• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৫:১৬ অপরাহ্ন |

নিয়মিত খাবারে সারবে মাথা ব্যাথা

 

m

স্বাস্থ্য ডেস্ক:  সর্দি, মাথা ব্যাথা, হালকা জ্বরের জন্য আমরা নিজেরাই চিকিৎসকের ভুমিকা পালন করে থাকি। কিন্ত  খাবার-দাবারের কিছু নিয়ম সঠিকভাবে পালন করতে পারলে এসব রোগ থেকে সম্পূর্ণভাবে দূর করতে পারবেন । এ বিষয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে হাফিংটন পোস্ট।

মাথা ব্যথার অন্যতম কারণ হলো খাবারের প্রতি সংবেদনশীলতা। আপনার মাথা ব্যথা স্থায়ীভাবে দূর করার জন্যও এ বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। নিউ ইয়র্কের দ্য মরিসন সেন্টারের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ রবিন বার্জিন বলেন, ‘কিছু মানুষের ক্ষেত্রে পরিষ্কার খাবার খাওয়া ও অস্বাস্থ্যকর খাবার বাদ দিলেই ঘন ঘন মাথাব্যথা সমস্যা দূর হয়ে যায়।

মাথা ব্যথায় দায়ী সবচেয়ে সাধারণ খাবারের মধ্যে রয়েছে চিনি, ক্যাফেইন, কৃত্রিম চিনি, প্রক্রিয়াজাত খাবার। যেসব খাবারে রং ও কৃত্রিম প্রিজারভেটিভ রয়েছে এসব দুগ্ধজাত সামগ্রী ও গ্লুটেনও রয়েছে তালিকায়।

মাইগ্রেনের রোগীদের দেখেন এমন একজন ডাক্তার ম্যাকডগেল। তিনি এ বিষয়ে একমত যে, খাবারের কারণেই সবচেয়ে বেশি মাথা ব্যথা হয়। এসব মাথা ব্যথার কিছু হয় খাবারে অ্যালার্জির কারণে। সবচেয়ে উৎসাহের বিষয় হলো দীর্ঘদিন থেকে মাইগ্রেনে ভোগা শতকরা ৭০ থেকে ৯০ ভাগ রোগীই সমস্যাপূর্ণ খাবারটি নির্ণয় করতে পারলে দুই সপ্তাহের মধ্যে আরোগ্য লাভ করে।

এ ছাড়াও মাথা ব্যথার পেছনে মানসিক চাপ বা স্ট্রেস-এর ভূমিকা রয়েছে।অনেকের চাকরিতে চাপের কারণে মাথা ব্যথা হয় কিন্তু চাকরি ছাড়াও সম্ভব হয় না।এক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হলো, আপনার চাপকে কমানোর চেষ্টা করুন নানা কাজের মাধ্যমে। কর্মক্ষেত্রে সারাক্ষণ কাজে লেগে থাকবেন না। পাঁচ মিনিটের জন্য হলেও বিশ্রাম করে নিন।

এ ছাড়াও আরেকটি সমস্যা হলো মাংশপেশির টেনশন। দীর্ঘ সময় ডেস্কে বসে থাকলে এ সমস্যা হতে পারে।

এসব সমস্যা মোকাবেলায় মেডিসিন বিশেষজ্ঞ রবিন বার্জিন কয়েকটি বিষয়ের উল্লেখ করেছেন। এর মধ্যে রয়েছে প্রত্যেক ঘণ্টায় আপনার অফিসের বাইরে পাঁচ মিনিট হেঁটে আসুন। এটা বিপাক ক্রিয়ায় যেমন প্রভাব ফেলবে তেমন আপনার মাংসপেশিতে আরাম দেবে ও পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনবে।

মাথা ব্যথার কিছু কারণে আবার নিজের হাত তেমন থাকে না। এর মধ্যে রয়েছে জেনেটিক্স ও হরমোন। হরমোনের ভারসাম্যহীনতা অনেক সময় মাথা ব্যথার সৃষ্টি করতে পারে। এর মধ্যে রয়েছে মেয়েদের ঋতুকালীন মাথা ব্যথা।

 

যেসব খাবারে মাথা ব্যথা হয়-

১. পুরনো পনির

এটা মাথা ব্যথার অন্যতম কারণ। পনির পুরনো হয়ে গেলে তাতে টাইরামাইন নামে একটি উপাদান তৈরি হয়, যা মাথা ব্যথা সৃষ্টি করে। পনির যতো পুরনো হবে, মাথা ব্যথার উপাদানটি ততো বাড়বে।

২. অ্যালকোহল

অ্যালকোহল পান করলে মাথা ব্যথা হতে পারে। এ ছাড়াও এতে অনেকের অ্যালার্জি ও অ্যাজমা হয়।

৩. নাইট্রেটস

প্রক্রিয়াজাত মাংস ও সয়া সসে ব্যবহৃত উপাদানে থাকে নাইট্রেটস, নাইট্রিস ও এমএসজি। এগুলো রক্তের সংকোচনের জন্য দায়ী। অনেকের ক্ষেত্রে এগুলো মাথা ব্যথার কারণ।

৪. কলা

কলাতে টাইরামাইন নামে একটি উপাদান থাকে। এটি প্রায়ই মাথা ব্যথার কারণ হয়। তবে আপনার যদি মাথা ব্যথার সমস্যা না থাকে তাহলে এতে সমস্যার কিছু নেই।এ ছাড়াও টাইরামাইন থাকতে পারে কিসমিস ও পেপেতে।

৫. বাদাম

বাদামেও থাকে মাথা ব্যথায় দায়ী টাইরামাইন নামে উপাদানটি। তবে এর পরিমাণ খুবই সামান্য।

৬. ক্যাফেইন

ক্যাফেইন চা বা কফিতে থাকে। এ উপাদানটি বেশি মাত্রায় গ্রহণ করলে মাথা ব্যথা হতে পারে। তবে এটি সামান্য পরিমাণে গ্রহণ করলে তা মাথা ব্যথা কমাতেও পারে।

মাথা ব্যথা উপশমকারী খাবার

১. ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড

মাথা ব্যথার যন্ত্রণা কমাতে পারে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড আপনার খাবারে সংযোজন। কয়েক ধরনের মাছ, বীজ ও সবুজ উৎসে থাকে এ উপাদানটি।

২. তরমুজ, শসা, টমেটো

পানিশূন্যতায় মাথা ব্যথা হয়। এজন্য পর্যাপ্ত পানি পান করা উচিত। আর তরমুজে রয়েছে প্রচুর জলীয় উপাদান। এটি ছাড়াও শসা ও টমেটোও মাথা ব্যথা দূর করতে সাহায্য করতে পারে। তাজা ফলমূল ও শাক-সব্জির মাঝে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম ও নানা খনিজ উপাদান। ফলে এগুলো মাথা ব্যথা দূর করতে সাহায্য করে।

৩. পালং শাক

পালং শাক ও এ ধরনের সবুজ শাকে রয়েছে রিবোফ্লাভিনের মতো উপাদান। এগুলো মাইগ্রেনের ব্যথাও উপশম করে।

 

 

 

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ