• বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১২:০৯ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
ইউনূস, হিলারি ও চেরি ব্লেয়ারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার দাবি সংসদে মার্কেট-শপিং মলে মাস্ক বাধ্যতামূলক করে প্রজ্ঞাপন খানসামায় র‌্যাবের অভিযান ইয়াবাসহ দুই মাদককারবারী গ্রেপ্তার ডোমার ও ডিমলায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগ নিয়ে কর্মশালা নীলফামারীতে ৫ সহযোগীসহ কুখ্যাত চোর ফজল গ্রেপ্তার সৈয়দপুরে তথ্যসংগ্রহকারী ও সুপারভাইজারদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত জয়পুরহাট বিনা খরচে আইনের সেবা পেতে সেমিনার শিক্ষক লাঞ্চনা ও হেনস্তার বিরুদ্ধে সৈয়দপুরে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর প্রতিবাদ সমাবেশ সৈয়দপুরে শহীদ আমিনুল হকের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে বিনামূ‌ল্যে বীজ ও সার বিতরণ

দিনাজপুরে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট চলছে

Dormogotদিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট চলছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে দীর্ঘ প্রায় দু’ঘন্টা সমঝোতা বৈঠকের পরেও কোন সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। বৃহসপতিবার দুপরে জেলা প্রশাসন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, বাস মালিক গ্রুপ ও পরিবহন শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে যৌথ সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
হাবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা জানায়, বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টায় শহরের কালিতলায় দিনাজপুর হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিার্থীদের বহনকারী একটি বাসের সাথে “সাগরিকা” নামক একটি যাত্রীবাহী বাসের সংঘর্ষ হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসটির জানালার দু’টি কাঁচ ভেঙে যাওয়ায় হাবিপ্রবির শিার্থীরা ওই বাসের কাউন্টারে গিয়ে প্রতিবাদ জানায়। এ সময় তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পরিবহন শ্রমিকরা প্তি হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিার্থীদের ও কর্মচারীদের উপর হামলা করে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩টি বাস ভাঙচুর করে। শ্রমিকদের হামলায় ৫/৬ জন শিক্ষার্থী আহত হয়। এই ঘটনার পর শিার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে গিয়ে অন্যান্য শিার্থীদের সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। বিক্ষুদ্ধ শিার্থীরা বিকেল ৫টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মহাসড়ক অবরোধ করে কয়েকটি যাত্রীবাহী বাস ভাঙচুর করে।
এ ঘটনায় বুধবার বিকেল ৫টা থেকে পরিবহন শ্রমিকরা অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট শুরু করে। ফলে দিনাজপুর থেকে ঢাকাগামী দূরপাল্লার বাস-কোচসহ সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে চরম দুর্ভোগের শিকার হয় যাত্রীরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে স্থানীয় প্রশাসন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ও আশপাশের এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজী, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে যৌথ সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু বেলা সোয়া ১টা হতে ৩ পর্যন্ত দু’ঘন্টা বৈঠকের পর কোন সমঝোতায় পৌঁছাতে পারেনি শংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ফলে পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পরিহবন শ্রমিকরা।
বৈঠকে জেলা প্রশাসক আহমদ শামীম আল রাজী, হাবিপ্রবির প্রক্টর অধ্যাপক ড. এটিএম শফিকুল ইসলাম, জেলা পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি ভবানী শংকর আগরওয়াল, সাধারণ সম্পাদক মোঃ ফিরোজ শাহ, জেলা মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এম রফিক, সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি, সহ-সভাপতি তৈয়ব আলী, সহ-সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন মুন্না, দপ্তর সম্পাদক সাইফুর রাজ চৌধরী, কার্যকরি সদস্য, শেখ বাদশাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
দিনাজপুর জেলা বাস মালিক গ্রুপের সাধারণ মোঃ ফিরোজ শাহ জানান, বৈঠকে কোন মিমাংসা না হওয়ায় পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত বহাল রয়েছে। সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি জানান, বৃহস্পতিবার দুপরে প্রশাসন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিক নেতাদের সাথে বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও ওই বৈঠকে কোন সমঝোতা হয়নি। দোষীদের আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহন না করা পর্যন্ত পরিবহন ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ