• বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৯:২০ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা: প্রধান আসামি জিতু গ্রেপ্তার সৈয়দপুরে কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় বিজিবি সদস্যকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ শ্রেণিকক্ষে রাবি শিক্ষিকাকে মারতে গেলেন ছাত্র! অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযােগ এনজিও’র দুই কর্মকর্তা গ্রেফতার জলঢাকায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার রোধকল্পে সমন্বিত কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নে কর্মশালা ইউনূস, হিলারি ও চেরি ব্লেয়ারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার দাবি সংসদে মার্কেট-শপিং মলে মাস্ক বাধ্যতামূলক করে প্রজ্ঞাপন খানসামায় র‌্যাবের অভিযান ইয়াবাসহ দুই মাদককারবারী গ্রেপ্তার ডোমার ও ডিমলায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগ নিয়ে কর্মশালা নীলফামারীতে ৫ সহযোগীসহ কুখ্যাত চোর ফজল গ্রেপ্তার

রানীর বিয়ে : কিছু প্রশ্ন ও তার উত্তর

rani-mukherjeeবিনোদন ডেস্ক: সব জল্পনা-কল্পনা থেমে গেছে। এখন চলছে উৎসব শুরুর প্রস্তুতি। গত ২১ এপ্রিল রানী ও আদিত্যের বিয়ের পরে মিডিয়াও এখন তাদের সম্পর্কের পোস্টমর্টেম করতে ব্যস্ত। ওদিকে সদ্য বিবাহিত দম্পতি এ সব থেকে বহু দূরে, ইটালিতে নিশ্চিন্তে সময় কাটাচ্ছেন। আর বিবাহত্তোর সময়ে তাদের সঙ্গে আছেন চেনাজানা, বন্ধুবান্ধবরা।

তবে ভারতের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা গেছে, রানীর এ বিয়ে অকস্মাৎ নয়। একেবারে ভেবেচিন্তে, রীতিমতো প্ল্যান করে ইটালিতে গিয়ে বিয়ের ঘোষণা দিয়েছেন যশরাজ ফিল্মস-এর কর্ণধার আদিত্য চোপড়া আর রানী মুখার্জি। অর্থাৎ, টিনসেল টাউনে কাজ করতে গিয়ে বাঙালি মেয়েরা বিয়ে করে মুম্বাতেই সংসারি হয়, তার যে লম্বা তালিকা আছে তাতে যোগ হয়েছে মুখার্জি বাড়ির এ কন্যার নাম। এবং রানীর কথামতো তিনি এই মুহূর্তে প্রস্তুতি নিচ্ছেন তার বরাবরের স্বপ্ন- বিবাহিত জীবন-উপভোগ করতে।

মঙ্গলবার সকালেই রানী জানিয়েছিলেন, ‘রোমের কাছে ইটালিয়ান কান্ট্রিসাইডে এই বিয়ের অনুভূতি খুব সুন্দর ছিলো। যা ছিলো তার আজীবনের স্বপ্ন। তিনি আরও বলেন, ‘বিয়ের মুহূর্তগুলো আমার জীবনে রূপকথার মতোই মনে হলো, আর আমি সেই রূপকথায় গা ভাসিয়ে দিলাম। এটা সত্যিই সেই রূপকথার গল্প, যার জন্য আমি সারা জীবন অপেক্ষা করে ছিলাম।’

রানী মুখার্জির কাছ থেকেই জানা গেছে, বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন দুই পরিবারের কিছু সদস্য। যারা এই বিয়েতে উপস্থিত থাকার জন্য আগেই উড়ে গিয়েছিলেন রোম-এ।

আদিত্য চোপড়ার ভাই উদয় চোপড়াও উপস্থিত ছিলেন বিয়ের অনুষ্ঠানে, যিনি পৌঁছান লস অ্যাঞ্জেলস থেকে। তিনি মিডিয়ার কাছে বলছেন, ‘এই বিয়ে একেবারেই একান্ত একটি পারিবারিক অনুষ্ঠান ছিল। কোনো বহিরাগতরাই প্রবেশের অনুমতি ছিল না এই বিয়েতে। শুধু পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সঙ্গে কিছু ঘনিষ্ঠ বন্ধু।’

এদিকে এ আলোচিত বিয়ে নিয়ে গল্পের ডালপালাও গজিয়েছে অনেক। বহু পত্রিকাতেই খবর বেরিয়েছে ‘বিয়েটা যে ২১ এপ্রিল ইটালির কান্ট্রিসাইডে ঘটেনি, সে বিষয়ে তারা নিশ্চিত। আংটি বদল হয়েছে ঠিকই, সঙ্গে পরিবার আর বন্ধুবান্ধব নিয়ে নিজেদের মতো হইচই, কিন্তু আসল ‘বিয়েটা আগেই হয়ে গেছে বলেই চোপড়া পরিবারের ঘনিষ্ঠ মহলের মত। এবং সেটা বিদেশে নয়, স্বদেশেই।’

এতদিনে, দেশের পাপারাজ্জিদের নাগালের বাইরে গিয়ে একটা অনুষ্ঠানের পর ব্যাপারটাকে ঘোষণা করে করা হয়েছে মাত্র। এর পিছনে যুক্তি খুঁজতে অনেকেই বিয়ে নিয়ে রানীর বক্তব্য থেকেই খুঁজছেন প্রমাণ। রানী বলছেন, ‘আকস্মিক নয়, একেবারে প্ল্যান করেই ঘটেছে ঘটনাটা!’

রানী আরও বলেছেন, `আমি যশ আঙ্কেলকে (চোপড়া) ভীষণভাবে মিস করেছি। ভয়ঙ্করভাবে মিস করেছি। কিন্তু আমি জানি আঙ্কেলের আশীর্বাদ আমাদের সঙ্গে আছে। আমার মনে হয় উনি আমাদের বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন, এবং আমাদের আশীর্বাদ করেছেন। উনি আমাকে বলেছিলেন, তার ভালোবাসা সবসময় আমার এবং আদি’র (এই নামেই রানী মুখার্জি ডাকেন তার স্বামীকে) সঙ্গে থাকবে।’ কিন্তু ঠিক কী কী হয়েছিল এই বিয়েতে?

রানী মুখার্জি কাছ থেকেই জানা গেছে, রূপকথার এই বিয়ের গল্প কেমন, তা প্রকাশ্যে আসবে খুব শিগগিরি। রানী বলছেন, ‘আমি যখন ছোট ছিলাম, তখন থেকেই আমার মনে হত, এমনই রূপকথার গল্পের মতোই বিয়ে হবে আমার। আর এখন বিয়ের পর বুঝতে পারছি, আমার জীবনে সেটাই সত্যি হয়েছে। এর জন্য আমি ঈশ্বরের কাছে কৃতজ্ঞ। বিয়ের পর আমার জীবনে যে অধ্যায় শুরু হচ্ছে, সেটাও এমন রূপকথার মতোই হোক, সেই প্রার্থনাই করছি।’

নবদম্পতির ঘনিষ্ঠ সূত্রে খবর, রানী মুখার্জি এবং আদিত্য চোপড়া দু’জনেই এখন ক’দিনের জন্য ইতালিতে থাকবেন। এরপর তারা উড়ে যাবেন সুইস অ্যাল্পস বা প্যারিসে। মুখার্জি বাড়ির কন্যা অবশ্য ইউরোপের কোনও শহর নয়, অদিত্যকে ভীষণভাবে বোঝাবার চেষ্টা করছেন ইউরোপিয়ান কান্ট্রিসাইড-এই হনিমুন কাটানোর ব্যাপারটা। হানিমুনে কোথায় যাবেন তারা? সেটা গোপনই রাখতে চান দু’জনে। তবে কেউ যদি এই নবদম্পতিকে সুইস অ্যাল্পস-এ দেখেন আগামী ক’দিনের মধ্যে, তা হলেও অবাক হওয়ার কিছু নেই। মুম্বাইয়ে ফিরে আসার পর রানী মুখার্জি তার বিয়ের রিসেপশন পার্টি থ্রো করবেন তার সহকর্মী এবং বন্ধুদের জন্য। বলাই বাহুল্য আগামী দিনে মুম্বাই শহরের সবচেয়ে বড়, এবং সবচেয়ে তারকাখচিত পার্টি হতে চলেছে এই রিসেপশন। এখনও পর্যন্ত যা শোনা যাচ্ছে, আন্ধেরির যশরাজ কমপাউন্ডস অথবা বান্দ্রার তাজ ল্যান্ডস এন্ড-এই হবে এই রিসেপশন।

মারদানি ছবির জন্য রানী মুখার্জি কলকাতায় এলে, সেখানেও তার জন্য রিসেপশন হতে পারে বলে ভাবছেন রানীর ঘনিষ্ঠজনরা। যেহেতু রানী মুখার্জির অনেক আত্মীয়ই থাকেন কলকাতায়। তবে কলকাতায় কোনো রিসেপশন হলে, সেটা রানী-ই যে দেবেন, এমন কোনো দাবি এই মুহূর্তে করা যাচ্ছে না।

কিছু প্রশ্ন ও তার উত্তর
প্রশ্ন : রানী মুখার্জির সঙ্গে অদিত্য এবং উদয় চোপড়ার মা, প্যাম-এর সম্পর্ক নাকি নরমে-গরমের। সে ক্ষেত্রে বিয়ের পর রানী আর আদিত্য থাকবেন কোথায়?
উত্তর: মুম্বাইতে ফিরে রানী আদিত্যর বাড়িতেই বসবাস শুরু করবেন। তবে তিনি কৃষ্ণা কটেজ (জুহুতে রানীর বাসস্থান) এবং আদিত্য চোপড়ার বাড়ির মধ্যে ভাগাভাগি করে থাকবেন।

প্রশ্ন : এ রকম কেন?
উত্তর: কারণ রানীর বাবা ভীষণ অসুস্থ্য। বিয়ে হয়ে গেলেও বাবার স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখবেন কন্যা, যেমন রেখেছেন এর আগেও। সে কারণেই এই সিদ্ধান্ত।

প্রশ্ন : বিয়ে হয়ে গেল, এরপরও কি রানী অভিনয় চালিয়ে যাবেন?
উত্তর: এই মুহূর্তে যশ রাজের ব্যানারে রানী মারদানি ছবির শুটিং করছেন। সেটা শেষ হলে অভিনয় থেকে তিনি নেবেন লম্বা একটা ব্রেক। তবে তার ঘনিষ্ঠজনরা এখনও বলতে পারছেন না, সে ব্রেকটা বরাবরের জন্য, না সাময়িক। কারণ, এই বিষয়ে রানী এ মুহূর্তে চিন্তা-ভাবনা করতে চাইছেন না।

প্রশ্ন : বিয়ের অনুষ্ঠানটা ঠিক কখন হলো?
উত্তর : ইতালীয় সময় সোমবার রাত ৮টা থেকে ১১টার মধ্যে। অর্থাৎ ভারতীয় সময় সোমবার, রাত ১১টা নাগাদ অনুষ্ঠান শুরু হয়।

প্রশ্ন : অনুষ্ঠানে তখন কে কে উপস্থিত ছিলেন?
উত্তর : রানীর মা, উদয় চোপড়া এবং রানী ও আদিত্য চোপড়ার কয়েকজন বন্ধু।

এদিকে কলকাতায়….
রানীর মাসি, অর্থাৎ দেবশ্রী রায় তখনও সংসদের ভেতরে। অগত্যা, তার ভাই মৃগাঙ্ক রায় যা বললেন:
‘আমরা খবরটা পেয়ে খুবই খুশি৷! আমার বোন (রানী মুখার্জির মা) ফোন করে জানিয়েছেন, এই বিয়ের কথা। সোমবার রাতেই। তবে বিস্তারিত তথ্য আর কিছু জানতে পারিনি, কারণ ওরা সকলেই বাইরে। মুম্বাইয়ে ফিরে এলে রিসেপশনে নিশ্চয়ই যাব। রানীর বিয়ে যে ঠিক হয়েছিল, সে কথা জানতাম না। আসলে জামাইবাবু (রানীর বাবা) গত কয়েকদিন ধরে অসুস্থ্য। সে কারণেই ওদের বাইরে যাওয়ার কথা হয়েছিল। সেইমতোই বাইরে গিয়েছিল। তারপর এই অনুষ্ঠানের কথাও ঠিক হয়েছে নিশ্চয়ই। আমরাও চেষ্টা করছি, ওদের সঙ্গে যোগাযোগ করার, কিন্তু এখনও ধরতে পারিনি। অপেক্ষা করছি। বোন নিশ্চয় ফোন করবে।’

ভারতের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও অনলাইন যখন এভাবেই নানা গল্প তৈরি করছেন রানী মুখার্জির বিয়ে নিয়ে, তখন আসল ঘটনা জানার জন্য অপেক্ষা ছাড়া আর কিই বা করার আছে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া, হিন্দুস্তান টাইমস, এনডি টিভি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ