• বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১২:২৫ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :
ইউনূস, হিলারি ও চেরি ব্লেয়ারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার দাবি সংসদে মার্কেট-শপিং মলে মাস্ক বাধ্যতামূলক করে প্রজ্ঞাপন খানসামায় র‌্যাবের অভিযান ইয়াবাসহ দুই মাদককারবারী গ্রেপ্তার ডোমার ও ডিমলায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ১০ উদ্যোগ নিয়ে কর্মশালা নীলফামারীতে ৫ সহযোগীসহ কুখ্যাত চোর ফজল গ্রেপ্তার সৈয়দপুরে তথ্যসংগ্রহকারী ও সুপারভাইজারদের দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত জয়পুরহাট বিনা খরচে আইনের সেবা পেতে সেমিনার শিক্ষক লাঞ্চনা ও হেনস্তার বিরুদ্ধে সৈয়দপুরে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর প্রতিবাদ সমাবেশ সৈয়দপুরে শহীদ আমিনুল হকের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত ফুলবাড়ীতে বিনামূ‌ল্যে বীজ ও সার বিতরণ

সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি অনৈতিক : ড. কামাল

Dr. kamalঢাকা: সরকারি চাকরিতে প্রচলিত কোটা পদ্ধতিকে অনৈতিক বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ সংবিধান প্রণয়ন কমিটির সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধারা সরকারি চাকুরিতে কোটা পদ্ধতি সুবিধা নেয়ার জন্য মুক্তিযুদ্ধ করেননি। একটা বৈষম্যহীন সমাজ গঠনে যুদ্ধ করেছিল।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর সি মজুমদার মিলনায়তনে “সংবিধান বক্তৃতামালা (প্রথম-অষ্টম)” শীর্ষক অনুষ্ঠানে আলোচকের বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। বাঙলার পাঠশালা এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ড. কামাল বলেন, বর্তমানে অনেক মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কোটায় চাকুরি নিচ্ছেন অথচ ১৯৭১ সালে তাঁর বাবাও জন্ম হয়নি। এটি কোন নির্দিষ্ট ব্যক্তি ও গোষ্ঠীর স্বার্থে করা হচ্ছে। তাই কোটা পদ্ধতি নিয়ে আমরা উদ্ধিগ্ন। বিষয়টা নিয়ে আমাদের ঠান্ডা মাথায় চিন্তা হবে।

বর্তমানে দেশে সভা-সমাবেশ করতে পুলিশের অনুমতি লাগে কেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ন্যায়-সঙ্গত আন্দোলন করলে এই অনুমতি লাগবে না। পাকিস্তান আমলে ও নব্বইয়ের স্বৈরাচার আমলেও এই অবস্থা ছিল। তবে ঐ সময় আমরা ন্যায়-সঙ্গত আন্দোলন করে সফল হয়েছিলাম। তাই আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে ন্যায়-সঙ্গত আন্দোলন করতে হবে। এতে সফল হওয়া যাবে। কেননা কোন আইন করে দেশে মৌলিক অধিকার খর্ব করা যাবে না। পুলিশও এই গণতান্ত্রিক দেশের নাগরিক।

অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরিটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামানের সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সমন্বয়ক আহমেদ জাভেদ রনির উপস্থাপনায় বাংলাদেশের সংবিধান ও সংশোধনীর (প্রথম-চতুর্থ) উপর প্রবন্ধ পাঠ করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড. কাজী জাহেদ ইকবাল। আলোচনায় আরো অংশ নেন সংবিধান প্রণয়ন কমিটির অন্যতম সদস্য ব্যারিস্টার আমীর-উল-ইসলাম, সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার তানিয়া আমির, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এম এম আকাশ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ