• বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৪:২৪ পূর্বাহ্ন |

তিস্তা লংমার্চের সমাবেশে ৩ লাখ লোক সমাগমের টার্গেট বিএনপির

Pressরংপুর অফিস: তিস্তায় পানির দাবিতে ডালিয়া অভিমুখে লংমার্চের শেষ দিনে ২৩ এপ্রিল ব্যারেজের হেলিপ্যাডে তিন লাখ লোক সমাবেশের টার্গেট নিয়েছে বিএনপি। তবে লংমার্চ উপলক্ষে আগত অতিথিদের রংপুর মহানগরীসহ বিভিন্ন জেলা উপজেলার আবাসিক হোটেল এবং পরিবহন ভাড়ায় বুকিং দিতে সরকারের তরফ থেকে বাধা দেয়া হচ্ছে।
শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় রংপুর মহানগরীর রাজা রামমোহন কাবের মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান বিএনপির রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু। এসময় জেলা বিএনপির আহবায়ক মোজাফফর হোসেনসহ বিএনপি ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
সংবাদ সম্মেলনে সাবেক উপমন্ত্রী দুল বলেন, অবৈধ অগণতান্ত্রিক আওয়ামী সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণেই তিস্তা পানিশূন্য হয়ে পড়ায় পুরো তিস্তা অববাহিকার নদী, প্রকৃতি, বোরো আবাদ এবং মানুষ মরুময়তায় ভুগছেন। অকার্যকর হয়েছে তিস্তা ব্যারেজ প্রকল্প। নদী বাঁচাও প্রকৃতি বাঁচাও মানুষ বাঁচাও দেশ বাঁচাও শ্লোগানে তিস্তা লংমার্চে বিএনপি নেতাকর্মী ছাড়াও তিস্তা অববাহিকার সাধারণ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক অংশ নেবেন।
তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই রংপুর মহানগরীসহ আশেপাশের আবাসিক হোটেলগুলোতে সরকারের এজেন্টরা গিয়ে বুকিং নিতে বারণ করেছে। সেকারনে হোটেলগুলো বুকিং নিচ্ছে না। হোটেলে বুকিং না নিলেও ঢাকা থেকে আসা নেতাদের স্থানীয় নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে থাকার বন্দোবস্ত করার কথা বলেন তিনি। তিনি অভিযোগ করে বলেন, পরিবহন ব্যবসায়ীদের বাস ট্রাক ভাড়া দিতেও বাধা দিচ্ছে সরকার। এসব কর্মকাণ্ড থেকে সরকারকে সরে আসার আহবান জানান তিনি।
তিনি বলেন, ২২ এপ্রিল ঢাকার বিএনপি কার্যালয় থেকে ভারপ্রাপ্ত মহাসচি মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে লংমার্চ রওনা দিয়ে রাতে রংপুরে অবস্থান করবে। ২৩ এপ্রিল পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে সমাবেশের মধ্য দিয়ে তিস্তা ভ্যারেজ অভিমুখে রওনা দেবে। পথিমধ্যে পথসভা শেষে বিকেলে তিস্তা ব্যারেজের হ্যালিপ্যাডে সমাপণী সমাবেশ করবে বিএনপি।
সংবাদ সম্মেলনের আগে সেখানে নেতাকর্মীদের নিয়ে বৈঠকে বসেন সাবেক উপমন্ত্রী আসাদুল হাবিব দুলু। সেখানে লংমার্চের কর্মসূচি দেরিতে নেয়ায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের অদুরদর্শিতাকে দায়ী করা হয়। এসময় জেলা বিএনপির আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর হোসেন বলেন, আমি দুই মাস আগে তিস্তার বিষয়ে লংমার্চসহ কর্মসূচি নেয়ার জন্য কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে বলেছিলাম। কিন্তু কর্মসূচি ঘোষণা করতে অনেক দেরি হয়ে গেছে। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন কেন্দ্রকে তৃণমুলের নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে সঠিক সময়ে সঠিক কর্মসূচি দিতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ