• শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১:৩০ পূর্বাহ্ন |

সৈয়দপুরে ভূট্টা আবাদে আগ্রহী কৃষকরা

vuttaরইজ উদ্দিন রকি: নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলায় দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ভূট্টা চাষ। কারণ ভূট্টা বিক্রি করে যেমন অর্থ পাওয়া যায় ঠিক তেমনি ভূট্টার গাছ জ্বালানী হিসেবে খুব সহজে ব্যবহার করা যায়। চলতি মৌসুমে উপজেলায় যে পরিমাণ ভূট্টা চাষ হয়েছে এতে চাষী ও কৃষি বিভাগ বাম্পার ফলনের আশা করছেন।
সৈয়দপুর উপজেলা কৃষি অফিসার হুমায়ারা মন্ডল জানান, চলতি মৌসুমে ৪০ হেক্টর জমিতে ভূট্টা চাষ ল্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বছর ২৫ হেক্টর জমিতে ভূট্টা চাষ করা হয়েছিল। চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় চাষকৃত ভূট্টায় এখন পর‌্যন্ত কোন প্রকার বৈরী প্রভাব পড়েনি। উপজেলার অপোকৃত উঁচু জমিগুলোতে গত বছরের চেয়ে ১৫ হেক্টর জমিতে বেশি ভূট্টা চাষ হয়েছে। সৈয়দপুরের চাষিরা ভূট্টা চাষকৃত জমিতে ভূট্টার পাশা-পাশি অন্যান্য মৌসুমী ফসল লাল শাক, আলুসহ বিভিন্ন ফসল উৎপন্ন করে থাকে। আবহাওয়া এভাবেই অনুকূলে থাকলে চাষিরা লাভবান হবেন বলে আশা করছি। বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের ভূট্টা চাষি রহিম জানান, প্রতি এক শতাংশে এক মণ ভূট্টা উৎপাদন হয়। এর বাজার মূল্য প্রায় ৭ থেকে ৮ শত টাকা, উৎপাদন খরচ শতাংশপ্রতি দুইশত টাকা। ভূট্টা উৎপাদনে ক্ষেতে নিড়ানি লাগে একবার। উৎপাদন খরচ কম, অধিক ফসল ও লাভ বেশি হওয়ায় প্রতি বছর আমি ভূট্টা চাষ করে থাকি। যে ভাবেই ভূট্টা চাষ করা হউক না কেন ভূট্টা চাষে লোকসান নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ