এলাকার সভাপতি সুনিল চন্দ্র। বিশিষ্ট্য অর্থনীতিকবিদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এম এম আকাশ, মুক্তিযোন্ধা যাদুঘর ট্রাস্টির্বোডের সেক্রেটারী জিয়াউদ্দিন তারেক, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদেও সহ সম্পাদক গোপাল বর্মা,বাউরা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান। বক্তরা বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অতীত তুলে ধরে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রুখে দেওয়ার আহবান জানান।
সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক এম এম আকাশ বলেন বাংলাদেশের আওয়ামীলীগ, বিএনপি দু দলই সার্থের লোভে সাম্প্রদায়িক শক্তির সাথে আঁতাত রাজনীতি করে আসছেতবে আওয়ামীলীগের সাথে সাম্প্রদায়িক শক্তির সমপৃক্ততা কৌশলগত কারনে।
পাটগ্রামে মতবিনিময় সভা শেষে দুপুর ১২ টায়  হাতিবান্ধা মেডিকেল মোড়ে “রুখে দাঁড়াও বাংলাদেশ” আয়োজিত পথসভা করেন। পথসভায়  অধ্যাপক এম এম আকাশ বলেন, নিরাপত্তা হীনতার কারনে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও  ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র ট্রাস্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল আসতে পারেনি।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মেম্বার তারেক আলী, স্থানীয় সিপিবি নেতাকর্মীরা ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ