• বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১২:৩৫ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
ইউনূস, হিলারি ও চেরি ব্লেয়ারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার দাবি সংসদে মার্কেট-শপিং মলে মাস্ক বাধ্যতামূলক করে প্রজ্ঞাপন খানসামায় র‌্যাবের অভিযান ইয়াবাসহ দুই মাদককারবারী গ্রেপ্তার ডোমার ও ডিমলায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগ নিয়ে কর্মশালা নীলফামারীতে ৫ সহযোগীসহ কুখ্যাত চোর ফজল গ্রেপ্তার সৈয়দপুরে তথ্যসংগ্রহকারী ও সুপারভাইজারদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত জয়পুরহাট বিনা খরচে আইনের সেবা পেতে সেমিনার শিক্ষক লাঞ্চনা ও হেনস্তার বিরুদ্ধে সৈয়দপুরে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর প্রতিবাদ সমাবেশ সৈয়দপুরে শহীদ আমিনুল হকের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে বিনামূ‌ল্যে বীজ ও সার বিতরণ

২০৮ হজ এজেন্সির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা

Hajঢাকা: ২০১৩ সালে হজে অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা এবং হাজি ফেরত না আসার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ২০৮ হজ এজেন্সির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছে মন্ত্রণালয়। এসব শাস্তির মধ্যে রয়েছে, লাইসেন্স বাতিল, লাইসেন্স স্থগিত, জামানত বাজেয়াপ্ত ও বিভিন্ন অংকের আর্থিক জরিমানা।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে ধর্মসচিব চৌধুরী মো. বাবুল হাসান এক সংবাদ সম্মেলনে এ শাস্তির কথা জানান।

সচিব জানান , হজের নামে মানবপাচারের মতো গুরুতর অভিযোগে আটটি এজেন্সির লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে। এসব এজেন্সিকে আর্থিক জরিমানার পাশাপাশি তাদের জামানতও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

ক্যাসকেড ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস-এর জামানাত বাজেয়াপ্ত ও লাইসেন্স বাতিল করার পর এক কোটি ৮২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ এজেন্সির ৯১ জন হজযাত্রী গত বছর ফিরে আসেনি।

সচিব বলেন, এছাড়া ৭৪ জন হজযাত্রী ফিরে না আসায় দি ইউনাইটেড ট্রাভেলসকে এক কোটি ৪৮ লাখ টাকা এবং ৫২ জন হাজি ফিরে না আসায় জানুস ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরসকে এক কোটি ৪ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গত বছর হজে গিয়ে বিভিন্ন এজেন্সির মোট ২৬২ জন হজযাত্রী ফিরে আসেননি বলেও জানান তিনি।

গুরুতর কয়েকটি অনিয়ম প্রমাণিত হওয়ায় পাঁচটি এজেন্সিকে পাঁচ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া কম গুরুতর অপরাধের জন্য পাঁচ এজেন্সিকে চার লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। হাজিদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ১৭ এজেন্সিকে তিন লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে বলেও জানান সচিব।

বাড়ি পরিদর্শনে ক্রুটি পাওয়ায় নয়টি এজেন্সিকে আড়াই লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। বাড়ি পরিদর্শনের সময় সহযোগিতা করেনি এমন ১২১টি এজেন্সিকে দেড় লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

ধর্ম সচিব বলেন, আরো ছোটখাটো অপরাধের জন্য পাঁচটি এজেন্সিকে বিভিন্ন অংকের আর্থিক জরিমানা এবং বিভিন্ন মেয়াদে হজ লাইসেন্স স্থগিত করা হয়েছে। জরিমানাসহ সৌদি সরকারের নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত হজ লাইসেন্স স্থাগিত করা হয়েছে ২০টি এজেন্সির। সৌদি সরকারের নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত ১৮টি এজেন্সির হজ লাইসেন্স স্থগিত রাখার কথা জানানো হয়েছে।
ধর্ম সচিব বলেন, গত বছরের হজে মোট ২১৭টি এজেন্সি অভিযুক্ত হলেও এরমধ্যে নয়টি এজেন্সিকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বাবুল হাসান বলেন, গত বছরের হজ মৌসুমে এজেন্সিগুলোর বিরুদ্ধে সৌদি আরব ও বাংলাদেশে আনীত অভিযোগের বিষয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটি শুনানি গ্রহণ করেন। কমিটি গত ৪ থেকে ৬ এপ্রিল ১৯৩টি এজেন্সিকে অভিযোগের বিষয়ে শুনানিতে হাজির হতে নির্দেশ প্রদান করেন। সৌদি সরকারও ৪৬টি এজেন্সিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়।

গত বছরের ১৪ অক্টোবর পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হয়। ১৬ অক্টোবর কোরবানির মধ্যদিয়ে শেষ হয় হজের আনুষ্ঠানিকতা।

হজ অফিস সূত্রে জানা গেছে, গত বছর ৮৭ হাজার ৮৫৪ জন হজ পালনের জন্য সৌদি আরব যান। ৬২৮টি হজ এজেন্সির মাধ্যমে বেসরকারি হজযাত্রীরা হজ পালন করে।

রাইজিংবিডি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ