• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৮:০২ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খোলা বায়েজিদ আটক নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলামের শ্বশুড়ের ইন্তেকাল সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের গ্রন্থাগারের মূল্যবান বইপত্র গোপনে বিক্রি ফেনসিডিলসহ সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা গ্রেপ্তার এ সেতু আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে ৮ দিন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেতে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা সৈয়দপুরে বিস্কুট দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ গণমানুষের সমর্থনেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

‘যত্রতত্র মূত্রত্যাগ রুখতে পুরুষদের প্যান্টে তালা লাগানো হবে!’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাস্তায় যেখানে-সেখানে মূত্রত্যাগ করলে পুরুষদের প্যান্টে তালা লাগানো হবে! পাবলিক প্লেসে প্রস্রাবের ঘটনায় বিরক্ত হয়ে একটি মামলার শুনানিতে ঠাট্টার ছলে এমনই মন্তব্য দিল্লি হাইকোর্টের। বিচারপতি প্রদীপ নন্দরাজগ এবং দীপা শর্মার ডিভিশন বেঞ্চ বিরক্তির সুরে বলে যে, এই বদ অভ্যাস থামানো যাচ্ছে না। ডিভিশন বেঞ্চের মন্তব্য, প্রতিটি পুরুষের প্যান্টের জিপে তালা লাগিয়ে দেওয়া উচিত এবং সেই চাবি বাড়িতে রাখা উচিত। অবশ্য আদালত এ মামলায় আধিকারিকদের কোনও নির্দেশ দিতে বারণ করেছে। এ ব্যাপারে উচ্চ আদালতে মনোজ শর্মা নামে এক ব্যক্তি জনস্বার্থ মামলাটি দায়ের করেন। সেই মামলায় বলা হয়, দেওয়ালের গায়ে প্রস্রাব করে অনেকে তা নোংরা করেন। দেওয়াল পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য এ ব্যাপারে কোনও পদক্ষেপ করা উচিত। দেওয়ালের গায়ে মূত্রত্যাগ করা থেকে নাগরিকদের বিরত রাখার জন্য আধিকারিকদের যথাযথ পদক্ষেপ করার দাবি তোলা হয় ওই আবেদনে। কিন্তু আদালত জানায়, তারা এ ব্যাপারে আধিকারিকদের কোনও নির্দেশ দিতে পারেব না। আদালত বলেন, পাব্লিক প্লেসে প্রস্রাবের সমস্যা সমাধানের জন্য অন্য কোনও মঞ্চের সাহায্য নিতে হবে। আদালত কোনও ব্যক্তিকে বলতে পারে না যে, বাড়ি থেকে বেরোনোর সময়ে জিপ বন্ধ রাখুন। কোর্ট এ ব্যাপারে হতাশা ব্যক্ত করে বলে, দেওয়ালে দেব-দেবীর ছবি লাগিয়েও পুরুষদের আটকানো যায় না। বিচারপতি বলেন, প্রমাণিত হয় যে, লোকেরা চাপমুক্ত হতে দেব-দেবীর ছবিতেও প্রস্রাব করায় পিছ পা হবেন না। কয়েকটি দেওয়ালে লাগানো দেব-দেবীর ছবি সরানোর আবেদনও জানানো হয়। দেওয়ালে পুরুষদরে মূত্রত্যাগ করা আটকাতে সেই ছবি লাগানো হয়েছিল। কিন্তু আদালত ছবি সরানোর নির্দেশ দিতেও অস্বীকার করে। বেঞ্চ জানায়, কাউকে নিজের বাড়ি বা কম্পাউন্ডের দেওয়ালে দেবতাদের ছবি লাগাতে বারণ করা যায় না। মামলাকারী মনোজ শর্মা এ ব্যাপারে দুঃখিত যে, লোকেরা দেবতাদের ছবি থাকা সত্ত্বেও দেওয়ালে প্রস্রাব করছেন। নিজের বক্তব্যের সমর্থনে তিনি ছবিও পেশ করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ