• বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১০:৩৬ অপরাহ্ন |

সৈয়দপুরে আদালতের নির্দেশ উপেক্ষিত: ফের জমি দখলের চেষ্টা !

SAM_1160সিসি নিউজ: আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে নীলফামারীর সৈয়দপুরে এক অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্যের স্ত্রীর কেনা সম্পত্তি দখলের চেষ্টার অভিযোগ মিলেছে। এর পূর্বে ওই জমি দখলে নেয়ার চেষ্টাকালে পুলিশ হস্তক্ষেপ করায় মহলটি পিছু হটলেও ফের তা দখলে নেয়ার অভিযোগে থানায় একটি মামলা হয়েছে।

সূত্রমতে, উপজেলার বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের বাড়াইশালপাড়াস্থ (নয়াপাড়া) সৈয়দপুর-পার্বতীপুর মহাসড়ক সংলগ্ন সাবেক ৩৯৯ খতিয়ানের ৪৯৭ ও ১৬০ হাল দাগে যথাক্রমে সাড়ে ৫ শতক ও সোয়া ৯ শতক জমি বিগত ২০০১ সালে ক্রয় করেন ওই গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য আলী নেওয়াজ এর স্ত্রী লতিফা বেগম। সৈয়দপুর সেনানিবাস সংলগ্ন ওই জমি কবলা দলিল করা হলেও ওই এলাকার প্রভাবশালী একটি মহল তা বারবার দখলে নেয়ার চেষ্টা করে। এ ব্যাপারে আদালতে লতিফা বেগম একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার রায় ও ডিগ্রীমূলে আদালত চলতি বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারী উক্ত জমি ডিগ্রীদার পক্ষকে বুঝিয়ে দেন। কিন্তু দু’দিন পরে ওই গ্রামের শাহানাজ পারভীন, সরোয়ার হাবীব সাজু ও চৌমুহনী বাজারের জীম টেলিকমের মালিক বাবুল হোসেন দলবদ্ধ হইয়া আদালত কর্তৃক বুঝিয়ে দেয়া ওই সম্পত্তি দখলে নেয়ার উদ্দেশ্যে আদালতের দেয়া সীমানা পিলার, চিহ্নিত লাল পতাকা ও বেড়া উপড়ে ফেলে দেয়। এ সময় লতিফা বেগম সৈয়দপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী দায়ের করেন। এরই প্রেক্ষিতে সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সহিদার রহমান ও তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ৩১ মার্চ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী পূর্ণরায় লতিফা বেগমকে ওই জমির সীমানা চিহ্নিত পূর্বক বুঝিয়া দেন। ওই রাতেই থানা পুলিশের বুঝিয়ে দেয়া সীমানা বেড়া ফের উপড়ে ফেলে দিয়ে দখলের চেষ্টা করেন চিহ্নিত মহলটি। এ সময় লতিফা বেগম বাঁধা প্রদান করিলে প্রতিপক্ষ তাকে খুন-জখম করার উদ্দেশ্যে ধারালো বটি লইয়া তাড়া করেন। স্থানীয় লোকের সহায়তায় তিনি রক্ষা পান। এ ঘটনায় লতিফা বেগম নিজে বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন।

লতিফা বেগম সিসি নিউজকে জানান, দখলে নেয়ার চেষ্টাকারীরা প্রভাবশালী হওয়ায় স্বামী-সন্তান নিয়ে নিরাপত্তাহীণতায় ভুগছি। যে কোন সময় তারা আমাদের ক্ষতি সাধন করতে পারে।

এ প্রসঙ্গে সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সহিদার রহমান সিসি নিউজকে জানান, প্রাপ্ত অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ