• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৮:২৩ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খোলা বায়েজিদ আটক নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলামের শ্বশুড়ের ইন্তেকাল সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের গ্রন্থাগারের মূল্যবান বইপত্র গোপনে বিক্রি ফেনসিডিলসহ সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা গ্রেপ্তার এ সেতু আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে ৮ দিন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেতে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা সৈয়দপুরে বিস্কুট দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ গণমানুষের সমর্থনেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

সৈয়দপুরে রেলগেট বাজারের ব্যবসায়ীদের সড়ক অবরোধ

Rail Bazar
শাহজাহান আলী, সিসিনিউজ: সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা গেট সংলগ্ন রেলওয়ে শ্রমিক কল্যাণ ট্রাস্টের গড়া দোকানপাট উচ্ছেদ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এরই প্রতিবাদে আজ বুধবার সকাল ৯টা থেকে প্রায় দু’শতাধিক ব্যবসায়ী তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে শহরের ব্যস্ততম ওই সড়ক অবরোধ করেছে।
সূত্র মতে, সৈয়দপুর রেলওয়ে শ্রমিক কল্যাণ ট্রাস্টের নিয়ন্ত্রণাধীন গেটবাজারের ব্যবসায়ীরা বলেন, দেশ স্বাধীনের পর থেকেই ব্যবসায়ীরা নানা কষ্টের মধ্যে দিয়েও ওই স্থানে তাদের ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। একসময় রেল কারখানার শ্রমিক লীগ নেতা মোকছেদুল মোমিনসহ রেল কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে আলাপ আলোচনার পর চুক্তি মোতাবেক প্রায় ২২০টি সেমি পাকা দোকান নির্মাণ করেন। চুক্তি মোতাবেক দোকান ঘরের ভাড়া ৩৬ টাকা প্রতি বর্গ ফুট নির্ধারণ করতঃ বাৎসরিক প্রায় ৫ লাখ টাকা ভাড়া প্রদান করে আসছে দোকানীরা। এ ছাড়াও ভ্রাম্যমান ব্যবসায়ীরা প্রতিদিন ৫ টাকা ভাড়া প্রদানের ভিত্তিতে অস্থায়ী দোকান বসিয়ে ব্যবসা করে আসছে। কিন্তু হঠাৎ বুধবার সকালে রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্বাবধায়ক নুর আহাম্মদ হোসেন শ্রমিক কল্যাণ ট্রাস্টের দোকানসহ আশপাশের প্রায় সাড়ে ৩শ’ দোকান উচ্ছেদ করার পায়তারা করেন। এতে দোকানদাররা তাৎনিক সব দোকান বন্ধ করে প্রতিবাদ করেন এবং রেলওয়ে কারখানাগামী সড়কটি অবরোধ করে রাখে।
ওই বাজারের ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ বলেন, রেল কারখানার বিভাগীয় তত্বাবধায়ক (ডিএস) তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদের কৌশল হিসেবে প্রথমে রাস্তার পাশে কোন রিক্সা দাড়ানো বা চলাচল করতে পারবেনা বলে নোটিশ বোর্ড টাঙ্গানোর জন্য আসেন। এতে ব্যবসায়ীরা বাধা দিলে তিনি এক পর্যায়ে ওই সব দোকান পাট অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার জন্য হুমকি দিতে থাকেন। অন্যথায় দোকান পাট বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়া সহ মামলায় ফাসানোর হুমকি প্রদান করার প্রেেিতই ব্যবসায়ীরা সড়ক অবরোধ করেছেন বলে জানান।
তবে রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্বাবধায়ক নুর আহাম্মদ হোসেন জানান, ব্যবসায়ীদের দোকানপাট উচ্ছেদের অভিযোগটি সত্য নয়। রাস্তায় যাতে করে কোন রিক্সা বা ট্রাক ও পিকআপ দাড়িয়ে থেকে জনসাধারণের চলাচলে ব্যাঘাত সৃষ্টি না করে এ জন্যই ওই নোটিশ বোর্ড লাগানোর সিদ্ধান্ত হয়। এক প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, গত ২৩ এপ্রিল রেলওয়ে কর্মকর্তা, শ্রমিক কল্যাণ ট্রাষ্ট নেতৃবৃন্দ ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই এই নোটিশ বোর্ড লাগানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। কিন্তু আজ সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বোর্ড লাগাতে গেলে ব্যবসায়ীরা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। যা কোন ভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এর পিছনে কারা কলকাঠি নাড়ছে তা আমাদের ভাল করেই জানা আছে। স্বাভাবিক পথে না চললে পরিস্থিতি কারও জন্যই শুভ হবেনা।
পরে বেলা ২টার দিকে ঘটনাস্থলে কারখানা বিভাগীয় তত্বাবধায়ক নুর আহমেদ ও শ্রমিক লীগ নেতা মোকছেদুল মমিন উপস্থিত হয়ে ব্যবসায়ীদের উচ্ছেদ না করার প্রতিশ্র“তি দিলে ব্যবসায়ীরা অবরোধ তুলে নেয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ