• রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০২:১৬ পূর্বাহ্ন |

বাংলাদেশের মুসলমান অনুপ্রবেশকারীদের বিরুদ্ধে বিজেপি

BJPসিসি নিউজ: কেবল বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়া মুসলমান অনুপ্রবেশকারীদের বিরুদ্ধে ভারতীয় জনতা পার্টি বিজেপি। অন্যদের বিরুদ্ধে তারা নমনীয়। মঙ্গলবার দলটির পশ্চিমবঙ্গ শাখার সাধারণ সম্পাদক রাহুল সিনহা এমনটাই জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, বাংলাদেশে যারা সংখ্যালঘু অর্থাৎ হিন্দু, বৌদ্ধ, চাকমা, খ্রীষ্টান তারা সাধারণত সেখান থেকে ভারতে আসেন, তার কারণ ধর্ম-কর্ম-জীবন-সম্পত্তি ও বাড়ির মেয়েদের ইজ্জত সুরক্ষিত নয়। তাই তারা এখানে আশ্রয় নিতে আসছে।
আর ইউএনও এর ভাষাতেও তারা শরণার্থী। তাদের আশ্রয় দেওয়া পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্রের কর্তব্য।
সাম্প্রদায়িক মনোভাবসম্পন্ন এ নেতা আরো বলেন, ওপার বাংলা থেকে যে সকল মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষ এপার বাংলায় আসছেন, তাদের ধর্ম-জীবন-মেয়েদের ইজ্জত বিপন্ন নয়।
তার মতে, মুসলমান সম্প্রদায়ের যারা আসছে তারা শুধুমাত্র আর্থিক কারণে আসছে। আমাদের দেশের আর্থিক বোঝার সৃষ্টি করছে।
সুতরাং ওপার বাংলাদেশ থেকে এপার বাংলায় যে মুসলমানরা আসছেন, সেই অনুপ্রবেশকারীদের তাড়ানোর কাজ করবে বিজেপি।
এদিকে বিজেপি ক্ষমতায় এলে বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশকারীদের কিছুটা হলেও ঠেকানো সম্ভব হবে, রোববার শ্রীরামপুরের জনসভায় বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র ঠিক এমন মন্তব্যই করেছিলেন।
কিন্তু সোমবার তার এই বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানান, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। তিনি বলেন, বাংলাদেশের বিপদগ্রস্তরা সব সময়ই বাংলাদেশে আশ্রয় পাবেন। প্রত্যেকেই সুবিধা-অসুবিধায় পড়ে অন্য জায়গায় আশ্রয় নেন। তা গুজরাট হোক, অসম হোক বা বাংলাদেশ। আমাদের প্রতিবেশি দেশ বাংলাদেশকে আমরা যথেষ্ট ভালোবাসি। তারা যদি কোনো বিপদে পড়েন তাহলে আমরা তাদের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে পারিনা। যারা ৭১-এর সময়ে ভারতে এসেছেন তাদের অধিকার ও যারা এখনো বিপদে পড়ে আসবেন তারাও ভারতের বাঙালি বলে গণ্য হবেন।
আর মুখ্যমন্ত্রীর সেই বক্তব্যেরই খ-ন করলেন মোদী সেনাপতি রাহুল সিনহা। রাহুল সিনহা বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নরেন্দ্র মোদীর সম্পর্কে কুৎসা রটাচ্ছেন।
উৎসঃ   শীর্ষ নিউজ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ