• বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন |

ভারতে ভোটের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিনটিতে ভোটগ্রহণ চলছে

Indiaআন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতে ভোটের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দিনটিতে লাখ লাখ ভারতীয় ভোট দেয়ার জন্য ভোটকেন্দ্রে ভিড় জমাচ্ছেন। খবর বিবিসি’র। , ১৪টি প্রদেশের ৯১টি আসনে বৃহস্পতিবার ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। রাজধানী দিল্লি ও গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য উত্তর প্রদেশেও ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। দিল্লির সাতটি আসন, দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ কেরালার ২০ টি আসন এবং উত্তর প্রদেশ, মহারাষ্ট্র ও উড়িষ্যার প্রত্যেকটির ১০টি করে আসনে ভোট চলছে। ক্ষমতাসীন কংগ্রেস ও বিজেপির মধ্যেই প্রধান লড়াইটা হচ্ছে বলে মনে হচ্ছে। নয় ধাপে ভোটের প্রথমটি শুরু হয়েছে গত সোমবার এবং ১২ মে ভোটগ্রহণ শেষ হবে। ১৬ মে ভোট গণনা শুরু হবে। এবারের নির্বাচনে ৮১.৪ কোটি ভারতীয় ভোট দানের যোগ্য। এদিকে নির্বাচনী দায়িত্ব পালনকালে মাওবাদী হামলায় ভারতের বিহার প্রদেশে দুজন সৈন্য নিহত হয়েছে এবং অপর তিনজন আহত হয়েছে। এ এলাকাটি মাওবাদী বিদ্রোহীদের শক্ত ঘাঁটি। ভোট শুরু হওয়ার পরই বিস্ফোরণের ঘটনাটি ঘটে। তবে ওখানে ভোটগ্রহণ বন্ধ হয়নি। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার সাথে উত্তর প্রদেশের ভোটাররা ভোট দিতে এসেছেন। রাজনৈতিক হিসাব নিকাশে উত্তর প্রদেশ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এ প্রদেশ থেকেই সবচেয়ে বেশি সদস্য পার্লামেন্টে যায়। বৃহস্পতিবার ভোটে প্রায় ১ কোটি ৬০ লক্ষ ভোটার ১০ টি আসনে ভোট দিতে যাবেন। এর মধ্যে আছে আলোচিত মুজাফফরনগর আসন যেখানে হিন্দু-মুসলমান সংঘর্ষে কমপক্ষে ৬৫ জন নিহত হয়েছিল। দাঙ্গায় প্রায় ৫১ হাজার বাস্তুচ্যুত হয়েছে, যার বেশিরভাগই মুসলমান। অস্থায়ী ক্যাম্পে থাকা অধিবাসীরা বৃহস্পতিবার খুব সকালেই ভোট দিতে আসেন। সর্বপ্রিয় ইহার জেলার একটি স্কুলের ভোটকেন্দ্রে ভোট দেওয়ার জন্য সকাল সাতটাতেই লাইনে দাঁড়াতে দেখা যায়। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই কয়েক ডজন লোক লাইনে দাঁড়িয়ে যায় এবং কয়েক মিনিটের মধ্যেই এ লাইন অনেক দীর্ঘ হয়। নির্বাচনী কর্মকর্তারা ভোটারদের নাম পরীক্ষা করেন এবং ভোট প্রদানের পর তাদের আঙুলে অমোচনীয় কালি লাগিয়ে দেন। গত বছরের নির্বাচনে দুর্নীতি বিরোধী আম আদমি পার্টি দিল্লিতে প্রধান দুটি দলের বিরুদ্ধে অসাধারণ ফলাফল করেছিল। দলটি এবারও দুটি দলের জন্য বড় হুমকি হিসেবে দেখা দিয়েছে। অন্যান্য ছোট ছোট ও স্থানীয় দলগুলোও এবারের নির্বাচনে বেশ ভালো করবে বলে মনে হচ্ছে। যদি কোনো একক দল সুস্পষ্ট সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন না করে তাহলে ঐ ছোট দলগুলো সরকার গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ