• শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০৩:৫৬ পূর্বাহ্ন |

বড়পুকুরিয়া খনি শ্রমিকদের দাবি মেনে নিয়েছে কর্তৃপক্ষ

parbotipurদিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি কর্তৃপক্ষ নতুন জনবল কাঠামো বাতিল করে পুরনো জনবল কাঠামো পুনর্বহালে শ্রমিকেদের দাবি মেনে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিন উদ্দিন বুধবার রাত সোয়া ৯টার দিকে দাবি মেনে নেয়ার এ  ঘোষণা দেন। এ ঘোষণার পর শ্রমিকরা অবরোধ প্রত্যাহার করায় অবরুদ্ধ কর্মকর্তারা মুক্তি পেয়েছেন।
আন্দোলনরত শ্রমিকরা জানায়, বুধবার দ্বিতীয় দিনের মতো বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিকরা প্রশাসনিক ভবন অবরোধ করে রাখে। এতে খনির প্রায় ৬০-৬৫ জন কর্মকর্তা অবরুদ্ধ থাকেন। রাত সোয়া ৯টার দিকে খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিন উদ্দিন আন্দোলনরত শ্রমিকদের জানান, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের দাবি মেনে নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নতুন জনবল কাঠামো বাতিল করা হবে। সেই সঙ্গে পুরনো জনবল কাঠামো পুনর্বহাল করা হবে বলে জানান ব্যবস্থাপনা পরিচালক।
ব্যবস্থাপনা পরিচালকের এ ঘোষণার পর শ্রমিকরা তাদের অবরোধ প্রত্যাহার করেছে। এতে টানা দুই দিন অবরুদ্ধ থাকার পর খনির ৬০-৬৫ জন কর্মকর্তা মুক্ত হলেন।
উল্লেখ্য, গত রোববার শ্রমিকরা নতুন জনবল কাঠামো বাতিল করে পূর্বের জনবল কাঠামো বহালের জন্য ৪৮ ঘন্টার লিখিত আলটিমেটাম দিয়েছিল খনি কর্তৃপক্ষকে। বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি ওয়াজেদ আলী বলেন, ২০০২ সালের ২ এপ্রিল প্রনীত খনির জনবল কাঠামো অনুযায়ী খনিতে কর্মকর্তা কর্মচারী ও শ্রমিক মিলে ২৬৭৪ জন কর্মকর্তা কর্মচারী থাকার কথা। সেখানে বর্তমানে কর্মরত আছেন মাত্র ১৩৫০জন। তার পরেও খনি কর্তৃপক্ষ পূর্বের জনবল কাঠামো বাতিল করে চলতি বছরের ২৩ জানুয়ায়ী ৭৩৮ জনের একটি জনবল কাঠামো চুড়ান্ত করে। এতে খনির শ্রমিকদের চাকুরী হারানোর আশংকা দেখা দেয়। ফলে শ্রমিক আন্দোলনে গিয়ে ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেয়  এবং পরে তাদের দাবি মেনে না নেয়ায় শ্রমিকরা প্রশাসনিক ভবন ঘেরাও করে কর্মকর্তাদের অবরুদ্ধ করে রাখে। দু’দিন পর কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের দাবী মেনে নেয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ