• বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১১:০৪ অপরাহ্ন |

তারেক ও আরিফ ৫ দিনের রিমান্ডে

Rimandনারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে সাত খুনের ঘটনায় গ্রেফতারকৃত র‌্যাবের চাকরিচ্যুত দুই কর্মকর্তা র‌্যাব-১১ এর সাবেক অধিনায়ক লে. কর্নেল তারেক সাঈদ মাহমুদ ও মেজর আরিফ হোসেনকে ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। তারেক সাঈদ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার মেয়ে জামাতা। অভিযুক্ত অপর চাকরিচ্যুত র‌্যাব কর্মকর্তা লে. কমান্ডার এমএম রানাকে গ্রেফতার করা যায়নি।
শনিবার দুপুর দুইটায় র‌্যাবের সাবেক ওই দুই কর্মকর্তাকে নারায়ণগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করা হয়। তাদেরকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

শনিবার দুপুর দুইটায় তাদেরকে আদালতে হাজির করা হয়। সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট চাঁদনি রুপমের আদালতে রিমান্ড আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানি শেষে প্রত্যেকের ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

আদালতে অভিযুক্ত সেনাবাহিনীর লে. কর্নেল তারেক সাঈদ নিজেকে এবং এ ঘটনায় র‌্যাব নির্দোষ বলে দাবি করেন। তিনি বলেন, সাংবাদিকরা ঢালাওভাবে তাদের অভিযুক্ত করছেন। রিমান্ড শুনানিতে আসামিপক্ষে কোনো আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন না। বাদীপক্ষে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতিসহ ২০ থেকে ২২ জন আইনজীবী ছিলেন।

শুক্রবার গভীর রাতে গ্রেফতারের পর শনিবার ভোরে তাদেরকে নারায়ণগঞ্জে এনে পুলিশলাইনে রাখা হয়। সেখান থেকে তাদের দু’জনকে কড়া পুলিশি পাহারায় আদালতে আনা হয়।

এর আগে বেলা ১১টায় সাত খুনের ঘটনায় গঠিত পুলিশের তদন্ত কমিটির প্রধান পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি গোলাম ফারুক, জেলা পুলিশ সুপার ড. খন্দকার মহিদউদ্দিনসহ জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তারা পুলিশলাইনে যান।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালতপাড়ায় বিভিন্ন গণমাধ্যমের কর্মীরা ভিড় করেছেন।

গত ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম এবং আইনজীবী চন্দন সরকারসহ সাতজন অপহৃত হন। ৩০ এপ্রিল ও ১ মে শীতলক্ষ্যা নদী থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার দিবাগত রাত সোয়া তিনটায় ঢাকা সেনানিবাস থেকে গ্রেফতার করা হয় লে. কর্নেল তারেক সাঈদ মাহমুদ ও মেজর আরিফ হোসেনকে। নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার ড. খন্দকার মুহিদ উদ্দীন শনিবার ভোর ৪টার পর বলেন, চাকুরিচ্যুত নৌ-বাহিনী কর্মকর্তা লে. কমান্ডার এমএম রানাকে গ্রেফতার করা যায়নি। বাকি দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ