• রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৩:২২ পূর্বাহ্ন |

প্রেমে আপত্তি নেই স্পর্শিয়ার!

sporsiaবিনোদন ডেস্ক: বিয়ে করবেন না তিনি। তবে প্রেমে আপত্তি নেই তার। তার মতে, প্রেম স্বর্গীয়। জীবনে প্রেম আসবে, ভাঙবে, আবার নতুন করে তৈরি হবে। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু কখনই বিয়ে করা হবে না তার। সম্প্রতি নিজের বিয়ে নিয়ে এমনটিই জানালেন প্রজন্মের মডেল ও অভিনেত্রী স্পর্শিয়া।

পুরো নাম অর্চিতা স্পর্শিয়া। স্পর্শিয়া নামেই পরিচিত মিডিয়াপাড়ায়। মডেলিং ও অভিনয়ে এরই মধ্যে আলোচনায় এসেছেন। স্পর্শিয়ার কণ্ঠে প্যারাসুট তেলের বিজ্ঞাপনে ‘বন্ধু তিন দিন’ সংলাপটি এখনও তাকে শুনতে হয় পথেঘাটে।

বিজ্ঞাপনের মডেল হন শখের বশে। সেটি ২০১১ সালের কথা। কিন্তু সেই শখের পর এয়ারটেলের টানা ১০-১২টি বিজ্ঞাপনে কাজ করলেন। পাশাপাশি প্রাণ, প্যারাসুট ইত্যাদি পণ্যের মডেল হয়েছেন।

নাটকে অভিনয় শুরু সামির আহমেদের পরিচালনায় ‘অরুণোদয়ের তরুণ দল’ টেলিছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে। এছাড়াও স্পর্শিয়া অভিনীত উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হলো- ‘রোদ’, ‘ইম্পসিবল ফাইভ’, ‘বিসর্জন’, ‘আমাদের ছোট নদী চলে বাঁকে বাঁকে’, ‘ঘুনপোঁকার ভালোবাসা’ ‘ইচ্ছেঘুড়ি’, ‘সাইড ইফেক্ট’, ‘ভালোবাসার গল্প’, ‘গোপন কথা’ ইত্যাদি।

সম্প্রতি প্রচার শুরু হয়েছে বিবিসির প্রযোজনায় ‘উজান গাঙের নাইয়া’ শিরোনামের একটি ধারাবাহিক নাটক। গিয়াস উদ্দিন সেলিম ও বাশার জর্জিসের পরিচালনায় এ নাটকের গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি।

স্পর্শিয়া জানান, এ নাটকের জন্য টানা চার মাস অন্য কোনো নাটকে কাজ করিনি। ঢাকার বাইরে গিয়ে অনেক কষ্ট করে কাজটি করেছি। এখানে আমাকে গ্রামের একটি কিশোরী মেয়ের (আনিকা) চরিত্রে দেখা যাবে। আমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন শ্যামল মওলা। নাটকে কিশোরী মেয়েটির জীবনের নানা সংগ্রাম দেখানো হয়েছে। বিশেষ করে অল্প বয়সে বিয়ে, এরপর বাচ্চার মা হওয়া, কারখানায় কাজ করে জীবন চালানো, পড়াশুনাসহ নানা বিষয় উপস্থাপিত হয়েছে নাটকটিতে।

স্পর্শিয়া অভিনীত নতুন ধারাবাহিক ‘ফ্যামিলি প্যাক’। আলী ফিদা একরাম তোজোর রচনা ও পরিচালনায় এ নাটকে মুডি এক মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাবে তাকে। এছাড়া আসছে ঈদের জন্য নির্মিতব্য দুটি নাটকে কাজ করেছেন তিনি।

স্পর্শিয়া বলেন, আমি অল্প কাজ করতে চাই। কেননা আমার সব গল্প টানে না। আমি বুঝেশুনে কাজ হাতে নিতে চাই।

অভিনয়ের বাইরে একদিন নির্মাতা হবেন, এমন স্বপ্নই দেখেন স্পর্শিয়া। পরিচালনায় নাম লেখানো প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অনার্স শেষ করে কলকাতার সত্যজিৎ রায় ফিল্ম ইনস্টিটিউটে দুই বছরের জন্য অভিনয় এবং মেকিং বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি নিতে চাই আমি। একসময় আমি নির্মাতা হিসেবে এদেশে কাজ করব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ