• রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০২:০৭ পূর্বাহ্ন |

কাশ্মিরে বন্দি ২৫ বাংলাদেশি : মুক্তিপণ দাবি

kasmirসিসি ডেস্ক: সুনামগঞ্জের বিভিন্ন গ্রামের ২৫ জন শ্রমিক গত ২৮ দিন ধরে ভারতের কাশ্মীর এলাকায় অন্ধকার ঘরে পাচারকারীদের হাতে বন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় পাচারকারী চক্রের সহযোগী আবু তাহের নামে এক যুবককে আটক করেছে বিজিবি। জানা গেছে, ইরান নেওয়ার কথা বলে দালালরা সীমান্ত দিয়ে তাদের ভারতে পাচার করেছে। জানা যায়, প্রায় ২৮ দিন আগে ইরান যাওয়ার উদ্দেশে সদর উপজেলার রঙ্গারচর ইউনিয়নের সীমান্তগ্রাম বনগাঁও গ্রামের জাদু মিয়া নামক দালালের মাধ্যমে ২৫ জন শ্রমিক তার সঙ্গে ভারতে যান। সেখানে যাওয়ার পর দালাল জাদু মিয়া ও পাচারকারী সিন্ডিকেট মিলে ভারতের কাশ্মীর এলাকার অজ্ঞাত স্থানে একটি অন্ধকার ঘরে তাদের আটক করে মুক্তিপণ দাবি করে। তিন দিন আগে উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের বড়খাল গ্রামের যুবক আলমগীর হোসেন তার পরিবারের লোকজনের কাছে মোবাইল ফোনে তাকেসহ ২৫ জনকে আটকে রাখা হয়েছে বলে পরিবারকে ফোনে জানান। টাকা না দিলে দালাল তাদের মুক্তি দিবেনা বলে তিনি পরিবারকে জানান। আলমগীরের ফোন পেয়ে তার পরিবার মুক্তিপণের টাকা কিভাবে পাঠাতে হবে বললে দালাল যাদু মিয়া বনগাঁও গ্রামের আবু তাহেরের নাম বলে তার কাছে টাকা দেওয়ার কথা জানায়।
শুক্রবার পাচারকারী জাদু মিয়ার কথা মতো আলমগীরের আত্মীয় শামীম পাশা রিজেন টাকা নিয়ে আবু তাহেরের বাড়িতে গিয়ে তার হাতে নগদ ১৫ হাজার টাকা দেন। এসময় আরো ২৫ হাজার টাকা না দিলে তাকে ছাড়ানো যাবে না বলে আবু তাহের তাদের জানায়। এ সময় স্বজনরা এসব বিষয় স্থানীয় বিজিকে অবগত করেন। খবর পেয়ে বনগাঁও সীমান্ত ফাঁড়ির বিজিবি জোয়ানরা শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় আবু তাহেরকে আটক করে। আটক আবু তাহেরের কাছ থেকে দালালের নম্বর নিয়ে বনগাও বিজিব ক্যাম্পের ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার মোহাম্মদ আলী ভারতে দালালের সঙ্গে কৌশলে কথা বলেন। বনগাঁও ক্যাম্প কমান্ডার মোহাম্মদ আলী খাঁন বলেন, ভারতে পাচারকারীদের হাতে আটক আলমগীরের সাথে মোবাইলে আমার কথা হয়েছে। আলমগীরসহ পাচারকারীদের হাতে আটক ২৫ জন বাংলাদেশি রয়েছেন বলে আমরা জেনেছি। আটক দালালের সহযোগীকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে তিনি জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ