• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৫:০৮ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খোলা বায়েজিদ আটক নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলামের শ্বশুড়ের ইন্তেকাল সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের গ্রন্থাগারের মূল্যবান বইপত্র গোপনে বিক্রি ফেনসিডিলসহ সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা গ্রেপ্তার এ সেতু আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে ৮ দিন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেতে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা সৈয়দপুরে বিস্কুট দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ গণমানুষের সমর্থনেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

উপজেলা নির্বাচনে স্থগিত ১৯ কেন্দ্রে ভোট

ECসিসি নিউজ: চতুর্থ দফার উপজেলা নির্বাচনে স্থগিত ১৯ কেন্দ্রের পুন:ভোট গ্রহণে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বুধবার ভোটের আগেই নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হচ্ছে নির্বাচনী এলাকাগুলোকে। পাশাপাশি চতুর্থ উপজেলা নির্বাচনে প্রথমবারের মতো মাঠে নামছে ইসির নিজস্ব পর্যবেক্ষক দল। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে ইসি ইতোমধ্যে সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।
ভোটারদের নিরাপত্তা ও নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করতে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে এক প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের একটি মোবাইল টিম থাকছে। এছাড়াও প্রতি কেন্দ্রে পুলিশ, এপিবিএন, ব্যাটালিয়ান আনসারের পৃথক টিম সার্বক্ষণিক টহলে থাকছে। অনিয়ম ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের তাৎক্ষণিক শাস্তি দিতে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটও ভোটকেন্দ্রে সার্বক্ষণিক অবস্থান করবেন বলে ইসির দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।
ইসি কর্মকর্তারা জানান, ৯ এপ্রিল ভোটের দিন মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় নয়টি, সিলেটের কানাইঘাটে একটি, কুমিল্লার বরুড়ায় দুটি, কক্সবাজারের কতুবদিয়ায় দুটি ও পটুয়াখালীর দুমকীতে পাঁচটি কেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য দিয়ে ঢেকে ফেলা হচ্ছে। বাড়তি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে গত রোববার চিঠি দিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অতিরিক্ত বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশ মোতায়েনসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণের সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া এ নির্বাচনে এবারই প্রথম প্রতিকেন্দ্রে ইসির নিজস্ব পর্যবেক্ষক থাকছে বলে ইসির দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন।
চরম সহিংসতা, ভোট জালিয়াতি ও কারচুপির মধ্য দিয়ে ৫ ধাপে ৪৫৯টি উপজেলার নির্বাচন সম্পন্ন করে ইসি। স্থগিত হওয়া ৫ উপজেলার ১৯ কেন্দ্রের জন্য এরকম কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ‘মশা মারতে কামান দাগানো’র ব্যবস্থা বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। গত ২৩ ও ৩১ মার্চ ব্যাপক সহিংসতার কারণে এ ১৯ কেন্দ্রের ফলাফল স্থগিত করে ইসি। ফের যাতে সহিংসতা না হয় সেজন্য এ প্রস্তুতি নিয়েছে কমিশন।
৫ উপজেলায় স্থগিত ১৯ কেন্দ্রের মধ্যে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার নয়টি, সিলেটের কানাইঘাটে একটি, কুমিল্লার বরুড়ায় দুটি, কক্সবাজারের কতুবদিয়ায় দুটি ও পটুয়াখালীর দুমকীতে পাঁচটি কেন্দ্রেকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে ইসি। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ বিবেচনা করা হচ্ছে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার নয়টি কেন্দ্রকে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ