• শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০৫:০৮ পূর্বাহ্ন |

মৌসুমের শেষ ম্যাচে বড় জয় পেয়েছে ম্যানইউ

Footballখেলাধুলা ডেস্ক: ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে তরুণ স্ট্রাইকার জেমস উইলসনের জোড়া গোলে হাল সিটিকে ঘরের মাঠ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে মৌসুমের শেষ ম্যাচে ৩-১ গোলে পরাজিত করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এটি ছিল ইউনাইটেডের হয়ে উইলসনের প্রথম ম্যাচ। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ১৮ বছর বয়সী এ তরুণনর অভিষেক হলেও সার্বিয়ান ডিফেন্ডার ও অধিনায়ক নেমানজা ভিডিচের ছিল এটি শেষ হোম ম্যাচ। একই সাথে ঘরের মাঠে হয়তবা এটিই হবে অন্তবর্তীকালীন কোচ ও কিংবদন্তী খেলোয়াড় রায়ান গিগসের কোচ ও খেলোয়াড় হিসেবে বিদায়ী ম্যাচ। রবিবার সাউথহ্যাম্পটনের বিপক্ষে ম্যানইউর এ মৌসুমের শেষ ম্যাচ পরেই ফ্রি ট্রান্সফারে ভিডিচ ইতালিয়ান জায়ান্ট ইন্টার মিলানে যোগ দিচ্ছেন। আর একইসাথে ৪০ বছর বয়সী গিগসের সাথে ইউনাইটেডের চুক্তি শেষ হয়ে যাচ্ছে।
ম্যাচের শেষ বাাঁশি বাজার পরে মাঠের মধ্যেই গিগস গণমাধ্যমে বলেছেন, আমরা সবাই উপলব্ধি করতে পেরেছি এবারের মৌষুমটা বেশ কঠিন ছিল। সারা বছর ধরেই আমরা নিজেদের অর্জিত সাফল্যকে নষ্ট করেছি। কিন্তু সমর্থকরা সবসময়ই খেলোয়াড় ও স্টাফদের সাথে ছিল এবং আমি নিশ্চিত আগামীতে আমরা নিজেদের হারানো সাফল্য অবশ্যই ফিরিয়ে আনতে পারবো। যার কিছুটা ঝলক আজ আমরা দেখাতে পেরেছি। আমরা সবসময়ই আকর্ষণীয় ফুটবল খেলেছি। আমারে সমর্থন দিয়ে যাবেন, আশা করছি ভাল সময় দ্রুতই আসবে।
নিজেদের মাঠে শেষ ম্যাচে ইউনাইটেডের চমক ছিল ১৮ বছর বয়সী উইলসন। একইসাথে দলে ২০ বছর বয়সী টম লরেন্সকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছিল। মৌসুমের শেষে ঐতিহ্যগতভাবেই ইউনাইটেড এই চমক দেখিয়ে আসছে। এবার অবশ্য কোচ বিষয়ে আরেকটি নতুন মাত্রা যোগ হতে যাচ্ছে। স্যার এ্যালেক্স ফার্গুসনের যোগ্য উত্তরসূরী খোঁজার মিশনে এবার ইউনাইটেড ডাচ কোচ লুইস ভ্যান গালের দিকে নজড় দিয়েছে। গিগসের দায়িত্ব শেষে মৌসুম শেষ হবার সাথে সাথেই হয়ত তার নিয়োগের বিষয়ে চূড়ান্ত ঘোষনা আসতে পারে।
উইলসন দুটি করে গোল করার পরে তৃতীয় গোল এসেছে ডাচ ফরোয়ার্ড রবিন ফন পার্সির কাছ থেকে। এফএ কাপ ফাইনালিস্ট হাল সিটির পক্ষে সান্তনাসূচক গোলটি করেছেন ম্যাটি ফ্রায়াট। শেষ ম্যাচে সাউথহ্যাম্পটনকে হারানোর পাশাপাশি ইউনাইটেডকে অপেক্ষায় থাকতে হবে টটেনহ্যাম বনাম এস্টন ভিলার ম্যাচটির ফলাফলের ওপর। ওই ম্যাচে এস্টন যদি স্পারসদের হারাতে পারে তবে ইউরোপা লীগে খেলা নিশ্চিত করতে পারবে গিগস শিষ্যরা যা এই মৌসুমে বর্তমান প্রিমিয়ার লীগের চ্যাম্পিয়নদের একমাত্র প্রাপ্তি হবে।
ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে ম্যানইউর অধিনায়ক ভিডিচ বলেছেন, এখানে আমি অনেক স্মরণীয় মুহূর্ত কাটিয়েছি। আজ এ কথাগুলো বলতে গিয়ে আমি আবেগপ্রবণ হয়ে পড়ছি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো আমাকে দীর্ঘসময় সমর্থন করার জন্য আমি খেলোয়াড়, ম্যানেজার এবং সকল কোচকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। সবকিছুর জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ বিশেষ করে ভক্তদের। গত বছরগুলোতে তারাই আমার জন্য সবকিছু ছিল।
গিগস নিজেকে এবং ভিডিচকে বদলী হিসেবে রেখে মূল একাদশে উইলসন এবং লরেন্সকে নামিয়ে চমক সৃষ্টি করেছিলেন। যদিও ২২ মিনিটে ডিফেন্ডার ফিল জোনস কাঁধে আঘাত পেলে তার স্থানে ভিডিচ মাঠে নামেন। জোনসের এই ইনজুরি নি:সন্দেহে ইংলিশ কোচ রয় হজসনের জন্য দু:শ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ালো। আঘাতের পরপরই এই ডিফেন্ডারকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু উইলসনের ৩১ মিনিটের গোল সাময়িকভাবে গিগসকে স্বস্তি এনে দেয়।
আদনান জানুজিজের রাইট উইং থেকে ফ্রি-কিকের বল মারোনে ফেলাইনির হেড করলে তা ব্যাক পোস্টে লেগে ফেরত আসে। ফিরতি বলে বাম পায়ের হাফ ভলিতে ইউনাইটেডের পক্ষে নিজের প্রথম গোল করেন উইলসন। প্রথমার্ধে হাল অবশ্য একটিও ভাল শট করতে পারেনি। তবে বিরতির পরে হাল ম্যানেজার ও ইউনাইটেডের সাবেক অধিনায়ক স্টিভ ব্রুস ফ্রায়াট এবং ইয়ানিক সাগবোকে মাঠে নামালে সফরকারীরা কিছুটা আক্রমনাত্মক হয়ে উঠে।
তবে ৬১ মিনিটে উইলসন নিজের দ্বিতীয় গোল করে দলকে আরো এগিয়ে দেন। কিন্তু দুই মিনিট পরেই ফ্রায়াট ২৫গজ দুর থেকে জোড়ালো শটে এক গোল পরিশোধ করলে গিগস উইলসনের স্থানে ফন পার্সিকে নামান। এতে করে উইলসনের হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা নষ্ট হয়ে যায়। এরপর ৭০ মিনিটে লরেন্সের স্থানে গিগস নিজেই মাঠে নামলে সমর্থকরা দাঁড়িয়ে তাকে অভিবাদন জানায়। এটি ছিল কিংবদন্তী এ খেলোয়াড়ের ইউনাইটেডের পক্ষে ৯৩তম ম্যাচ। ৮৬ মিনিটে ফন পার্সি দারুন দক্ষতায় ম্যাচে তৃতীয় গোল করলে দারুন এক জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ