• বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন |

দেশে ইন্টেলের সর্বোচ্চ ক্ষমতার প্রসেসর

Intelপ্রযুক্তি ডেস্ক: স্বাস্থ্যসেবা, রিটেইল, ব্যাংকিং যোগাযোগ খাতসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বিশাল পরিসরের ডেটাসেট নানাভাবে বিশ্লেষণ এবং  প্রক্রিয়াজাতকরণ ত্বরান্বিত করতে ইন্টেল কর্পোরেশন এনেছে ‘জিওন ই৭ ভি২ ফ্যামিলি’ নামের নতুন প্রসেসর। মিশন ক্রিটিকাল কম্পিউটিংয়ের জন্য নির্মিত ‘জিওন ই৭ ভি২ ফ্যামিলি’ সর্বোচ্চ মেমোরি সমর্থনে সক্ষম। ফলে বিশাল পরিসরের ডেটাকে তীব্র-গতিতে বিশ্লেষণ করে তাৎক্ষণিকভাবে কার্য সম্পাদন করে।
ইন্টেল সূত্রে জানা যায়, আগের প্রজন্মের চেয়ে এ প্রসেসরটির গড় কার্যক্ষমতা দ্বিগুন এবং ইনপুট/আউটপুট ব্যান্ডউইথ চারগুন বেশি। এছাড়া বিকল্প আরআইএসসি আর্কিটেকচারের তুলনায় এটি ৮০ শতাংশের বেশি কার্যক্ষম এবং টোটাল কস্ট অব ওনারশিপ ৮০ শতাংশ কমায়। আগের ফ্যামেলি প্রসেসরের তুলনায় নতুনটির ডাটা ধারনের ক্ষমতা তিনগুন বেশি ফলে দ্রুত ও সম্পূর্ণভাবে ডেটা বিশ্লেষন হয়। সর্বোচ্চ ৩২ সকেটের সার্ভারের জন্য তৈরি এ প্রসেসরে ১৫টি পর্যন্ত প্রসেসিং কোর কনফিগারেশন করা আছে। এর প্রতি সকেট ১.৫ টেরাবাইট মেমোরি  সমর্থনে সক্ষম।
এটি ব্যবহারে একটি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান আয় এবং মুনাফা বৃদ্ধি উভয় বিষয়েই সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারে বলে দাবি প্রতিষ্ঠানের। তাছাড়া বর্তমানে বিশাল পরিসরের তথ্যের মাধ্যমে তৈরি সেবা দিয়ে বহু প্রতিষ্ঠানের মুনাফা বাড়ায় ব্যবসার প্রসার হচ্ছে। একটি প্রতিষ্ঠানের পুরো গ্রাহক ডেটাবেজকে এটি ডিস্ক ড্রাইভের পরিবর্তে সিস্টেম মেমোরিতে নিয়ে বিশ্লষণ করে। পর্যায়ক্রমে এ পদ্ধতির প্রয়োজনীয়তা বেড়ে যাওয়ায় জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে।
বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান গার্টনারের মতে, ২০১৫ সাল নাগাদ মধ্যম থেকে বড় প্রতিষ্ঠানগুলোর ৩৫ শতাংশ সাধারণ ডিস্ক ড্রাইভের পরিবর্তে সিস্টেম মেমোরি ব্যবহার করবে।
যেসব ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বিজনেস সাপোর্ট সিস্টেম, কাস্টমার রিলেশনশিপ ম্যানেজমেন্ট এবং ইআরপির মতো  মিশন ক্রিটিক্যাল অ্যাপলিকেশন ব্যবহার করে তাদের আরো দক্ষতা ও দ্রুততার সাথে কাজ সম্পাদনে সমর্থন করবে। উল্লেখ্য, ইন্টেলের আদর্শে বিশ্বসেরা যে বৈশিষ্ট্যগুলো রয়েছে তা ‘জিওন ই৭ ভি২ ফ্যামিলি’তে সমুন্নত রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ