• বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০১:৪২ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
ইউনূস, হিলারি ও চেরি ব্লেয়ারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার দাবি সংসদে মার্কেট-শপিং মলে মাস্ক বাধ্যতামূলক করে প্রজ্ঞাপন খানসামায় র‌্যাবের অভিযান ইয়াবাসহ দুই মাদককারবারী গ্রেপ্তার ডোমার ও ডিমলায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগ নিয়ে কর্মশালা নীলফামারীতে ৫ সহযোগীসহ কুখ্যাত চোর ফজল গ্রেপ্তার সৈয়দপুরে তথ্যসংগ্রহকারী ও সুপারভাইজারদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত জয়পুরহাট বিনা খরচে আইনের সেবা পেতে সেমিনার শিক্ষক লাঞ্চনা ও হেনস্তার বিরুদ্ধে সৈয়দপুরে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর প্রতিবাদ সমাবেশ সৈয়দপুরে শহীদ আমিনুল হকের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে বিনামূ‌ল্যে বীজ ও সার বিতরণ

চিরিরবন্দরের ইউএনওসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে সমনজারী

Adalotদিনাজপুর প্রতিনিধি : সরকারী নিয়মনীতি লঙ্ঘন করে কর্মচারী নিয়োগের বিরুদ্ধে দিনাজপুরের চিরিরবন্দরের ইউএনও ও রাসডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করায় বিজ্ঞ আদালত বিবাদীদের ২৮ এপ্রিল আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেছেন।
দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার রাসডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী নিয়োগে সরকারী নিয়মনীতি লঙ্ঘনের অভিযোগে একই উপজেলার আলোকডিহি গ্রামের আলমগীর কবির বাদী হয়ে সহকারী জজ আদালত চিরিরবন্দরে মামলা (নং- ১৩/১৪) দায়ের করায় মামলার ৫ বিবাদী স্কুলের পরিচালনা ও বাছাই কমিটির সভাপতি চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান, প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল ওয়াহেদ, সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল মান্নান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ আহসান হাবিব এবং চাকুরী প্রার্থী আলোকডিহির মোঃ আমান উল্লাহের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে সমন জারী করেছেন। বিবাদীদের আগামী ২৮ এপ্রিল স্বশরীরে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য আদেশ দেয়া হয়েছে।
মামলার এজাহারে বলা হয় যে, চলতি বছরের ১৩ জানুয়ারি চিরিরবন্দর উপজেলার রাসডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। সে মোতাবেক বাদী ওই উপজেলার আলোকডিহি গ্রামের মোঃ মকবুল হোসেনের পুত্র মোঃ আলমগীর কবির দরখাস্ত করেন। এ সময় ৫ নং বিবাদী স্বহস্তে লিখিত কোন দরখাস্ত করেননি, কিংবা কোন দরখাস্তে স্বাক্ষর পর্যন্ত করেননি। এরপরও তার দরখাস্ত আমলে নিয়ে তাকে সাক্ষাৎকারপত্র দেয়া হয়। নিয়োগ নির্বাচনী পরীক্ষার ফলাফলে মোঃ আশরাফুল আলম বুলু প্রথম, বাদী দ্বিতীয় এবং মোঃ আমানউল্লাহ তৃতীয় হয়। প্রস্তুতকৃত প্যানেলের ১নং ক্রমিকের প্রার্থী মোঃ আশরাফুল আলমের বিরুদ্ধে অভিযোগ উত্থাপিত হওয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওই তালিকায় স্বাক্ষর করা হতে বিরত থাকলেও বিধি মোতাবেক অভিযোগ নিস্পত্তির জন্য কোন ব্যবস্থা নেননি। ২০ ফেব্র“য়ারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ আহসান হাবিব প্রথম স্থান অধিকারীকে দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী নিয়োগের জন্য ২নং বিবাদী উক্ত স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল ওয়াহেদকে প্রদান করেন। তাতে ৫নং বিবাদী মোঃ আমান উল্লাহকে প্রথম উল্লেখ করা হয়েছে।
মামলার বিবরণে দাবী করা হয়- প্রকৃতপক্ষে আশরাফুল আলম বুলু প্রথম স্থান অধিকার করেছে। তিনি নিয়োগ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন না পাওয়ায় দ্বিতীয় স্থান অধিকারী বাদী আলমগীর কবির উক্ত পদে নিয়োগ পাবার প্রকৃত দাবীদার। বাদী আদালতের কাছে ঘোষণামূলক ও বাধ্যতামূলক ডিক্রির আবেদন করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ