• মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৬:০২ পূর্বাহ্ন |

দিনাজপুরে মাছ চুরিতে বাধা দেয়ায়…

Humkiদিনাজপুর প্রতিনিধি: মাছ চুরিতে বাধা দেয়ায় পুকুর মালিককে হত্যার হুমকী দিয়েছে তষ্করের দল। এ ঘটনা দিনাজপুর সদর উপজেলার কমলপুর ইউনিয়নের দানিহারী এলাকার ০৪-০৩-১৪ তারিখের।
থানায় দায়ের করা এক এজাহার সূত্রে জানা যায়, ঈদগাহ আবাসিক এলাকার মৃত আফসার আলীর পুত্র মোঃ রোস্তম আলী গত ০৮-১০-১৩ তারিখে কোতয়ালী থানার দানিহারী মৌজার জে এল ১৮৭ নং, খতিয়ান নং এস এ ১৩১, ১৩২, ১২২, ১৩৪, ১১৬ ও ৯৩ দাগ, সি এস/ এস এ ৮৬ বি এস ১৩৩ এর ৮৮ শতক পুকুরটি মালিক ঈদগাহবস্তি নিবাসী মৃত এমাজ উদ্দীন এর পুত্র মোঃ মিনাজ উদ্দীন চৌধুরীর নিকট হতে ক্রয় করেন। যার কবলা দলিল নং ৮৮৮৭। উক্ত পুকুর ক্রয় করার পর হতে পুকুরটি তিনি ভোগ দখল করে আসছেন। সম্প্রতি তিনি পুকুরে মাছ চাষ করেছেন। এই পুকুর নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে নেমতারা নিবাসী মোঃ সোলেমান মিয়ার পুত্র মোঃ আজিজার রহমান, দানিহারী নিবাসী মোঃ ইয়াকুব আলীর পুত্র মোঃ তকদিল হোসেন ও মোঃ তসলিম, মৃত শুকারু মোহাম্মদ এর পুত্র মোঃ শাহজাহান ও মোঃ বাবুল হোসেন, মৃত মংলু মোহাম্মদ এর পুত্র মোঃ আঃ জলিল ও মোঃ আব্দুল জব্বারের পুত্র আতিকুর রহমান দলবল নিয়ে গত ৪ মার্চ ১৪ তারিখে দিবাগত ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে রোস্তম আলীর পুকুর হতে মাছ চুরি করতে যায়। ঘটানার স্বামীর মোঃ আলম, মোঃ সাইদুর রহমান ও মোঃ মোস্তফা কামাল তাদের দেখতে পেয়ে মাছ ধরতে নিষেধ করে। কিন্তু সে নিষেধাজ্ঞায় কান না দিয়ে তারা চুরি করে ধরা প্রায় ৭ মন মাছ বস্তাভর্তি করে আজিজার রহমানের বাড়ীতে নিয়ে যায়। স্বামীরা রোস্তম আলীকে মোবাইলে খবর দিলে তিনি দ্রুত পুকুরপাড়ে হাজির হন। তিনি আসামীদের মাছ ধরতে দেখতে পান। তাদেরকে মাছ মারতে নিষেধ করলে আসামীরা তাকে হত্যার হুমকী দেয়। এজাহারে আরো বলা হয়, চুরি যাওয়া মাছের মূল্য প্রায় ৭০ হাজার টাকা। এ ছাড়া বেড় জাল দিয়ে মাছ ধরার কারণে পোনা মাছের ব্যাপক ক্ষতিসাধিত হয়েছে। এতে তিনি আরো ৩০ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতির শিকার হয়েছেন।
থানায় মামলা দায়েরের পরও তেমন কোন কার্যকর ব্যবস্থা না নেয়ায় আসামীরা তাকে বিভিন্নভাবে হুমকী দেয়া অব্যাহত রেখেছে বলে রোস্তম আলী এ প্রতিনিধিকে জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ