• মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৩:০২ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :

চিরিরবন্দর দক্ষিণ নশরতপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী নিয়োগে অনিয়ম

Oniomচিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ আউট সোর্সিংয়ের মাধ্যমে সৃজিত দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী পদে দিনাজপুর চিরিরবন্দরের প্রতিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লোক নিয়োগে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে দক্ষিণ নশরতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় অন্যতম।
সূত্রমতে, দক্ষিণ নশরতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী পদে লোক নিয়োগে ১৩ জানুয়ারি দরখাস্ত আহ্বান করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। অপরদিকে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর থেকে নিয়োগ বাণিজ্যের একটি দালাল চক্র সক্রিয় হয়ে ব্যাপক ভাবে ঘুষ বাণিজ্য শুরু করে। চক্রটি সৃষ্টপদের মূল্য ৫-৬ লাখ টাকা নির্ধারণ করে এবং  দক্ষিণ নশরতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নিয়োগ কমিটিতে থাকা বিদ্যালয় কমিটির সভাপতি মোজাম্মেল হক নিকট আত্মীয়কে দরখাস্ত করান তাদের মধ্য থেকে দপ্তরী নিয়োগে নামের তালিকা উপজেলা শিা অফিসে প্রেরণ করনে। যা সরকারের দেয়া পরিপত্রের নিয়ম বর্হিভূত। এতে করে, বিদ্যালয় এলাকার গরীব, মেধাবী, দাতা সদস্য ও সহ-সভাপতি নুরল ইসলাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও শিক্ষা অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন এবং এটি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রীসহ ৯টি দপ্তরে অনুলিপি করেছেন। একই ভাবে উপজেলার প্রায় সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নিয়োগ কমিটির মোটা অংকে অর্থের বিনিময়ে অযোগ্যদের নিয়োগ দানের পায়তারা করছে বলে অভিযোগ এনে ওই এলাকার বাসিন্দা এবং আবেদনকারী নারায়ন, সাইদুল হক, প্রতিমা, পবিত্রা, ছাইফুনসহ ৬ জন ব্যক্তির স্বারিত একটি অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগে উল্লেখ করেন  দক্ষিণ নশরতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নিয়োগ কমিটিতে থাকা প্রধান শিক লক্ষিকান্ত রায়, এসএমসি’র সভাপতি মোজাম্মেল হক গত ৮ ফেব্রুয়ারী ৪ জন আবেদনকারীর পরীক্ষা সাক্ষাৎকার না নিয়ে পর দিন (৯ ফেব্রুয়ারী) গোপনে তাদের মনোনীত প্রার্থীর নিকট থেকে সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকা গ্রহন করে প্রধান শিক্ষক ও সভাপতি রাতারাতি মৌখিক পরীাসহ নিয়োগের যাবতীয় কাগজপত্র প্রস্তুত করেছেন।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের সাথে কথা হলে তিনি জানান, বিধি অনুযায়ী নিয়োগ সম্পন্ন করা হয়েছে।
দক্ষিণ নশরতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৯ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির প্রধান শিক্ষক ও সভাপতি ছাড়া নিয়োগের ব্যাপারে অন্য সদস্যরা কিছুই জানেন না। তাই  দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী পদের নিয়োগ বাতিল এবং প্রধান শিক্ষক , সভাপতির অনিয়ম ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ