• বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০১:৩৬ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
ইউনূস, হিলারি ও চেরি ব্লেয়ারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার দাবি সংসদে মার্কেট-শপিং মলে মাস্ক বাধ্যতামূলক করে প্রজ্ঞাপন খানসামায় র‌্যাবের অভিযান ইয়াবাসহ দুই মাদককারবারী গ্রেপ্তার ডোমার ও ডিমলায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগ নিয়ে কর্মশালা নীলফামারীতে ৫ সহযোগীসহ কুখ্যাত চোর ফজল গ্রেপ্তার সৈয়দপুরে তথ্যসংগ্রহকারী ও সুপারভাইজারদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত জয়পুরহাট বিনা খরচে আইনের সেবা পেতে সেমিনার শিক্ষক লাঞ্চনা ও হেনস্তার বিরুদ্ধে সৈয়দপুরে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর প্রতিবাদ সমাবেশ সৈয়দপুরে শহীদ আমিনুল হকের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে বিনামূ‌ল্যে বীজ ও সার বিতরণ

ছাত্রলীগ নেতার বহিষ্কার নিয়ে ‘জালিয়াতি’

Chatro ligঢাকা: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীগের এক নেতার বহিষ্কারে আরেক নেতার জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত নেতা জবি ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক জাহিদ হাসান। তিনি নিয়ম ভেঙে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আনিসুর রহমান শিশিরকে সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের চিঠি দিয়েছেন।জবি শাখা ছাত্রলীগ সূত্রে জানা গেছে, দপ্তর সম্পাদক জাহিদ হাসান সংগঠনের প্যাডে শিশিরকে বহিষ্কারের বিষয়ে একটি ‘বিতর্কিত’ বিজ্ঞপ্তি পাঠান। হাতে লেখা এ বিজ্ঞপ্তিটিতে প্রথমে সাময়িক বহিষ্কারের কথা উল্লেখ করা হলেও তা কেটে তার নিচে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়।

এ বিষয়ে বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতা শিশির অভিযোগ করে বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সংসদই একমাত্র কাউকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করতে পারে। বিজ্ঞপ্তিতে কাটাকাটির ব্যাপারটি জালিয়াতি মনে হচ্ছে এবং তা আমার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে করা হয়েছে।’

শিশির আরো বলেন, ‘একজন কর্মী একই সংগঠনের আরেক কর্মীর কাছ থেকে কখনোই এধরনের কার্যকলাপ আশা করেন না। এতে সংগঠনেরই ক্ষতি হয়।’

এদিকে ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রের ১৭(খ) ধারায় বলা আছে যে, কোনো শাখা উপযুক্ত কারণ দর্শীয়ে কোনো অভিযুক্ত সদস্যের সদস্য পদ তিন মাসের জন্য স্থগিত করতে পারে। ১৭(গ) ধারায় উল্লেখ করা হয়েছে কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ অভিযুক্ত সদস্যের বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনে আরো কঠোর শাস্তি অথবা অভিযোগ থেকে অব্যাহতি প্রদান করবেন। ১৭(ক) ধারায় উল্লেখ আছে বহিষ্কারের ব্যাপারে কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত।76778_1

এ বিষয়ে জবি ছাত্রলীগের সভাপতি এফএম শরিফুল ইসলাম দুই রকম বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি একবার স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের ব্যাপরটি নিশ্চিত করলেও পরবর্তীতে জানান, স্থায়ী নয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে শিশিরকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তবে স্থায়ী না অস্থায়ী সে বিষয়টি স্পষ্ট করেননি।

জবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘অভিযুক্ত সদস্যকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়নি। স্থায়ী বহিষ্কারের ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সংসদ সিদ্ধান্ত নেবে।’

এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ বলেন, ‘জবি ছাত্রলীগ কর্মীর বহিষ্কারের বিষয়টি আমরা জানি না। তবে কোনো ইউনিট কোনো কর্মীকে স্থায়ী বহিষ্কার করতে পারে না, তারা আমাদের কাছে অভিযোগ করে সুপারিশ করতে পারে। আমরা সুপারিশ গ্রহণ করলে তা বহিষ্কার হবে অন্যথায় নয়।’

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মারামারির অভিযোগে আনিসুর রহমান শিশিরকে এর আগেও সাময়িক বহিষ্কার করেছিল জবি শাখা ছাত্রলীগ। সোমবারও একই অভিযোগে তার বিরুদ্ধে স্থায়ী বহিষ্কারের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। এরপর থেকেই বিষয়টি নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। কেউ আবার বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ নেতাদের সাংগঠনিক জ্ঞান নিয়েও প্রশ্ন তুলেন।

বাংলামেইল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ