• শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন |

গাজী টিভি পেল বিসিবির সম্প্রচার স্বত্ত্ব

G.TVখেলাধুলা ডেস্ক: টিভি সম্প্রচার স্বত্ত্বে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি। ২০১৪ সাল থেকে ২০২০ সালের মে পর্যন্ত আগামী ৬ বছরের জন্য গাজী স্যাটেলাইট টেলিভিশন পেয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সম্প্রচার সত্ত্ব। যদিও আগের চেয়ে কম মূল্যে সম্প্রচার স্বত্ত্ব বিক্রয় করেছে বিসিবি। এর আগে ২০০৬ সালে ৬ বছরের জন্য নিম্বাসের কাছে ৫৫.৮৬ মিলিয়ন ডলারে টিভি স্বত্ত্ব বিক্রয় করেছিল তারা। যদিও নিম্বাসের কাছ থেকে সব টাকা এখনো পায়নি বিসিবি থেকে। শুক্রবার স্থানীয় এক হোটেলে অনুষ্ঠিত নিলামের ভিত্তি মূল্য ছিল ২০ মিলিয়ন ডলার। সেখানে থেকে মাত্র ২৫ হাজার ডলার বেশি মূল্য পেয়ে টিভি স্বত্ত্ব ছেড়ে দিতে হয়েছে গাজী স্যাটেলাইট টেলিভিশনকে। মোট ৭টি প্রতিষ্ঠান দরপত্র কিনেছিল। সেখানে থেকে ট্যাকনিক্যাল অফারে এসেছে ৪টি প্রতিষ্ঠান। বৃহস্পতবার একটি প্রতিষ্ঠানকে বাদ দিয়ে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে নিলামের জন্য বিবেচনা করা হয়।

বাদ পড়তে হয়েছে ভার্গ মিডিয়াকে(চ্যানেল নাইন)। ৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান স্পোর্টস সলিয়ুশন লিমিটেড শুক্রবার সকালে নিলামে অংশ নিতে অস্বীকৃতি জানায়। সেক্ষেত্রে নিলাম অনুষ্ঠিত হয় ২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে। কিন্তু সেখানে ভিত্তি মূল্যের বেশি প্রাইজ দিতে ব্যর্থ হয় মাছরাঙ্গা টেলিভিশন। এ কারণেই ভিত্তিমূল্যের চেয়ে ২৫ হাজার ডলার বেশি দিয়েই টিভি স্বত্ত্ব ক্রয় করে গাজী স্যাটেলাইট টেলিভিশন।

এ বিষয়ে বিসিবির বাণিজ্যিক ও বিপনন কমিটির চেয়ারম্যান কাজী এনাম আহমেদ জানিয়েছেন, ‘১৪ তারিখে ট্যাকনিক্যাল বিড সাবমিশন করা হয়েছিল। আমরা ৪টা বিড সাবমিশন পেয়েছিলাম। শুক্রবার আমরা যখন নিলাম শুরু করি তখন ২টি ক্লোজ খাম পাই। মিডিয়া কম এবং গাজী স্যাটেলাইট টেলিভিশন থেকে আমরা তাদের বিড অফার রিসিভ করি। আমাদের ফ্লোর প্রাইজ (ভিত্তি মূল্য) নির্ধারণ করা হয়েছিল ২০ মিলিয়ন ডলার। গাজী টেলিভিশন সর্বোচ্চ প্রাইজ দিয়েছে। তারা ২০ মিলিয়ন সঙ্গে আরও ২৫ হাজার ডলার বাড়িয়ে টিভি স্বত্ত্ব কিনে নেয়।’

গাজী স্যাটেলাইট টেলিভিশনের এ সাবমিশনের সঙ্গে তাদের কিছু কন্ডিশনাল রিকুয়েস্ট ছিল। সেসব বিষয় নিয়ে শুক্রবার বিকেল ৩ টায় বোড সভায় বসে । সেখানে কিছু কন্ডিশন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আলোচনার পরই বিসিবি সভাপতি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন গাজী স্যাটেলাইট টেলিভিশনই আগামী ৬ বছরের জন্য সম্প্রচার স্বত্ত্ব সম্প্রচার করবে। এ ব্যাপারে তিনি বলেছেন, ‘আমরা যে মূল্য পেয়েছি তাতে করে আমরা সন্তুষ্ট। টিভি স্বত্ত্বের যে ভিত্তি মূল্য ছিল আমার লক্ষ্য এ রকমই ছিল। আমি সন্তুষ্ট আমা আমাদের বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হয়নি। না হলে আমাদের আবার রি-টেন্ডার করতে হতো।

ওপেন বিড হলে সেখানে কন্ডিশন যুক্ত হল কেন? এমন প্রশ্নে মাহবুবুল আনাম বলেছেন, সমস্ত বিডার একটা ক্লোজ খামে তাদের প্রথম বিডটা দিয়েছে। প্রথম বিডটার পরে যারা নিলামে অংশ নিয়েছে তারা সর্বোচ্চ অংক ডেকেছে। ওই বিডের উপরে যদি কেউ বিড না করে তবে আগের সর্বোচ্চ বিডার এটা পেয়ে যাবে। নিলামে এটাই ফলো করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ