• মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০২:৫৪ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :

নওগাঁয় অপহরণকারী চক্রের ১১ সদস্যকে আটক

opohoronনওগাঁ: নওগাঁর মান্দা উপজেলার মিটাপুর বাজারে ভটভটি দিয়ে পথরোধ করে মাইক্রোবাসসহ অপহরণকারী চক্রের ১১ সদস্যকে আটক করেছেন গ্রামবাসী। পরে তাদের গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করা হয়।

এ সময় অপহরণকারীদের হেফাজত থেকে অপহৃত কাপড় ব্যবসায়ী বজলুর রশিদকে (৩৫) আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় দিকে এ ঘটনা ঘটে।

অপহরণকারী সদস্যরা হলো-নওগাঁ সদর উপজেলার চকপ্রাচী গ্রামের ফারুক হোসেন, বেলাল হোসেন, শৈলগাছি গ্রামের কাজল হোসেন, সুজন হোসেন, হাসান আলী, ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের আল আমিন, চোকখোপা গ্রামের নাসির উদ্দিন ও শফিকুল ইসলাম, পত্নীতলা উপজেলার হরিরামপুর গ্রামের শামীম হোসেন ও রাব্বি এবং একই উপজেলার পাটিচলা গ্রামের মাইক্রোবাসচালক মেহেদী হাসান।

এদের সবার বয়স ১৯ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মান্দা থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আবদুর রাজ্জাক জানান, মান্দা উপজেলার মৈনম বাজারের বিসমিল্লাহ ক্লোথ স্টোরের মালিক বজলুর রশিদ বৃহস্পতিবার দোকান থেকে রামপুর গ্রামের বাড়ি যাচ্ছিলেন। এ সময় অপহরণকারীরা ফকিরপাড়া ঈদগাহ মাঠের কাছে কালো রঙের একটি মাইক্রোবাস দিয়ে বজলুর রশিদের পথরোধ করে। একপর্যায়ে ওই ব্যবসায়ীকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে পাজরভাঙ্গা হয়ে নওগাঁ শহরের দিকে যাবার চেষ্টা করে।

ঘটনাটি দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা তাদের পিছু ধাওয়া করেন। দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার মিঠাপুর বাজারের লোকজন রাস্তায় ভটভটির মাধ্যমে বেরিকেড দিয়ে ১১ অপহরণকারীকে আটক করেন।

সংবাদ পেয়ে নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কফিল উদ্দিন ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মাহফুজ আফজাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

আটককৃতদের থানা হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কফিল উদ্দিন।

এ অপহরণ ঘটনার সঙ্গে অন্য কোনো বিষয় আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কফিল উদ্দিন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ