• বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১০:০৬ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা: প্রধান আসামি জিতু গ্রেপ্তার সৈয়দপুরে কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় বিজিবি সদস্যকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ শ্রেণিকক্ষে রাবি শিক্ষিকাকে মারতে গেলেন ছাত্র! অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযােগ এনজিও’র দুই কর্মকর্তা গ্রেফতার জলঢাকায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার রোধকল্পে সমন্বিত কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নে কর্মশালা ইউনূস, হিলারি ও চেরি ব্লেয়ারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার দাবি সংসদে মার্কেট-শপিং মলে মাস্ক বাধ্যতামূলক করে প্রজ্ঞাপন খানসামায় র‌্যাবের অভিযান ইয়াবাসহ দুই মাদককারবারী গ্রেপ্তার ডোমার ও ডিমলায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগ নিয়ে কর্মশালা নীলফামারীতে ৫ সহযোগীসহ কুখ্যাত চোর ফজল গ্রেপ্তার

অধ্যাপকের গোপনাঙ্গ ছিড়ে নিল যুবলীগ নেতা!

11সিসি নিউজ: বাড়ী নির্মাণের চাঁদা না দেয়ায় পটুয়াখালীর শহরতলী বহালগাছিয়া এলাকায় এক অধ্যাপককে বেদম মারপিট করে গোপনাঙ্গ ছিঁড়ে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। মামলা হলেও ঘটনার তিন দিনেও আসামীরা গ্রেফতার না হয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়িয়ে উল্টো প্রাননাশের হুমকী দিচ্ছে বাদী ও তার পরিবারকে।

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শহরের করিম মৃধা ডিগ্রী কলেজের কৃষি শিক্ষা বিভাগের ওই অধ্যাপক মোঃ ইউসুফ আলম জনান, এলাকায় জায়গা কিনে বাড়ী নির্মাণের শুরু থেকেই চিহ্নিত সন্ত্রসী মামুন চাঁদার দাবীতে সহযোগীদের নিয়ে তাকে ও তার পরিবারকে প্রতিনিয়ত নানা ভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি দিতে থাকে। মেয়েকে মোবাইল ফোনে উত্যক্ত করায় ঢাকায় রেখে লেখাপড়া করাতে হচ্ছে। এ অবস্থায় গত ১০ মে সকালে সন্ত্রাসী মামুন ও জামাল বাড়ীতে ঢুকে চাঁদার দাবীতে তাকে বেদম মারপিট করে তার গোপনাঙ্গ টেনে হেচড়ে ছিড়ে অজ্ঞান অবস্থায় ফেলে যায়। পরে বাড়ীর নির্মাণ শ্রমিক ও প্রতিবেশীরা এসে তাকে হাসপাতালে পাঠায়।

এ ঘটনায় ঐদিন থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে সন্ত্রাসী মামুন সদর থানা যুবলীগ নেতা হওয়ায় মামলা নেয়নি পুলিশ। পরে অনেক দেন দরবার করে পরদিন রবিবার রাতে মামলা দায়ের করতে পারলেও ঘটনার তিনদিনেও আসামীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। অথচ আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়িয়ে উল্টো মামলা তুলে নেযার জন্য প্রাননাশের হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন অধ্যাপক ইউসুফ।

এ অবস্থায় চরম আতংকের মধ্যে তাদের দিন কাটছে বলে জানান অধ্যাপক ইউসুফ আলম ও তার স্ত্রী। অপর দিকে ডাক্তার জানিয়েছেন অধ্যাপক ইউসুফ আলমকে সুস্থ্য ও সাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে উন্নত চিকিৎসা করাতে হবে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাব ইন্সপেক্টর মাহাবুব জানান, আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

উৎসঃ   বিবার্তা


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ