• বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৪৭ পূর্বাহ্ন |

ডোমার উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির ভড়াডুবি

Abdur Razzak.jpgনীলফামারী প্রতিনিধি: চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পঞ্চম পর্যায়ের নীলফামারীর ডোমার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুইটিতে আওয়ামী লীগ ও একটিতে জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী জয়ী। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক বসুানিয়া পুনরায় বে-সরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও ভাইস-চেয়ারম্যান পদে জামায়াত সর্থিত প্রার্থী আব্দুল হাকীম ভূট্ট্র এবং মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী  সন্ধ্যা রানী রায় নির্বাচিত হয়েছেন। সোমবার রাতে সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে ঘোষিত ফলাফলে তাদের বেসরকারীভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়। উপজেলা রির্টানিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শফিউর রহমান এই ফলাফল ঘোষণা করেন।
এদিকে এর আগে নীলফামারীর অন্যান্য পাঁচ উপজেলার মতো এখানেও  ভরাডুবি হয়েছে বিএনপির  প্রার্থীদের। শুধু মাত্র মহিলা ভাইস চেয়াম্যান প্রার্থী ছাড়া আর কেউ প্রতিদ্বন্দ্বীতা গড়ে তুলতে পারেনি। এখানে  বিএনপির চেয়ারম্যান পদে মনছুরুল ইসলাম দানু মোটর সাইকেল প্রতিক নিয়ে মাত্র ২৫ হাজার ১১ ভোট পেয়েছেন।
সহকারী রিটার্নিং অফিসার ঘোষিত  ফলাফলে বর্তামান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক বসুনিয়া আনারস প্রতিক নিয়ে ৩৫ হাজার ৯৪১ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী আব্দুর রশিদ দোয়াত-কলম প্রতিক নিয়ে ২৯ হাজার ১৩৬ ভোট পেয়েছেন। ভাইস-চেয়ারম্যান পদে জামায়াত সমর্থিত প্রার্থী আব্দুল হাকীম ভূট্ট্র মাইক প্রতিক নিয়ে ২৮ হাজার ৭৭২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ (বিদ্রোহী) প্রার্থী  আমিনুল ইসলাম রিমুন তালা প্রতিক নিয়ে ২৮ হাজার ১২ভোট পেয়েছেন। এছাড়াও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী সন্ধ্যা রানী বৈদ্যুতিক পাখা প্রতিকে ২৯ হাজার ২৮৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ডেইজী নাজনীন মাসরাফি হাঁস প্রতিক নিয়ে পেয়েছেন ২৬ হাজার  ২৩২ ভোট।
সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও ডোমার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, উপজেলার মোট ৬৪টি কেন্দ্রের ফলাফলে  চেয়ারম্যান পদে বর্তামান উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক বসুনিয়াবে-সরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও ভাইস-চেয়ারম্যান পদে আব্দুল হাকীম ভূট্ট্র এবং মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে সন্ধ্যা রানী রায় বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। উপজেলার একটি পৌরসভা  ও ১০টি ইউনিয়নের মোট এক লাখ ৫৭ হাজার ৫১ জন  ভোটারের মধ্যে এক লক্ষ ১০ হাজার ৯৭ জন ভোটার  তাদের ভোট প্রয়োগ করেন।  শতকরা ৬৯ শতাংশ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ  করেছেন।
উল্লেখ্য, এর আগে নীলফামারী জেলার পাঁচ উপজেলা নির্বাচনে ডিমলা, সৈয়দপুর ও নীলফামারী সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জয়লাভ করে। এছাড়াও  জেলার অপর দুটি জলঢাকা উপজেলায় জামায়াত এবং কিশোরগঞ্জ উপজেলা জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী জয়লাভ করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ