• শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০২:২৩ পূর্বাহ্ন |

পঞ্চগড়ে সাবেক সাংসদকে প্রধান অতিথি না করায়….

Ponchogorপঞ্চগড় প্রতিনিধি: পল্লী বিদ্যুতের ৪ কিলোমিটার বিদ্যুৎ লাইন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি না করায় ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পঞ্চগড় জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজারকে (ডিজিএম) অবরুদ্ধ করে হুমকি-ধামকি দেয়া হয়েছে।
পঞ্চগড়-১ আসনের সরকার দলীয় সাবেক সাংসদ ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মজাহারুল হক প্রধান ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা এ ঘটনাটি ঘটিয়েছেন।
ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পঞ্চগড় জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মোঃ মোবাশ্বের হোসেন জানান, ওই বিদ্যুৎ লাইন আজ রোববার বিকেলে প্রধান অতিথি হিসেবে পঞ্চগড়-১ আসনের সাংসদ জাসদ নেতা নাজমুল হক প্রধান উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য স্থানীয় এলাকাবাসি আমন্ত্রণ পত্র বিলিবন্টনও করেছেন। কিন্তু বিদ্যুৎ লাইন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তাকে প্রধান অতিথি না করায় ক্ষুব্ধ হয়ে প্রায় ২৫টি মোটরসাইকেলে করে ৫০ জনের অধিক নেতাকর্মী নিয়ে তিনি গতকাল শনিবার দুপুরে ডিজিএমের কার্যালয়ে গিয়ে তাকে অবরুদ্ধ করেন। দীর্ঘ এক ঘন্টাব্যাপী অবরুদ্ধ থাকাকালীন সময়ে সাবেক সাংসদ বিদ্যুৎ লাইন উদ্বোধনের জন্য ডিজিএমকে জোরপূবর্ক ওই এলাকায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এসময় তাকে গালিগালাজ করা হয়। সাবেক সাংসদকে প্রধান অতিথি না করে লাইন উদ্বোধন করা হলে অসুবিধা হবে বলেও ডিজিএমকে তারা শাসিয়ে যান।
তিনি আরও জানান, পঞ্চগড়-১ আসনের সাংসদ নাজমুল হক প্রধানকে বাদ দিয়ে প্রয়োজনে বিদ্যুৎ লাইনটি জেলা প্রশাসন বা পুলিশ প্রশাসনকে দিয়ে উদ্বোধনের জন্য চাপ প্রয়োগ করেন। ঘটনার খবর পেয়ে পঞ্চগড় থানা পুলিশ পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে আসার আগেই তিনি নেতাকর্মীদের নিয়ে অফিস থেকে বেরিয়ে আসেন।
জানা গেছে, বিদ্যুৎ লাইনের কাজ সম্পন্ন হলেও উদ্বোধন জটিলতার কারণে ওই এলাকার মানুষ বিদ্যুতের অভাবে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। গত পহেলা ব্শৈাখে পঞ্চগড়-১ আসনের সাংসদ নাজমুল হক প্রধানের ওই ৪ কিলোমিটার বিদ্যুৎ লাইন উদ্বোধনের কথা ছিল। সেবারও পঞ্চগড়-১ আসনের সাবেক সাংসদ বিদ্যুৎ লাইন উদ্বোধনে বাঁধা দিয়েছিলেন।
উল্লেখ্য, সাবেক সাংসদ মোঃ মাজাহারুল হক প্রধানের সময়ে ওই এলাকায় বিদ্যুৎ লাইন সম্প্রসারণ কাজ করা হয়েছিল। এজন্য তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে ওই বিদ্যুৎ লাইন উদ্বোধন করতে চেয়েছিলেন।
ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পঞ্চগড় জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মোঃ মোবাশ্বের হোসেন বিষয়টি বর্তমান সাংসদসহ স্থানীয় প্রশাসন ও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছেন বলে জানিয়েছেন।
পঞ্চগড় থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হুমায়ুন কবীর ডিজিএমকে অবরুদ্ধ করে রাখার খবর শুনে থানার দু’জন এসআইসহ পুলিশের একটি দলকে ঘটনাস্থলে পাঠান। পুলিশ যাওয়ার আগেই তারা সেখান থেকে চলে আসেন বলে তিনি জানিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ