• শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০১:৩৬ পূর্বাহ্ন |

নীলফামারীতে শ্রমিক লীগ নেতার বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

Ovijok নীলফামারী প্রতিনিধি: ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের চুক্তিভিক্তিক শ্রমিকের চাকুরী স্থায়ী করার নামে ১১ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ মিলেছে। শ্রমিক লীগের পানি উন্নয়ন বোর্ড নীলফামারীর ডালিয়া শাখার সাধারণ সম্পাদক সোহরাফ হোসেনের বিরুদ্ধে এ টাকা হাতিয়ে নেয়ার  অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগিরা পানি সম্পদ মন্ত্রীর কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
অভিযোগ মতে, ১৯৮৩ সাল থেকে পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া, দোয়ানী ও তিস্তা ব্যারেজে এলাকায় গেট অপারেটর, সার্ভে খালাশি, গার্ড ও ঝাড়ুদার পদে চুক্তি ভিক্তিক ৩৭ জন শ্রমিক কাজ করে আসছে। এদিকে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর থেকে ওইসব চুক্তি ভিক্তিক শ্রমিকদের চাকরী স্থায়ী করার প্রলোভন দেয় পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া বিভাগের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী ও পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া শাখার শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সোহরাফ হোসেন। চাকরী স্থায়ী করণের খরচ বাবদ বিভিন্ন সময়ে ১৫ থেকে ৫০ হাজার টাকা করে ৩৭ জনের কাছ থেকে মোট ১১ লাখ ২ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন ওই শ্রমিকলীগ নেতা। এদিকে দীর্ঘ দিনেও চাকরী স্থায়ী না হওয়ায় ওই শ্রমিক লীগ নেতার কাছে শ্রমিকরা টাকা ফেরত দেয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করলে ওই নেতা কালক্ষেপন ও তালবাহানা করতে থাকেন। বাধ্য হয়ে আজ রবিবার ৩৭ জন শ্রমিক স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ পানি সম্পদ মন্ত্রীর নিকট পাঠানো হয়েছে। গেট অপারেটর নবাব আলী, মনির আহমেদ, সার্ভে খালাশি মোহাম্মদ আলী ও শাহ আলম, গার্ড রফিকুল ইসলাম, রমজান আলী ও ঝাড়ুদার কহিনুর বেগম জানায় চাকরী স্থায়ী করণের আশায় ধার দেনা করে সোহরাফকে টাকা দিয়েছি কিন্তু দীর্ঘ দিন অতিবাহিত হলেও এখনও চাকরী স্থায়ী হয়নি। তারা জানান এখন টাকা ফেরত চাইলে আমাদের বিভিন্ন ভাবে হুমকি দেয়া হয়। তাই উপায়হীণ  হয়ে মন্ত্রীর শরণাাপন্ন হয়েছি।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সোহরাফ হোসেনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, একটি মহল তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য শ্রমিকদের দিয়ে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ