• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৯:০০ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খোলা বায়েজিদ আটক নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলামের শ্বশুড়ের ইন্তেকাল সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের গ্রন্থাগারের মূল্যবান বইপত্র গোপনে বিক্রি ফেনসিডিলসহ সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা গ্রেপ্তার এ সেতু আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে ৮ দিন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেতে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা সৈয়দপুরে বিস্কুট দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ গণমানুষের সমর্থনেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

নীলফামারীতে বিভাগীয় ক্ষেত মজুর সমাবেশ ১১ মে

OLYMPUS DIGITAL CAMERAনীলফামারী প্রতিনিধি: তিস্তার উজানে ব্যারাজ নির্মাণ করে ভারতের একতরফা পানি প্রত্যাহার ও সরকারের নতজানু নীতির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ক্ষতিপুরণ প্রদান এবং তিস্তার পানি ন্যায্য হিস্যার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে কমিউনিস্ট পার্টি বাংলাদেশ (সিপিবি) ও বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ)।
শুক্রবার দুপুরে নীলফামারী শহরের কালিবাড়ি মোড়ে সিপিবির অস্থায়ী জেলা কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন সিপিবি জেলা সভাপতি শ্রীদাম দাস।
তিস্তাসহ ৫৪টি নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় এবং তিস্তা সেচ প্রকল্পে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ক্ষতিপুরণ প্রদানের দাবিতে আগামী ১১মে নীলফামারী শহীদ মিনারে রংপুর বিভাগীয় ক্ষেত মজুর সমাবেশ শেষে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হবে বলে জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, পানি না থাকায় প্রচন্ড গরম আর খরায় বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গ পুড়ছে। মাঠ ফেটে চৌচির, পুকুর খাল বিল, নদীতে পানি নেই। সেচ প্রকল্পে পানি না থাকায় কৃষকরা জমিতে পানি দিতে পারেনি। যার ফলে জমিতে থাকা ধান চিটা হওয়ায় ফলন কমে উৎপাদন হবে মাত্র তিন ভাগের এক ভাগ। ৮০হাজার হেক্টর জমিতে ধান হওয়ার কথা ছিল ৩লাখ ২০হাজার টন এখন উৎপাদন ২লাখ ১৪হাজার টন কম হবে। যার বাজার মুল্য সরকারী দরেও ৪২৮ কোটি টাকা।
তিস্তা সেচপ্রকল্পের সেচ খালের পানি না পাওয়ায় গভীর নলকুপ বসিয়ে জমিতে সেচ দিতে গিয়ে  প্রতি একর ৬হাজার টাকা বাড়তি খরচ হয়েছে কৃষকদের। এভাবে ৮০ হাজার হেক্টরে বাড়তি ব্যয় হয়েছে ১১০কোটি টাকা। সেচের বাড়তি খরচ এবং উৎপাদন কম হওয়ায় তিস্তা সেচ প্রকল্পে চলতি মৌসুমে কৃষকের ক্ষতি হয়েছে ৫৩৮কোটি টাকা, শুধু তাই নয় তিস্তা নদীতে পানি না থাকায় ৫০হাজার জেলে বেকার হয়ে পথে বসেছে। পরিবার পরিজন নিয়ে চরম সংকটে পড়েছেন তারা।
তিস্তা সেচ প্রকল্পের সুবিধাভোগী কৃষক ও জেলেদের সর্বনাশ হয়েছে সরকারের নতজানু পররাষ্ট্র নীতি ও দায়িত্বহীনতার কারণে। কাজেই এর দায়িত্ব রাষ্ট্র এবং সরকারকেই নিতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল(বাসদ) নীলফামারী জেলা কমিটির আহবায়ক ইউনুস আলী, বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ ওয়াহেদ পারভেজ, সমাজতান্ত্রিক ক্ষেত মজুর ফ্রন্টের আহবায়ক আব্দুল কুদ্দুস, ক্ষেত মজুর সমিতির মোস্তাক আহমেদ ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের আহবায়ক গৌতম রায় বক্তব্য রাখেন।
সংবাদ সম্মেলনে আরো জানানো হয়, তিস্তাসহ ৫৪টি নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় এবং তিস্তা সেচ প্রকল্পে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ক্ষতিপুরণ প্রদানের দাবিতে আগামী ১১মে নীলফামারী শহীদ মিনারে রংপুর বিভাগীয় ক্ষেত মজুর সমাবেশ শেষে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হবে।
বিভাগীয় সমাবেশে সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর আহমেদ প্রধান অতিথি এবং বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশিদ ফিরোজ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বলে জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ